1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

রোমের গ্রিক দূতাবাসে পার্সেল বোমা

রোমের গ্রিক দূতাবাসে আজ পার্সেল বোমা পাওয়া গেছে, তবে এই ঘটনায় কেউ হতাহত হননি৷ বোমা নিষ্ক্রিয় করা হয় সাফল্যের সঙ্গে৷ গত বৃহস্পতিবার চিলি এবং সুইস দূতাবাসে পাওয়া পার্সেল বোমা দুটির মতোই এই পার্সেল বোমাটি৷

default

৩০ অক্টোবর ইয়েমেন থেকে আসা একটি পরিবহন বিমানে প্রিন্টারের কার্ট্রিজের মধ্যে ছিল বোমা

গ্রিক দূতাবাসে যে পার্সেল বোমা রয়েছে তা যেভাবে জানা গেল

ইটালির গণমাধ্যমগুলোই প্রথম এই ব্যাপারে সতর্ক করে দেয়৷ তবে একই সঙ্গে রোমের মোনাকো ও ভেনেজুয়েলার দূতাবাসে যে দুটি সন্দেহভাজন প্যাকেট পাওয়া গেছে, তাতে কোন বোমা ছিলনা৷ ইটালির গণমাধ্যমগুলো ডেনমার্ক, মরোক্কো, সুইডেন, এবং ইউক্রেনের দূতাবাসে বোমা নিয়ে সতর্কতার কথা উল্লেখ করে৷ তবে সৌভাগ্যবশত এই দূতাবাসগুলোতেও বোমা পাওয়া যায়নি৷

Griechenland Athen Anschlag Briefbombe Bombe Polizei Terrorismus

গ্রিসের এথেন্সে পার্সেল বোমা পাবার পরে, সন্ত্রাস বিরোধী পুলিশের তদন্ত

গ্রিক পক্ষের প্রতিক্রিয়া

ইটালিতে গ্রিসের রাষ্ট্রদূত মাইকেল কাম্বানিস-এর বরাত দিয়ে লা রিপাবলিকা ডেইলির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ‘‘পার্সেল বোমাটি গত শুক্রবারে পৌঁছেছে, তবে বড়দিনের ছুটি থাকায় তা আগে খোলা হয়নি৷'' গ্রিক রাষ্ট্রদূত বলেন, রোমে পুলিশের মুখপাত্র সালভাতরে কাগনাজ্জো বলেছেন, ‘‘গত সপ্তাহে চিলি এবং সুইস দূতাবাসে যে বোমা দুটি বিস্ফোরিত হয়, এই পার্সেল বোমাটিও সেগুলোর মতোই৷'' তিনি বলেন,‘‘দূতাবাসের ডাক কর্মীরা প্যাকেটটি খোলেন৷ তবে এতে কোন বিস্ফোরণ ঘটে নি৷'' বোমা বিশেষজ্ঞরা সঙ্গে সঙ্গে এটি নিস্ক্রিয় করেন৷ প্যাকেটের মধ্যে পাওয়া গেছে, একটা বড় হলুদ খাম, আর তারমধ্যে ছিল একটি সিডি কভার৷ ইটালির আধা সামরিক পুলিশ বাহিনীর একজন কর্মকর্তা এই ঘটনার সঙ্গে নৈরাজ্যবাদীদের জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেন নি৷ তিনি অবশ্য বলেন যে, তদন্তকাজ এখনও চলছে৷

সোমবারের এই ঘটনার পরে আইনজীবীরা বলছেন, গত সপ্তাহের বোমাগুলো নিয়ে তাঁরা যে ‘সন্ত্রাসবাদ' সম্পর্কিত তদন্ত শুরু করেছেন, গ্রিক দূতাবাসের প্যাকেট পাবার ব্যাপারটিও এখন সেগুলোর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করা হবে৷

কারা এইসব পার্সেল বোমা পাঠানোর চেষ্টা করছে?

রোমে পার্সেল বোমা পাঠানোর ঘটনাগুলো থেকে স্থানীয় নৈরাজ্যবাদী সন্ত্রাসী গ্রুপগুলোর দিকেই দৃষ্টি পড়েছে৷ গ্রিসে, ইটালিতে আর্থিক সঙ্কটের প্রেক্ষিতে সরকারের কঠোর ব্যয়সংকোচ ব্যবস্থার কারণে সামাজিক উত্তেজনা বাড়ছে৷ আর তা থেকে ফায়দা তুলতে চাইছে এ ধরণের নৈরাজ্যবাদী গ্রুপগুলো৷ আপনাদের হয়ত মনে আছে, গত মাসে গ্রিক উগ্র বাম জঙ্গিরা অন্য দেশের সরকারদের কাছে এবং এথেন্সে বিদেশী দূতাবাসে পার্সেল বোমা পাঠিয়েছিল৷ গত সপ্তাহে সুইস আর চিলির দূতাবাসে পার্সেল বোমা পাঠানোর দায়িত্ব দাবি করে লিপি পাঠিয়েছিল ইনফর্ ম্যাল অ্যানার্কিস্ট ফেডারেশন নামের একটি গ্রুপ৷ লিপিতে সই দিয়েছিল লাম্ব্রোস ফৌন্টাস বিপ্লবী সেল৷ ইটালির মিডিয়ার খবর অনুযায়ী, গত মার্চ মাসে এথেন্সে গ্রিক পুলিসের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত একজন গ্রিক নৈরাজ্যবাদী হল এই লাম্ব্রোস ফৌন্টাস৷

এ ব্যাপারে নিরাপত্তার ব্যবস্থা

সতর্কতার কোন কমতি নেই৷ রোমে বিভিন্ন দেশের দূতাবাসের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সতর্ক রয়েছে পুলিশ৷ বিদেশে ইটালির দূতাবাসগুলোতেও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা রাখা হয়েছে৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক