1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

লিয়ঁকে ৩-০ উড়িয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে বায়ার্ন

সব প্রত্যাশাই প্রায় পূর্ণ৷ চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে অবশেষে বায়ার্ন মিউনিখ৷ দীর্ঘ নয় বছর পর৷ অলিম্পিক লিয়ঁকে ৩-০ গোলে হারিয়ে৷ হ্যাটট্রিক ওলিচের৷ খুশির জোয়ার জার্মানি জুড়ে৷

default

জয়ের উচ্ছ্বাস, পরাজয়ের কান্না- দুটোই এক ফ্রেমে

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম সেমিফাইনাল শুরুর আগে থেকে ঘোড়ার মুখের খবর ছিল, বায়ার্ন যাচ্ছেই ফাইনালে৷ পরিস্থিতি যা ছিল তাতে ড্র করলেও ফাইনালে যেত বায়ার্ন৷ কারণ তারা এগিয়ে ছিল গোলের হিসেবে৷ লিয়ঁর বিরুদ্ধে আগের খেলাটায় ১-০ জিতেছিল বায়ার্ন৷ কিন্তু মঙ্গলবার আর কোন পয়েন্ট, গোল, অতিরিক্ত সময়ের খেলা, এতসব ঝঞ্ঝাটেই যেতে হল না৷ কারণ, শুরু থেকেই ম্যাচের লাগাম নিজেদের হাতে নিয়ে লুই ফান গাল-এর বায়ার্ন মিউনিখ যে খেল দেখাল পুরো সময়টা জুড়ে, তাকে স্মরণকালের মধ্যে বায়ার্নের সেরা খেলা বলে মন্তব্য করছেন তাবড় ফুটবল বিশেষজ্ঞরা৷ ইভিত্চা ওলিচের হ্যাটট্রিকে তিন শূণ্য ফলাফল৷ বায়ার্নের গোলকিপার হান্স বুটকে তেমন কোন সমস্যা পোয়াতে হয়নি৷ কারণ অধিকাংশ সময়েই বল ছিল লিয়ঁর দিকে৷ পুরো খেলায় মাত্র দুইবার গোল করার মত পরিস্থিতি তৈরি করেছিল লিয়ঁ৷ প্রথমার্দ্ধে লিয়ঁর বাস্টস আর দ্বিতীয়ার্দ্ধে গোমিসের সেই চেষ্টাও তেমন কিছু জোরদার ছিল না৷

Fußball Champions League Halbfinale FC Bayern München Olympique Lyon Flash-Galerie

এভাবে পর পর তিন গোল মানে হ্যাটট্রিক করেন ওলিচ

তিন শূণ্য ফলাফল হয়েছে ঠিকই, কিন্তু মঙ্গলবার বায়ার্ন সহজেই জিততে পারত নিদেনপক্ষে ৬-০ বা ৭-০ গোলে৷ সুযোগ পেয়ে ফস্কেছেন রবেন, সোয়াইনস্টাইগার, ম্যুলার আর আল্টিনটফ৷ কিন্তু বায়ার্নের এই দুর্দান্ত জয়ের পর জার্মানি জুড়ে খুশির জোয়ার৷ এমনকি যারা বায়ার্ন সমর্থক নয়, তারাও ব্যাপারটাকে দেখছে জার্মানির জাতীয় সাফল্য হিসেবেই৷

বুধবার দ্বিতীয় সেমিফাইনালে বার্সেলোনায় মুখোমুখি হচ্ছে এফসি বার্সেলোনা আর ইন্টার মিলান৷ একদিকে বার্সেলোনার স্টার আর এই মুহূর্তে দুনিয়ার সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি আর অন্যদিকে মিলানের দুনিয়ার সেরা কোচ হোসে মোরিনহোর লড়াই সেটা৷ যেই জিতুক, আগামী ২২ মে-র ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখ তাদের সহজে যে দান ছাড়বে না, তা বোঝা গেছে মঙ্গলবার৷ আর মঙ্গলবারের এই ফাটাফাটি জয়ের পর আত্মবিশ্বাসটাও তুঙ্গে রয়েছে বায়ার্নের৷ এর বাইরে আগামী চারটে সপ্তাহের মধ্যে বুন্দেসলিগা সেরা হওয়ার সম্ভাবনা তো আছেই, তাছাড়া জার্মান কাপও ঘরে তুলতে পারে ফান গালের বায়ার্ন৷ তার ওপর যদি চ্যাম্পিয়নস লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়ে যায় বায়ার্ন মিউনিখ, তাহলে তো আর কথাই নেই৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়