1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

লন্ডন বোমা হামলায় পাকিস্তান জড়িত

২০০৫ সালের ৭ই জুলাই লন্ডনে ঘটেছিল দুটি বোমা হামলার ঘটনা৷ মারা যায় প্রায় ৫২ জন লন্ডনবাসী৷ পাকিস্তান থেকেই সেই হামলার কলকাঠি নাড়ানো হয়েছিল বলে সন্দেহ দেখা দিয়েছে৷

default

২০০৫ সালের ৭ই জুলাই লন্ডনে বোমা হামলা

৭ই জুলাই ২০০৫ সালের লন্ডনের বোমা হামলার মূলে কে ছিল তা হয়তো স্পষ্ট হতে চলেছে৷ লন্ডনের পরিবহন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পাকিস্তান হয়তো এর সঙ্গে জড়িত ছিল এরকম আলামত তারা পাচ্ছে৷ মোবাইল ফোন রেকর্ড থেকে জানা গেছে, পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডি থেকে আত্মঘাতী হামলাকারী মোহাম্মদ সিদ্দিক খানকে কল করা হয়েছিল রাওয়ালপিন্ডির এক ফোন বুথ থেকে৷ তদন্তের শুনানির সময় লন্ডনের পুলিশ অফিসার মার্ক স্টুয়ার্ট এ কথা জানান৷

No Flash London Terroranschläge Bus 7.7.2005 Jahrestag

ঐ হামলায় প্রাণ হারান ৫২ জন

লন্ডন মেট্রপলিটন পুলিশ ডিটেকটিভ মার্ক স্টুয়ার্ট আরো বলেন, কয়েক মিনিটের ব্যবধানে রাওয়ালপিন্ডির বেশ কয়েকটি ফোন বুথ থেকে কল করা হয় লন্ডনে৷ কলগুলো থেকে অবশ্য জানা যায়নি, কে বা কারা ফোন করেছিল৷ তারা তাদের পরিচয় গোপন রাখায় সচেষ্ট ছিল৷

অনুসন্ধান কাউন্সিলের হুগো কিথ প্রশ্ন করেন, ‘‘যে কলগুলো এসেছিল তার সঙ্গে বোমা তৈরি এবং বিস্ফোরণের সঙ্গে কোন ধরণের যোগাযোগ ছিল কি?'' পুলিশ ডিটেকটিভ মার্ক স্টুয়ার্ট উত্তর দেন, ‘‘হ্যাঁ, আমি মনে করছি যোগাযোগ ছিল৷''

অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, মোহাম্মদ সিদ্দিক খান নিজ থেকে রাওয়ালপিন্ডিতে ফোন করেননি৷ তবে তিনি লন্ডনের প্রায় চারটি ফোন নম্বর দিয়েছিলেন হামলার উদ্দেশ্যে যোগাযোগের জন্য৷ অনুসন্ধানে জানানো হয়, সিদ্দিক খানের সঙ্গে পাকিস্তানের এই অজ্ঞাত ব্যক্তি মে এবং জুন মাসে বেশ কয়েকবার কথা বলেছে৷ হামলার পাঁচ দিন আগেও তারা প্রায় ৬ মিনিট ধরে কথা বলে৷

শেষবারের মত কথা হয় হামলার দিন, অর্থাৎ ৭ই জুলাই দুপুরে৷ এর কয়েক ঘণ্টা পরেই সিদ্দিক খান, শেহজাদ তানভীর, হাসিব হুসেইন, জারমেইন লিন্ডসে তিনটি ট্রাম এবং একটি বাসে হামলা করে৷ সিদ্দিক খান এবং শেহজাদ তানভীর হামলার কয়েক মাস পাকিস্তানে গিয়েছিলেন৷ ধারণা করা হচ্ছে, তখন এই দুই ব্যক্তি যোগাযোগ করেছিল আল-কায়েদার সঙ্গে৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন