1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

লিবিয়ায় বিক্ষোভকারীদের ওপর আবারও গুলি, ইন্টারনেট বন্ধ

লিবিয়ায় বিক্ষোভকারীদের ওপর আবারও গুলি চালালো নিরাপত্তা বাহিনী৷ এছাড়া মিশরের পথ অনুসরণ করে ইন্টারনেট যোগাযোগও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে৷

default

৪১ বছর ধরে ক্ষমতায় গদ্দাফি

সর্বশেষ পরিস্থিতি

লিবিয়ায় সরকার বিরোধী আন্দোলন চলছে মূলত বেনগাজি শহরে৷ এটি পূর্বাঞ্চলীয় একটি বন্দর নগরী৷ গতকাল শনিবার ছিল বিক্ষোভের পঞ্চম দিন৷ এর আগে তিন দিন নিরাপত্তা বাহিনী বিক্ষোভকারীদের উপর গুলি চালিয়েছিল বলে খবর পাওয়া গেছে৷ যেটা গতকালও অব্যাহত ছিল৷ গতকালের ঘটনায় ১৫ জন মারা যাওয়ার খবর দিয়েছে আল-জাজিরা৷ স্থানীয় এক হাসপাতালের ডাক্তারের বরাত দিয়ে এই খবর প্রচার করা হয়েছে৷

এদিকে রয়টার্স এক প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে বলেছে মৃতের সংখ্যা আরও বেশি হতে পারে৷ তবে তারা নির্দিষ্ট কোনো সংখ্যা বলতে পারে নি৷

উল্লেখ্য, আন্দোলন শুরু হওয়ার পর থেকে সেখানে বিদেশি সংবাদ মাধ্যমের কর্মীদের সংবাদ সংগ্রহের অনুমতি দেয়া হচ্ছে না৷ তাই বিক্ষোভের আসল পরিস্থিতি ও হতাহতের সঠিক সংখ্যা সম্পর্কে জানা অনেকটা কঠিন হয়ে পড়েছে৷

এর আগে শুক্রবার পর্যন্ত আন্দোলনে মোট ৮৪ জন মারা যাওয়ার খবর দিয়েছিল মানবাধিকার সংস্থা ‘হিউম্যান রাইটস ওয়াচ'৷ তবে বেনগাজি শহরে ‘ভয়ংকর' পরিস্থিতি বিরাজ করছে বলে জানাচ্ছে সংবাদ মাধ্যমগুলো৷

এদিকে মিশরের মত লিবিয়াতেও ইন্টারনেট যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে মার্কিন একটি সংস্থা৷ যারা ইন্টারনেট মনিটরিং-এর কাজ করে থাকে৷ এছাড়া ফেসবুক ও আল-জাজিরা'র আরবি সার্ভিসের প্রচারও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে৷

বিভিন্ন দেশের নাগরিক গ্রেপ্তার

লিবিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা ‘জানা' বলছে, দেশটিতে অস্থিরতা ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে আরব বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ তারা লিবিয়ার নাগরিকদের নিরাপত্তা ও জাতীয় ঐক্য নষ্টের পাঁয়তারা করছিল বলেও অভিযোগ আনা হয়েছে৷ গ্রেপ্তারকৃতরা মিশর, টিউনিশিয়া, সুদান, প্যালেস্টাইন, সিরিয়া ও তুরস্কের নাগরিক বলে জানা গেছে৷

প্রতিক্রিয়া

ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগ বলেছেন বিক্ষোভকারীদের দমনে ভারী অস্ত্রের ব্যবহারের ঘটনা গ্রহণযোগ্য নয়৷ এছাড়া খবর প্রচারে গণমাধ্যমের ওপর নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে তিনি বলেন, টিভি ক্যামেরা দিয়ে বিক্ষোভের ছবি দেখাতে না দেয়ার মানে এই নয় যে, বিশ্ববাসী আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে নেয়া সরকারের পদক্ষেপ নিয়ে ভাববে না৷ এদিকে কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিক্ষোভকারীদের ওপর নিরাপত্তা বাহিনীর হামলায় ‘গভীর উদ্বেগ' প্রকাশ করেছেন এবং ‘শান্তিপূর্ণ আলোচনা' শুরুর জন্য লিবিয়ার সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়