1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বাংলাদেশ

র‌্যাবের নির্মাণাধীন সদর দপ্তরে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে নিহত এক ‘জঙ্গি'

শুক্রবার ঢাকায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন বা র‌্যাবের নির্মাণাধীন সদর দপ্তরে একটি আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে৷ এতে হামলাকারী নিহত ও দুই ব়্যাব সদস্য আহত হয়৷ তবে নিহত হামলাকারী  কোন জঙ্গি দলের সদস্য তা জানা যায়নি৷

Rapid Action Battalion (RAB) in Bangladesh (DW)

ফাইল ফটো

বন্দরনগরী চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে এক জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে একটি শিশুসহ পাঁচজন নিহত হওয়ার ২৭ ঘণ্টার মাথায় এই আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণের গটনা ঘটে৷ বিস্ফোরণে নিহত যুবকের নাম না জানা গেলেও, তার বয়স ২৫ বছর বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ তার পরনে ছিল কালো পাঞ্জাবি৷ বিস্ফোরণে তার শরীর ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়৷ তবে মুখমণ্ডল স্পষ্ট আছে৷

র‌্যাবের মিডিয়া উইং-এর পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ হামলার পর বিকাল তিনটার দিকে এক ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘‘আনুমানিক দুপুর ১টার দিকে নির্মাণাধীন র‌্যাব সদর দপ্তরের বাউন্ডারি ওয়ালের নীচ দিয়ে একজন প্রবেশ করে৷ অপরিচিত ব্যক্তি হওয়ায় ব্যারাকে থাকা র‌্যাব সদস্যরা তাকে চ্যালেঞ্জ করেন৷ চ্যালেঞ্জ করার সঙ্গে সঙ্গে সে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এবং তারপরই একটা বিস্ফোরণ ঘটে৷ তার সঙ্গে যে বোমা ছিল, সেই বোমার বিস্ফোরণেই ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়৷''

অডিও শুনুন 02:56

‘নিহত যুবক কোন জঙ্গি গ্রুপের সদস্য, তা এখনো জানা যায়নি’

ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পূর্ব দিকে আশকোনা হাজি ক্যাম্প এলাকায় র‌্যাবের নির্মাণাধীন এই সদর দপ্তরটির অবস্থান৷ এর কয়েক কিলোমিটারের মধ্যে র‌্যাবের বর্তমান সদর দপ্তর, র‌্যাব-১, বিমানবন্দর এবং বিমানবন্দর থানার অবস্থান৷

প্রত্যক্ষদর্শী মামুনুর রহমান জানান, ‘‘সম্ভবত দুপুর পৌনে একটার পর র‌্যাব ক্যাম্প থেকে বিকট শব্দে বিস্ফোরণের আওয়াজ শুনতে পাই৷ দৌড়ে গিয়ে দেখি সেখানে একটি মৃতদেহ পড়ে আছে৷ মৃতদেহের ছিন্নভিন্ন অংশ ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে৷''

মুফতি মাহমুদ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘‘নিহত যুবক কোন জঙ্গি গ্রুপের সদস্য, তা এখনো জানা যায়নি৷ তবে বিস্ফোরক ও বিস্ফোরণের ধরন দেখে বলা যায় সে জঙ্গি৷''

এই হামলার পর ওই এলাকায় বোমা নিস্ক্রিয়করণ দল কাজ শুরু করে৷ নিহত যুবকের কোমরে বিস্ফোরকের ভেস্ট ছিল বলে জানায় তারা৷ সেখান থেকে একটি কালো ব্যাগ উদ্ধার করা হয়৷ তবে তাতে কী আছে, তা এখনও জানা যায়নি৷ মরদেহের কাছ থেকে একটি বোমা উদ্ধারের দাবিও করেন তাঁরা৷

আত্মঘাতী বিস্ফোরণে পর বাংলাদেশের বিমান ও স্থলবন্দর, থানা এবং কারাগারের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে৷

অডিও শুনুন 01:59

‘ঢাকার আত্মঘাতী হামলা চট্টগ্রামে জঙ্গি আস্তানায় অভিযানের প্রতিশোধও হতে পারে’

বাংলাদেশে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো দপ্তরে জঙ্গি হামলার ঘটনা এটাই প্রথম৷ এর আগে আদালত চত্বর এবং পুলিশের ওপর হামলা চালানো হলেও কোনো স্থাপনায় হামলা হয়নি৷ এ বিষয়ে জঙ্গি বিষয়ক গবেষক এবং মানবাধিকার কর্মী নূর খান ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘হোলি আর্টিজানে হামলা পর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যাপক অভিযানের মুখে জঙ্গিরা হয়ত  আত্মঘাতী হামলার পথ বেছে নিয়েছে৷ এর আগে জঙ্গিরা অভিযানের মুখে আত্মঘাতী হলেও এবার সরাসরি আত্মঘাতি হামলা চালালো, যা আতঙ্কের বিষয়৷''

গত বুধ ও বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে জঙ্গিদের আস্তানায় এক অভিযানে নারীসহ চারজন জঙ্গি এবং এক শিশু নিহত হয়৷ পুলিশের দাবি, তাদের মধ্যে নারীসহ দুই জঙ্গি আত্মঘাতী হয়েছে৷ নূর খান বলেন, ‘‘ঢাকার আত্মঘাতী হামলা চট্টগ্রামে জঙ্গি আস্তানায় অভিযানের প্রতিশোধও হতে পারে৷''

হোলি আর্টিজান হামলার পর জঙ্গিদের আত্মঘাতী হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে৷ কল্যাণপুর, নারায়ণগঞ্জ, রূপনগর, আজিমপুর, আশকোনা, গাজীপুরের অভিযানে জঙ্গিরা হয় প্রতিরোধ করেছে অথবা আত্মঘাতী হয়েছে৷ আজিমপুর ও আশকোনায় নারী জঙ্গিরাও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর হামলার চেষ্টা করে৷

নূর খানের মতে, ‘‘জঙ্গিরা অস্থির হয়ে পড়েছে৷ তারা এখন একক বা কম সদস্য নিয়ে হামলা চালাচ্ছে বা প্রতিরোধে সচেষ্ট হচ্ছে, যেটা আত্মঘাতী ইউনিটের পক্ষেই সম্ভব হয়৷ এদের জনবল কমে যাওয়ায় কম জনবল দিয়ে কার্যকর হামলার জন্যও তারা আত্মঘাতী হতে পারে৷''

বাংলাদেশে কি আত্মঘাতী হামলার একটা ‘ট্রেন্ড’ শুরু হলো? লিখুন আপনার মন্তব্য, নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়