1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

রোমারা পারিতে আশানিরাশার দোলাচলে

কঠিন প্রবাসে কেমন আছেন রোমারা? রূপের নগরী, ফ্যশনের নগরী প্যারিস বা পারিতে বড় দুঃখে দিন কাটছে কারো কারও৷ কেউ বা ভবিষ্যতের আশায় উজ্জীবিত৷

default

রোমারা পারিতে আশানিরাশার দোলাচলে

সোনা বাঁধানো দাঁত, গলায় চারটে রূপো তামা কিংবা কড়ির হার, হাতে বালার সারি, বুকে উল্কি৷ এমন চেহারা তো কোন ফরাসির নয়৷ এমন যার চেহারা সে নির্ঘাত শহরের উত্তরের ঘিঞ্জি পল্লীতে বাস করে৷ জাতে রোমা৷ জিপসি বলে গালিটালি তো প্রায়ই জোটে৷

ফরাসি নাগরিক হতে চেয়ে রোমারা দলবলে মিলে ডেরা গেড়েছে প্যারিসে৷ ফ্রান্সেও৷ কিন্তু মন্দায় মার খাওয়া ফরাসি সরকারের প্রেসিডেন্ট নিকোলা সার্কোজি সাফ বলে দিয়েছেন, সেসব দিন গেছে৷ এখন ফরাসি নাগরিকত্ব পাওয়াটা অত সোজা নয় আর৷ ছেলের হাতের মোয়া ভাবলে চলবে না৷ ফরাসি ভাষা বলতে হবে, নাগরিকত্ব অর্জনের যাবতীয় যোগ্যতা পূরণ করতে হবে৷ তা না হলে পত্রপাঠ দেশে ফেরত৷

তারপরেও রোমা কলোনিতে নেই আঁকড়া হয়ে বসে আছে কিছু কিছু পরিবার, আশা, যদি কোন মিরাকল ঘটে যায়৷ ‘যদিও তেমন কিছু ঘটবে না কিছুতেই৷' ২৮ বছরের লাঙ্কো পেট্রো হেঁকেই বললেন কথাটা৷ ২০০৫ সালে পেট্রো এই আওয়ারভিলি নামের জায়গাটায় দুই শিশু সন্তান আর স্ত্রীর হাত ধরে এসে হাজির হয়েছিল৷ তখন ফরাসি ভাষা বিন্দুবিসর্গ বলতে পারত না কেউ৷ আর এখন গড়গড়িয়ে ফরাসি বলে পেট্রো, তার দুই ছেলে যায় কাছের ইস্কুলে, পেট্রো নিজে জানলা মেরামত আর জানলা লাগানোর কাজে ওস্তাদ৷ ওরা তাকিয়ে আছে একটা অ্যাপার্টমেন্টের দিকে৷ যেটা ওরা ভাড়া নেবে৷ মিশে যাবে ফরাসিদের জনারণ্যে বুখারেস্ট থেকে আসা এই রোমা পরিবার৷

সকলের ভাগ্য কিন্তু এতটা ভালো নয়৷ বলছিল পেট্রো৷ ‘আমার নিজের বাবাকেই দেখুন না৷ এতদিন এখানে আছে৷ তাও ভাষা শেখে নি৷ ওদের ফিরে যেতেই হবে বুখারেস্টের অনিশ্চিত জীবনে৷ এই বৃদ্ধ বয়সে৷ ভাবলে খারাপ লাগে৷ ভাগ্যিস আমি আমার বাচ্চাদুটোকে ইস্কুলে পাঠিয়েছিলাম৷'

‘ইস্কুলটাই এই রোমাদের ফরাসি সমাজের মূলস্রোতে ঢোকার চাবিকাঠি৷' সোনা বাঁধানো দাঁতে হেসে বলছিলেন, রোমাকলোনির মুরুব্বি নাবিল বেন্ডামি৷ বেন্ডামির দাবি, ‘এখানে বাস করতে গেলে বাধ্যতামূলকভাবে ছেলেপুলেদের স্কুলে পাঠাতেই হবে৷ সবাই সেটা করতে বাধ্য৷ তার সুফলও পাওয়া যাচ্ছে৷ ফরাসি ভাষাটা শেখার এটাই একমাত্র পথ৷'

সে পথে চলে সুফল পেয়েছেন ফরাসি দেশের রোমারা৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা : দেবারতি গুহ

ইন্টারনেট লিংক