1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

লাদেনের জন্য পাকিস্তান সরকারের সমালোচনা

বিশ্বের চোখ যার দিকে, সেই মানুষটা একটা দেশে ছিল প্রায় ছয় বছর৷ অথচ সে দেশের সরকার, পুলিশ, গোয়েন্দা বিভাগ – কেউ কিছু জানতে পারলো না!

পাকিস্তানে বিন লাদেনের আত্মগোপন করে থাকাকে ‘রহস্যজনক’ বলে এর জন্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করেছে একটি তদন্ত প্রতিবেদন৷প্রতিবেদনটি একটি বিচারবিভাগীয় কমিশনের তৈরি করা৷ লাদেন যুক্তরাষ্ট্রের ‘নেভি সিল'-এর অভিযানে নিহত হওয়ার পর বিশ্বজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়৷ পাকিস্তান সংসদে ওঠে বিচার বিভাগীয় কমিশন গঠন করে বিষয়টি তদন্ত করে দেখার দাবি৷ সেই তদন্তের প্রতিবেদন পাকিস্তানের সরকার পেয়েছিল আগেই৷ কিন্তু তা প্রকাশ করা হয়নি৷ সোমবার সেটা প্রচার করে দিয়েছে আল জাজিরা নিউজ নেটওয়ার্ক৷ তাই ২০০১ সালে যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানে অভিযান চালানোর পরই লাদেনের পাকিস্তানে ঢুকে পড়া এবং সেই থেকে মৃত্যু পর্যন্ত সে দেশেই অবস্থান করার বিষয়টি এখন অনেকটাই পরিষ্কার৷

আরো অনেক কিছুই উঠে এসেছে প্রতিবেদনে৷ অজ্ঞাতবাসে লাদেনের দৈনন্দিন জীবন কিভাবে কাটতো, সন্তান এবং নাতি-নাতনিদের সঙ্গে সময় কিভাবে কাটাতো জঙ্গি গোষ্ঠী আল-কায়েদার ‘সুপ্রিমো', রাতে কেন একটা সময় ঘরে সামান্য আলো জ্বালানোও বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল – সবই জানা গেছে ৩৩৬ পৃষ্ঠার এই প্রতিবেদনের সুবাদে৷ প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে অ্যাবোটাবাদে লাদেন যে বাড়িতে থাকতো তার আশপাশের বাসিন্দা, সামরিক কর্মকর্তা এবং বিন লাদেনের তিন বিধবা স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে৷

প্রতিবেদনের শেষ কথা একটাই৷ সেখানে বলা হয়েছে, পাকিস্তানে বিন লাদেন এতদিন গোপনে থাকতে পেরেছে মুশাররফ সরকারের তাকে ধরার ক্ষেত্রে আন্তরিকতার অভাব, গোয়েন্দা বিভাগের অদক্ষতা এবং দায়িত্বে অবহেলার কারণে৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়