1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

রেয়ালের ‘ডেসিমা’, রোনাল্ডোর ইতিহাস

প্রায় এক যুগ পর আবারও ইউরোপ সেরা হলো বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্লাব রেয়াল মাদ্রিদ৷ তবে এ জন্য নিষ্ঠুরতার শিকার হতে হলো একই শহরের ক্লাব অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে৷

default

‘ডেসিমা’ উদযাপন

শনিবার রাতে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে অ্যাটলেটিকোকে ৪-১ গোলে হারিয়ে ২০০২ সালের পর আবারও শিরোপার দেখা পায় রেয়াল৷ তবে এ জন্য আবারও নিষ্ঠুর পরিণতি মেনে নিতে হয়েছে অ্যাটলেটিকোকে৷ কেননা ৪০ বছর আগে শেষবার যখন দলটি ইউরোপীয় কাপের ফাইনালে খেলেছিল, তখন একইরকম অবস্থার শিকার হতে হয় তাদের৷ অর্থাৎ ম্যাচ শেষ হওয়ার দুই-এক মিনিট আগ পর্যন্ত এক গোলে এগিয়ে থেকেও শিরোপার দেখা পাওয়া হলো না অ্যাটলেটিকোর৷

UEFA Champions League-Finale Real Madrid vs. Atletico de Madrid Cristiano Ronaldo

গোলের পর রোনাল্ডো

ঘটনাটা এরকম – ১৯৭৪ সালের ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে এক গোলে এগিয়ে ছিল অ্যাটলেটিকো৷ কিন্তু ১১৯তম মিনিটে গোল করে বায়ার্ন খেলায় সমতা নিয়ে আসে৷ যে কারণে দু'দিন পর আবারও খেলার আয়োজন করতে হয়৷ এবং সে খেলায় ৪-০ গোলে হেরে যায় স্প্যানিশ ক্লাবটি৷

শনিবার রাতেও প্রায় একই রকম পরিস্থিতির মুখোমুখি হয় অ্যাটলেটিকো৷ এক গোলে পিছিয়ে থাকা রেয়ালকে ৯৩ মিনিটের সময় খেলায় ফেরান স্যার্খিও রামোস৷ তাই স্পেনের অনেকগুলো পত্রিকা ৪০ বছর আগের সেই উদাহরণটিই টেনে এনেছে৷

ক্রীড়া বিষয়ক স্পেনের শীর্ষ দৈনিক মার্কা-র শিরোনাম এরকম ‘‘অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের জন্য আবারও নিষ্ঠুরতম ফাইনাল''৷ আরেক দৈনিক মুন্ড ডেপোর্টিভো লিখেছে, ‘‘৪০ বছর পর আবারও ইতিহাসের পুনরাবৃত্তির শিকার অ্যাটলেটিকো৷'' দৈনিক এল পাইস লিখেছে, ‘‘চার দশক পর আবারও নিষ্ঠুর পরিণতি অ্যাটলেটিকোর৷''

রোনাল্ডোর প্রথম

শনিবারের ফাইনালে পেনাল্টি থেকে গোল পান ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো৷ এর মাধ্যমে তিনি ইতিহাসের পাতায় ঢুকে যান৷ ২০০৮ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে শিরোপা জয়ের সময়ও ফাইনালে গোল করেছিলেন ফিফার বর্ষসেরা এই ফুটবলার৷ ফলে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে তিনি দুই চ্যাম্পিয়ন ক্লাবের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে গোল করেন তিনি৷

Feierlichkeit von Rial Madrid Fans und Spielern in Madrid 25.05.14

ট্রফি নিয়ে ফেরার পর

এর বাইরেও আরেকটা রেকর্ডের অধিকারী হয়েছেন রোনাল্ডো৷ চ্যাম্পিয়নস লিগের সদ্য সমাপ্ত মৌসুমে তিনি গোল করেছেন ১৭টি – যেটা একটা রেকর্ড৷ এর আগের রেকর্ডটি ছিল ১৪ গোলের৷

সমর্থকদের ‘ডেসিমা' উদযাপন

এক যুগ ধরে ডেসিমা অর্থাৎ দশম শিরোপার জন্য অপেক্ষা রেয়াল সমর্থকদের৷ অবশেষে সেটা অর্জিত হওয়ায় আনন্দের ঢেউ বয়ে গেছে তাদের মধ্যে৷ রবিবার সকাল ৬টার সময় যখন পর্তুগালের লিসবন থেকে ট্রফি নিয়ে স্পেনে ফেরে রোনাল্ডোর দল তখন তাদের অভ্যর্থনা জানায় হাজারো সমর্থক৷ মাদ্রিদ শহরের যে স্থানে সচরাচর তারা কোনো শিরোপা উদযাপন করে সেখানেই সমবেত হয়েছিল সমর্থকরা৷

Atletico Madrid-Trainer Diego Simeone

অ্যাটলেটিকো কোচ দিয়েগো সিমেওনে

ছাদ খোলা বাসে করে সেখানে উপস্থিত হয়েছিল পুরো রেয়াল দল৷ রবিবার রাতেও পার্টির আয়োজন করা হয়েছে ক্লাবের পক্ষ থেকে৷

অ্যাটলেটিকোকেও স্বাগতম

ইউরোপ সেরার শিরোপা না পেলেও অ্যাটলেটিকো দলকে স্বাগত জানিয়েছে তাদের সমর্থকরা৷ কেননা সপ্তাহখানেক আগে অন্তত লা লিগার শিরোপা তো এনে দিয়েছে তাদের প্রিয় দল৷ শনিবার খেলা শেষে দলের কোচ দিয়েগো সিমেওনে বলেন, ‘‘এটা খেলার অংশ৷ তুমি হয় জিতবে, না হয় হারবে৷ আজ আমাদের হারার দিন ছিল৷ তবে অন্তত এটা আমরা জানি যে, আমরা আমাদের সব দিয়েছি৷''

জেডএইচ/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন