1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

লিবিয়ার মিসরাটা শহরের উপর গাদ্দাফি বাহিনীর হামলা অব্যাহত

গাদ্দাফি বিরোধী বিদ্রোহীরা লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে রাখতে পারলেও গত প্রায় ৬ সপ্তাহ ধরে মিসরাটা শহরে দুই পক্ষের মধ্যে তুমুল লড়াই চলছে৷

default

এমন ক্লাস্টার বোমা ব্যাপক প্রাণহানি ঘটাতে পারে

গাদ্দাফি বাহিনী সর্বশক্তি প্রয়োগ করে মিসরাটা দখল করতে চাইছে৷ অন্য কোনো শহরে এত মারাত্মক সংঘর্ষের খবর পাওয়া যায় নি৷ এমনকি ক্লাস্টার বোমাও ব্যবহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে৷ ঘাতক বাহিনী আড়াল থেকে গুলি করে বিদ্রোহীদের হত্যা করছে৷ প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, গাদ্দাফি বাহিনী শহরের ৩ দিক থেকে হামলা চালাচ্ছে৷ বিদ্রোহীদের সূত্র অনুযায়ী গোলাবর্ষণের ফলে শুধু রবিবারই ১৭ জন নিহত হয়েছে৷

Libyen Misrata Rebellen Aufstand

বিদ্রোহীরা প্রাণপনে মিসরাটায় প্রতিরোধ চালিয়ে যাচ্ছে

স্থানীয় এক ডাক্তারের দাবি, গত ৬ সপ্তাহে কমপক্ষে ১,০০০ মানুষ নিহত হয়েছে৷ তাঁর মতে, তাদের মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশই নিরীহ মানুষ৷ প্রায় ৪ লক্ষ জনসংখ্যার এই শহরের আতঙ্কিত মানুষ মরিয়া হয়ে সমুদ্রপথে পালানোর চেষ্টা করছে৷ তাদের উদ্ধার করতে তৎপর হচ্ছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংগঠন৷ সোমবার প্রায় ১,০০০ মানুষকে উদ্ধার করতে পারলেও আরও কয়েক হাজার মানুষ উদ্ধারের অপেক্ষায় দিন গুনছে৷ জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন অবিলম্বে অস্ত্রবিরতির ডাক দিয়েছেন৷ অস্ত্রবিরতি কার্যকর হলে দুর্গত মানুষের কাছে মানবিক সাহায্য পাঠানো হবে৷ সেইসঙ্গে পরিস্থিতি শান্ত রাখতে রাজনৈতিক স্তরে সংলাপ ও সমাধানসূত্র খোঁজার চেষ্টা হবে, বলেন বান৷

Libyen Misrata Brand Fabrik Aufstand

প্রায় ৬ সপ্তাহের সঘর্ষের পর মিসরাটার অনেক এলাকা ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে

বলাই বাহুল্য, মিসরাটায় নিরীহ মানুষের উপর হামলার অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করছে গাদ্দাফি প্রশাসন৷ সাইফ আল ইসলাম বলেছেন, এক সময়ে ইরাকে সাদ্দাম হুসেনের কাছে মারণাত্মক অস্ত্র রয়েছে বলে যে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হয়েছিল, এখন লিবিয়ার ক্ষেত্রেও তেমন মিথ্যা রটনা চলছে, বলেন মুয়াম্মার গাদ্দাফির পুত্র৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন