1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

লন্ডন হামলা

লন্ডনে মুসল্লিদের উপর ভ্যান ‘হামলা', নিহত এক

উত্তর লন্ডনের একটি মসজিদের সামনে মুসল্লিদের উপর উঠিয়ে দেয়া একটি ভ্যানের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন একজন৷ আহত অন্তত ১০৷ ভ্যান চালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে৷

লন্ডনের মেয়র জানিয়েছেন, মসজিদগুলোর আশেপাশে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে৷

গতরাতে চালানো হামলায় একজন মানুষের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পুলিশ৷ যে ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে তাঁর বয়স ৪৮ বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে তারা৷ এতে আরও বলা হয়েছে, ঘটনাস্থলে থাকা মানুষেরা ভ্যানচালককে ধরে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে৷ পরে পুলিশ এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে ভ্যানচালককে আটক করে৷ অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস জানিয়েছে, আহত ১০ জনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে জানিয়েছেন, ‘‘এই ঘটনার বিষয়ে আলোচনা করতে আজ একটি জরুরি বৈঠক হবে৷'' তিনি আরো জানান, ‘‘পুলিশ এটাকে ‘সম্ভাব্য সন্ত্রাসী হামলা' হিসেবে চিহ্নিত করে উপযুক্ত পদক্ষেপ নিচ্ছে৷'' সেইসাথে মে হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন৷

লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২০ মিনিটে সেভেন সিস্টার্স রোডে মসজিদের সামনে এই ঘটনাটি ঘটে৷ মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন (এমসিবি) বলছে, ‘‘পরিকল্পিতভাবে ওই ভ্যানটি মুসল্লিদের ওপর তুলে দেওয়া হয়৷ সে সময় নামাজ শেষে মুসল্লিরা মসজিদ থেকে বের হচ্ছিলেন৷''

ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আম্বের রাড জানিয়েছেন, ‘‘ঘটনাটির তদন্ত করছে সন্ত্রাসবিরোধী কমান্ড ইউনিট৷'' রাড বলেছেন, ‘‘ঘৃণা আর ত্রাস ছড়িয়ে যারা আমাদের আলাদা করতে চায়, তাদের বিরুদ্ধে সবাইকে একজোট হতে হবে৷''

এক প্রত্যক্ষদর্শী বলছেন, ‘‘আমি হঠাৎ করেই অনেকের চিৎকার শুনতে পেয়ে জানালা দিয়ে তাকিয়ে দেখি বাইরে ভীষণ গণ্ডগোল, সবাই চিৎকার করে বলছে, ‘একটি ভ্যান মানুষের উপর চড়াও হয়েছে৷' আমি হামলাকারীকে দেখিনি, তবে ভ্যানটা দেখতে পেয়েছিলাম৷''

আরেক প্রত্যক্ষদর্শী আব্দুল রহমান গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘‘ভ্যানটি ১০ থেকে ১৫ জন মানুষকে চাপা দেয়৷'' আব্দুলসহ আরও কয়েকজন মিলে ভ্যানচালককে পুলিশে সোপর্দ করেন৷ এমসিবি টুইটারে জানিয়েছে, রমজান মাসের আর কয়েকটি দিন বাকি৷ বাকি দিনগুলোতে যেন মুসলমানরা তাঁদের ধর্ম যথাযথ পালন করতে পারেন, সেজন্য নিরাপত্তা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন তাঁরা৷

গত মাসে ম্যানচেস্টারে বোমা হামলা এবং এ মাসের শুরুতে লন্ডন ব্রিজ ও বারা মার্কেটে হামলার পর থেকে লন্ডনে সর্বোচ্চ সতর্কতা নেয়া হয়েছে৷ পুলিশও জানিয়েছে, রমজান ও ঈদ উপলক্ষে তাঁরা নিরাপত্তা আরও বাড়াবে৷

ফিনসবেড়ি পার্কের মসজিদটিতে আগে কট্টর ইসলামপন্থিদের আনাগোনা ছিল বলে একসময় এটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল৷ তবে পরবর্তীতে এটা নতুন ব্যবস্থাপকের হাতে তুলে দেয়ার পর পুনরায় খুলে দেয়া হয়৷ এরপর থেকে সেখানে কট্টর ইসলামি আদর্শ চর্চার কোনো খবর পাওয়া যায়নি৷ মসজিদের সাবেক ইমাম ধর্মকে পুঁজি করে সহিংসতা ও ঘৃণা ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে ব্রিটেনে জেল খেটেছেন, পরে তাকে নিউইয়র্কে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে৷ সেখানে ২০১৫ সালে সন্ত্রাসে মদদ দেয়া অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়৷

এপিবি/জেডএইচ (এপি, এএফপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন