1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

লালদের ঠেকাতে হলুদ জামাওয়ালাদের হুমকি

থাইল্যান্ডের রাজপথে এখনও বিদ্যমান লাল জামার ছড়াছড়ি৷ বিগত তিন সপ্তাহ ধরে এবং তারও পূর্বে কয়েক দফা দেখা গেছে তাদের সক্রিয় উপস্থিতি৷ তবে লাল জামা পরা বিক্ষোভকারীদের আন্দোলন থামাতে ব্যর্থ হলে এবার পথে নামবে নতুন এক বাহিনী৷

default

লাল জামাওয়ালা বিক্ষোভকারীদের একাংশ

তাদের গায়ে থাকবে হলুদ জামা৷ সরকারের প্রতি এমন হুমকি ছুঁড়ে দিয়েছে দেশটির ব্যবসায়ী এবং উচ্চ-মধ্যবিত্ত শ্রেণীর একাংশ৷ এক্ষেত্রে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আপিসিত ভেজ্জাজিভার সরকারকে বেঁধে দেওয়া হয়েছে সাত দিনের সময়সীমা৷ এদিকে, যে কোন মূল্যে ক্ষমতা আঁকড়ে রাখার প্রচেষ্টায় ভেজ্জাজিভা ইতিমধ্যে সেখানকার জাতীয় প্রতিরক্ষা দপ্তরে পরিবর্তন এনেছেন৷ ঐ দপ্তরের প্রধানের দায়িত্বে থাকা উপ-প্রধানমন্ত্রীকে সরিয়ে সেনা প্রধান অনুপঙ্গ পাওচিন্দাকে প্রতিরক্ষা প্রধানের দায়িত্ব দিয়েছেন ভেজ্জাজিভা৷

প্রতিরক্ষা দপ্তরের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই ব্যাংককের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কার্যকর পন্থা খুঁজে বের করতে শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন পাওচিন্দা৷ বৈঠকের পর এক সেনা মুখপাত্র বলেন, ‘‘নিরাপত্তা কর্মীদের উপর চাপ সৃষ্টি করতে, লাল জামা পরা আন্দোলনকারীদের প্রতি শিশু এবং বয়স্ক নারী-পুরুষদের সামনের সারিতে ঢাল হিসেবে ব্যবহার না করার জন্য আমরা আহ্বান জানাই৷'' এছাড়া তিনি সতর্ক করে দেন যে, সংকট কাটাতে নিরাপত্তা অভিযান আরো কঠোর করা হবে৷

Thailand Protest Politik

বিক্ষোভকারীদের লাল জামায় শিনাওয়াত্রা (ফাইল ছবি)

অবশ্য বিশ্লেষকদের ধারণা, ২০০৬ সালে রক্তপাতহীন অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী থাকসিন শিনাওয়াত্রার প্রতি দেশটির প্রায় প্রত্যেক মহলেই কিছু কিছু সমর্থন রয়ে গেছে৷ এমনকি লাল-হলুদ গোষ্ঠীর প্রচ্ছন্ন বিভেদ সেনা বাহিনীতেও রয়ে গেছে৷ ছুটিতে থাকা সেনা সদস্যরাও নাকি লাল জামা পরা বিক্ষোভকারীদের সাথে যোগ দিয়েছেন অনেক সময়ই৷ আবার শিনাওয়াত্রা নিজেও এক সময় পুলিশ বাহিনীতে থাকায়, সেখানেও রয়ে গেছে তাঁর গভীর প্রভাব৷ ফলে সবদিক বিবেচনায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা ভেজ্জাজিভা সরকারের পক্ষে বেশ কঠিন বলেই আশঙ্কা বিশ্লেষকদের৷

সোমবার ব্যাংককের বাণিজ্যিক সড়ক এবং ব্যাংক পাড়া হিসেবে খ্যাত সিলোম রোডে বিক্ষোভকারীদের অনুপ্রবেশের হুমকির প্রেক্ষিতে সেখানে অতিরিক্ত সেনা ও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে৷ এছাড়া একদিন পর মঙ্গলবার আরো অসংখ্য লাল জামা পরা আন্দোলনকারী ব্যাংককে সমবেত হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন অন্যতম সরকার বিরোধী নেতা নাত্তায়ুত সায়কুয়া৷

এদিকে, দুই মেয়াদে থাইল্যান্ডের ক্ষমতায় থাকা সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনাওয়াত্রা সোমবার বলেছেন, ‘‘রাজনৈতিক সংকটের সমাধান অবশ্যই রাজনৈতিক পন্থায় করতে হবে এবং আপিসিতের জন্য একমাত্র সমাধান হচ্ছে, সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে নতুন করে নির্বাচনের ঘোষণা দেওয়া৷'' ব্রুনেই থেকে টেলিফোনে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শিনাওয়াত্রা একথা বলেন৷

প্রতিবেদক: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়