1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

রেয়ালে আসেন নি এখনও, কিন্তু দল বাছাই করছেন মোরিনিয়ো

এখনও রেয়াল মাদ্রিদের কোচ হিসেবে যোগ দেননি মোরিনিয়ো৷ কিন্তু এর মধ্যেই কাকে নতুন দলে তিনি চান সে ব্যাপারে নির্দেশ দিতে শুরু করেছেন৷

default

সাফল্যের শীর্ষে মোরিনিয়ো

চ্যাম্পিয়নস লীগ জিতে নেওয়ার পর থেকে মোরিনিয়োর এখন যাকে বলে তুঙ্গে বৃহস্পতি৷ রেয়াল মাদ্রিদে কয়েকদিনের মধ্যেই তিনি নতুন কোচ হিসেবে যোগ দিচ্ছেন৷ তাঁকে প্রচুর অর্থ ব্যয় করে ইন্টার মিলান থেকে টেনে আনছে রেয়াল, সেসব খবর এখন প্রায় বস্তাপচা৷ তাতে তেমন নতুনত্ব নেই৷ কিন্তু নতুনত্ব অন্য জায়গায়৷ সরকারিভাবে এখনও রেয়ালে সই করার আগেই মোরিনিয়ো নাকি ইতিমধ্যেই নির্দেশ জারি করে চলেছেন, তিনি কোন কোন নতুন খেলোয়াড়কে দলে চান৷

বেনফিকার দুই নামজাদা স্ট্রাইকার ফাবিও কোয়েনত্রাও আর এঞ্জেল দি মারিয়াকে রেয়ালে সই করাতে নির্দেশ দিয়েছেন মোরিনিয়ো৷ স্পেনের দুই নামজাদা খেলাধুলার দৈনিক এএস আর মারকা মঙ্গলবার সেই খবরটাই ছেপেছে ফলাও করে৷ বলেছে, এখনও রেয়ালে সই করেন নি মোরিনিয়ো, কিন্তু ইন্টারের হয়ে চ্যাম্প লীগ জয়ী, এই মুহূর্তে এই গ্রহের সবচেয়ে দামী কোচ মোরিনিয়ো নাকি রেয়ালের দল ঠিক করে চলেছেন রেয়ালের ঘরে পা দেওয়ার আগে থেকেই৷

অবশ্য, রেয়ালে যে মোরিনিয়ো যাবেনই সেটা সকলেই জানে৷ ইতিমধ্যেই তিনি ইন্টার মিলানের কাছে নিজের ইচ্ছা ব্যক্ত করেছেন, রেয়ালের কর্তারাও ঘোষণা করে দিয়েছেন যে মোরিনিয়ো আসছেন রেয়ালে৷ দরদস্তুরের পালাও শেষ৷ শোনা যাচ্ছে, দশ মিলিয়ন বা তারও বেশি ইউরোর চুক্তি হয়েছে মোরিনিয়োর সঙ্গে রেয়ালের৷ খোলসা করে কেউই ভাঙছেন না, তবে বেশ বোঝা যাচ্ছে যে টাকার অঙ্কটা বিপুল হবে৷ মোরিনিয়োর এজেন্ট মাসিমো মোরাত্তি বিবৃতিও দিয়ে দিয়েছেন এই বলে যে, আগামী চার বছরের জন্য রেয়ালের জন্যই নিজের পুরো সময়টা ব্যয় করবেন মোরিনিয়ো৷ মোরিনিয়ো না বলে ‘ব্র্যান্ড মোরিনিয়ো' বললেই ঠিক বলা হয়৷ কারণ, মোরিনিয়ো তাঁর অসামান্য কোচিং-এর প্রতিভা প্রমাণ করে নিজেই হয়ে উঠেছেন এক একান্ত ব্র্যান্ড৷

সেই ‘ব্র্যান্ড মোরিনিয়ো'-র ভেলকি দেখতে আর ফুটবল দুনিয়াকে দেখাতে আপাতত তৈরি হচ্ছে রেয়াল মাদ্রিদ এবং রেয়ালের ভক্তকূল৷ সেইসঙ্গে নতুন পাল্টাও খুঁজবে নিশ্চয়ই মোরিনিয়োর প্রতিপক্ষরা৷ কারণ, দুর্ভেদ্য ডিফেন্স আরা কাউন্টার অ্যাটাক থেকে আচমকা বিপক্ষের জালে গোল জড়িয়ে দেওয়ার যে নতুন মোরিনিয়ো স্টাইল এখন ইউরোপের ফুটবলের আলোচ্য বিষয়, সেই কায়দার জবাব দেওয়ার জন্য নিশ্চয়ই প্রস্তুতি নেবেন অন্য কোচেরা৷

মোরিনিয়োকে থামাতে অন্যান্য কোচেরা যতই উদ্বুদ্ধ হবেন, ততই আসলে আরও উত্তেজক, আরও মশালাদার হয়ে উঠবে ফুটবল৷ সাধারণ দর্শকের আর ফুটবল রসিকদের জন্য সেটাই হবে আসল আর সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়
সম্পাদনা : সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়