1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

লন্ডন হামলা

লন্ডনে তিন সন্ত্রাসীর হামলা, নিহত ৭

নির্বাচনের মাত্র চার দিন আগে আবারও সন্ত্রাসী হামলায় রক্তাক্ত হলো যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডন৷ শনিবার রাতে লন্ডন ব্রিজে ভ্যান চালিয়ে ছুরি নিয়ে হামলায় নিহত হয় ছয়জন৷ পুলিশের গুলিতে নিহত হয় তিন হামলাকারী৷ আহত ৪৮ জন৷

এখন পর্যন্ত যা জানা গেছে:

শনিবার স্থানীয় সময় রাত ১০টার দিকে লন্ডন ব্রিজে ভিড়ের মধ্যে ভ্যান চালিয়ে দেয় তিন হামলাকারী৷  এর পরপরই তারা সাদা রঙের ওই ভ্যান থেকে ছুরি হাতে বেরিয়ে আসে এবং কাছের বারা মার্কেট এলাকায় সাধারণ মানুষের ওপর হামলা চালায়৷ সাপ্তাহিক ছুটির রাত হওয়ায় টেমস ব্রিজের দক্ষিণ দিকে ওই এলাকায় সে সময় বেশ ভিড় ছিল৷ হামলায় নিহত হয় ছয়জন৷ আহত অবস্থায় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে আরও ৪৮ জনকে৷ হামলা শুরুর ৮ মিনিটের মাথায় বারা মার্কেট এলাকায় তিন হামলাকারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয় বলে ব্রিটিশ পুলিশের সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিটের প্রধান মার্ক রাউলি জানিয়েছেন৷ হামলাকারীদের শরীরে ক্যানিস্তারের মত কিছু বাধা দেখে প্রথমে সুইসাইডাল ভেস্ট বলে ভাবা হলেও পরে দেখা যায় সেগুলো ভুয়া৷

ভিডিও দেখুন 01:58

এক প্রত্যক্ষদর্শী মার্ক রবার্ট সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানান, ‘ভ্যানটা এদিক দিয়ে যাওয়ার পর ছয় জন মানুষ মাটিতে পড়েছিল, দেখে মনে হচ্ছিল তারা অনেক মানুষকে মারতে চায়৷ আমি স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলাম, বুঝতে পারছিলাম না কি করবো৷'

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে'র অফিস জানিয়েছে তিনি কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ রাখছেন এবং সব খবর জানছেন৷ আজ জরুরি বৈঠক ডেকেছেন তিনি৷

বিরোধী নেতা জেরেমি কর্বিন এই ঘটনাকে নৃশংস এবং ভয়াবহ বলে উল্লেখ করেছেন৷

লন্ডনের মেয়র সাদিক খান এই ঘটনাকে লন্ডনের সাধারণ জনগণের উপর কাপুরুষোচিত হামলা বলে উল্লেখ করেছেন৷ তিনি এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন৷

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের মুখপাত্র স্টেফান সাইবার্ট টুইটারে লিখেছেন, ‘‘আমরা লন্ডনের মানুষের পাশে আছি৷ আমরা সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে একসাথে দাঁড়াবো৷'' তাঁর টুইটে ম্যার্কেলের বিবৃতির উল্লেখ রয়েছে, যেখানে ম্যার্কেল এই হামলার ঘটনায় নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন৷ এছাড়া বলেছেন, জার্মানি যুক্তরাজ্যের পাশে আছে এবং যেকোন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে তারা লড়াই করে যাবেন৷

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে টেলিফোনে সমবেদনা জানিয়েছেন৷ তিনি বলেছেন, তাঁর ‘ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা মুসলিমদের প্রবেশ বন্ধ করে দেবে৷'

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সদ্য ইউরোপ সফর শেষ করে দেশে ফিরেছেন৷ তিনি এ হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন টুইটারে৷

প্রথমে ২০ বা ৩০ জন আহতের খবর জানা গেলেও লন্ডনে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া আহতদের সংখ্যা ৪৮ জন বলে জানিয়েছে৷

ক্যানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো টুইটারে লিখেছেন, এই হামলার ঘটনায় ক্যানাডাবাসী লন্ডনের সাথে আছে, এটাকে দুঃখজনক খবর বলে উল্লেখ করেছেন তিনি৷

ডয়চে ভেলের যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি বিরজিট মাস টুইটারে লিখেছেন ম্যানচেস্টার ঘটনার মতোই এই হামলায় লন্ডনবাসীরা যাদের সাহায্য প্রয়োজন তাদের থাকার জায়গা, খাবার দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে৷

লন্ডন হামলার ঘটনায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন পপ শিল্পী আরিয়ানা গ্র্যান্ডে৷ গত মাসেই ম্যানচেস্টারে তার কনসার্ট চলাকালে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২২ জন নিহত হয়৷

লন্ডন পুলিশের টুইট, যেখানে তারা জানাচ্ছেন, লন্ডন ব্রিজ এবং বারা মার্কেটে হামলায় ৬ জন নিহত হয়েছে৷ ব্রিটিশ পুলিশের সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিটের প্রধান মার্ক রাউলি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, পুলিশ কর্মকর্তাদের গুলিতে তিন পুরুষ হামলাকারী নিহত হয়েছে এবং তাদের বিশ্বাস এই ঘটনায় আর কোন হামলাকারী ছিল না৷ এরপরও তারা তদন্ত চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন৷

শনিবার রাতে কথা বলতে গিয়ে রাউলি জানান, পুলিশের বিশ্বাস সন্ত্রাসীরা সাদা রঙের ভ্যানটি লন্ডন ব্রিজের ফুটপাতের উপর দিয়ে গিয়ে বারা মার্কেটে মানুষের উপর ভ্যান চালিয়ে দেয় ও রেস্তোরাঁ আর বারে ঢুকে ছুরি নিয়ে হামলা করে৷ সেখানে উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তারা তৎক্ষণাৎ সিদ্ধান্ত নেন এবং বারা মার্কেটেই হামলাকারীদের উপর গুলি চালান৷ আগামী দিনগুলোতে লন্ডনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে বলেও জানান রাউলি৷

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স, ডি ডাব্লিউ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়