1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

লঘু সংগীত জগতের প্রতিভাধর রূপকার ব্যার্ট ক্যাম্পফার্ট

সহজ সরল মেলোডিমাখা শ্রুতি নন্দন গানের যে পশ্চিমী ধারা, তার অন্যতম এক রূপকার হিসাবে পরিচিত জার্মান সংগীতকার ব্যার্ট ক্যাম্পফার্ট৷ তাঁর সংগীত পেয়েছে আন্তর্জাতিক সাফল্য ও জনপ্রিয়তা৷

default

ব্যার্ট ক্যাম্পফার্ট

বিরল প্রতিভার অধিকারি ক্যাম্পফার্ট ছিলেন একাধারে সুরকার, গীতিকার, বাদ্যযন্ত্রী, প্রযোজক ও ব্যান্ড মাস্টার৷ তাঁর শ্রুতিমধুর সংগীত ছুঁয়ে গিয়েছিল লক্ষ সংগীতানুরাগীর হৃদয়৷ষাট ও সত্তর দশকে বহু খ্যাতিমান সংগীত তারকা তাঁর রচিত ও সুরারোপিত গান গেয়ে অসাধারন আন্তর্জাতিক সাফল্য ও জনপ্রিয়তা পেয়েছেন৷ আল মার্টিনোর কন্ঠে তাঁরই গান ‘স্প্যানিশ আইজ’এর মত আরো বহু গান একাধিক ভাষায় অনুদিত হয়েছে, গেয়েছেন বহু সংগীত শিল্পী৷

ব্যার্ট ক্যাম্পফার্ট এর জন্ম ১৯২৩ সালের ১৬ অক্টোবর হামবুর্গ শহরে৷ হামবুর্গের সংগীত স্কুলে পিয়ানো, ক্ল্যরিনেট, স্যক্সোফোন এবং অ্যাকোর্ডিয়ান এর তালিম নেন তিনি৷ ডানসিগ শহরের রেডিও অর্কেস্ট্রা দলে স্যক্সোফোন বাদক হিসাবে শুরু হয় তাঁর সংগীতজীবন৷ পরবর্তীকালে তিনি গঠন করেন তাঁর নিজস্ব অর্কেস্ট্রা দল৷ একাধিক বাদ্যযন্ত্র পরিবেশনায় পারদর্শী ছিলেন তিনি৷ তাঁর বিশেষ আঙ্গিকে পরিবেশিত প্রাণবন্ত অর্কেস্ট্রার ধ্বনি পেয়েছে অসামান্য আন্তর্জাতিক সাফল্য ও জনপ্রিয়তা৷ ১৯৬৫ সালে হলিউডের ছায়াছবি ‘এ ম্যান কুড গেট কিল্ড’ এর সংগীত রচনার আমন্ত্রণ পান ক্যাম্পফার্ট৷ এই ছবির সাড়া জাগানো একটি গান ‘স্ট্রেইঞ্জারস ইন দা নাইট’৷ ফ্র্যাঙ্ক সিনাত্রার কন্ঠে এই গান বিশ্বব্যপী জনপ্রিয়তা অর্জন করে৷

বহু খ্যাতিমান সংগীতশিল্পী ক্যাম্পফার্ট’এর সংগীতকর্ম পরিবেশনায় গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেছেন৷ এলা ফিৎসজেরাল্ড, ন্যাট কিং কোল, শার্লি বেসি, এলভিস প্রেসলি, ফ্র্যাঙ্ক সিনাত্রা ও আরো বহু সেরা সংগীতশিল্পীর সাথে কাজ করেছেন ক্যাম্পফার্ট৷ একষট্টি সালে রক এন রোল সম্রাট এলভিস প্রেসলি গেয়েছিলেন ‘উডেন হার্ট’৷ ঐতিহ্যবাহী জার্মান লোক সংগীতের ধারায় এই গানে সুর সংযোজনা করেছিলেন ক্যাম্পফার্ট৷

১৯৬১ সালে ক্যাম্পফার্ট প্রযোজক হিসাবে ইংল্যান্ডের লিভারপুল শহরের চার তরুণের এক সংগীতগোষ্ঠি ‘দ্য বিট ব্রাদার্স’ কে নিয়ে আসেন জার্মানিতে৷ তখন কেউ ভাবতেও পারেনি যে এই সংগীতগোষ্ঠীই ‘দ্যা বিটলস’ নামে পপ সংগীত জগতের ইতিহাসে এক নতুন অধ্যায়ের সুচনা করবে৷ ক্যাম্পফার্ট’এর প্রযোজনায় বিখ্যাত ব্রিটিশ সংগীত শিল্পী টনি শেরিডেন এর বাদকদল হিসেবে বিটলস এর প্রথম রেকর্ড ‘মাই বনি’ বের হয় হামবুর্গে৷ এই গান জার্মান চার্টস বা হিট গানের তালিকায় পাঁচ নম্বরে উঠে আসে৷

১৯৮০ সালে লন্ডনের রয়াল অ্যালবার্ট হলে অত্যন্ত সফল এক কনসার্ট’এর কিছুদিন পর অর্থ্যৎ ২১শে জুন মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন লঘু সংগীত জগতের প্রতিভাধর রূপকার ব্যার্ট ক্যাম্পফার্ট৷

প্রতিবেদক: মারুফ আহমেদ

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক