1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

রেমব্রান্টও ‘সেল্ফি'-র ভক্ত ছিলেন!

মোবাইল ফোন মানেই ক্যামেরা, আর ক্যামেরা থাকলেই চট করে নিজের একটা ছবি তোলার তাগিদ৷ আমাদের মধ্যে অনেকেই এই ‘সেল্ফি' রোগে আক্রান্ত, তাই না? অতীতের আত্মপ্রতিকৃতি বা আজকের ‘সেল্ফি' শিল্পজগতকেও বদলে দিচ্ছে৷

হাঙ্গেরির ২১ বছর বয়স্ক ফটোগ্রাফার ফ্লোরা বরসি এই বয়সেই অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন বলে মনে হয়৷ তিনি শুধু মোডিলিয়ানি বা পিকাসোর মতো শিল্পীর মডেলই হননি, এলভিস প্রিসলিকেও স্বচক্ষে দেখেছেন৷ ফ্লোরা বলেন, ‘‘আমি ফটোশপ নিয়ে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিই, কারণ আমি ‘সাররিয়াল' বা পরাবাস্তববাদী ছবি তৈরি করতে চেয়েছিলাম৷ বাস্তব আমার জন্য যথেষ্ট ছিল না৷ একবার স্বপ্নের মধ্যে অতীতে গিয়ে ছবি তুলেছিলাম৷ ঘুম ভাঙার পর বুঝলাম, সেই সব ছবির অস্তিত্ব নেই৷ আমি সেটাই করতে চেয়েছিলাম৷ কারণ আমি তো সেখানে গিয়ে ব্যাপারটা অনুভব করেছিলাম!''

সেটা ছিল ২০১১ সাল৷ ফ্লোরার সাররিয়াল সেল্ফ পোর্ট্রেট এখন লন্ডন থেকে ইস্তানবুল – অনেক শহরের গ্যালারিতেই প্রদর্শিত হয়৷ আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে তা নিয়ে আলোচনা হয়৷ বড় বড় কোম্পানি বিপণনের জন্য তাঁর ছবি কিনতে চায়৷ কিন্তু তরুণ এই শিল্পীর মাথা ঘুরে যায়নি৷ ফ্লি মার্কেট বা সস্তার বাজার ঘুরে তিনি নিজের ছবি প্রকল্পের মালমশলা খোঁজেন৷ ফ্লোরা বলেন, ‘‘একমাত্র প্রয়োজন আমার মন, আমার হাত, একটা ক্যামেরা ও ফটোশপ৷ সব কিছু নিজেই করতে পারি, কোনো পেশাদারি সাজসরঞ্জাম প্রয়োজন হয় না৷''

ফ্লোরার প্রজন্মের কাছে নিজের ছবি প্রকাশ করা অত্যন্ত স্বাভাবিক৷ এক মার্কিন সমীক্ষা অনুযায়ী ৯০ শতাংশের বেশি তরুণ-তরুণী সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের ছবি প্রকাশ করেন৷ সেগুলির বেশিরভাগই মোবাইল ফোনের ক্যামেরায় তোলা৷ শুধু ইনস্টাগ্রামেই ২০ কোটিরও বেশি ছবির হ্যাশট্যাগ হলো ‘সেল্ফি'৷ এমনকি বিখ্যাত মানুষ ও রাজনীতিকরাও নিজেদের ছবি তুলে নিজেদের অকৃত্রিম অবস্থায় তুলে ধরতে চান৷

Deutschland Tourismus Symbolbild Berlin

শিল্পজগতে ‘সেল্ফি' একটি নিজস্ব ধারা হয়ে উঠেছে

অনেক শিল্প সমালোচকের মতে, তথাকথিত এই ‘সেল্ফি' আসলে আত্মপ্রেমী সমাজের প্রতিফলন৷ বার্লিনের লেখিকা ক্রিস্টিয়ানে ফ্রোমান অবশ্য বাথরুমের আয়নায় তোলা এমন ‘সেল্ফি' ও বিড়ালের ছবিকে ইতিবাচক মনে করেন৷ লেখিকা ক্রিস্টিয়ানে ফ্রোমান বলেন, ‘‘তরুণ প্রজন্ম বা সমাজের বিরুদ্ধে আত্মপ্রেমের এই অভিযোগ আসলে আগেও শোনা গেছে৷ কারণ ‘নার্সিসিজম' যে কোনো মানুষের বিকাশের স্বাভাবিক অঙ্গ৷ এমনকি সাবালকদের জন্যও এটা স্বাভাবিক এক প্রবণতা৷ মনে প্রশ্ন জাগে, এটা বা ওটা করলে আমাকে কেমন দেখতে লাগে৷ তবে এটা ঠিক যে সব মিলিয়ে সমাজ অনেক বেশি ‘পারফরমেন্স'-কেন্দ্রীক হয়ে উঠেছে৷''

শিল্পজগতে সেল্ফ পোর্ট্রেট নতুন কিছু নয়৷ আলব্রেশ্ট ড্যুরার, রেমব্রান্ট বা ভিনসেন্ট ফান গখ আত্মপ্রতিকৃতি এঁকেছেন৷ ১৮৩৯ সালে সম্ভবত প্রথম ফটো-আত্মপ্রতিকৃতি তোলা হয়৷ গত শতাব্দীর ষাটের দশকে মূলত নারীবাদী শিল্পীরা ক্যামেরার সামনে নিজেদেরই বিষয় হিসেবে তুলে ধরেছেন, যেমন অস্ট্রিয়ার ভালি এক্সপোর্ট৷ অ্যামেরিকার সিন্ডি শেরম্যান নিজের অসংখ্য ছবি তুলেছেন৷ তিনি বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফটোগ্রাফারদের অন্যতম৷ আর আজ নিজের ছবি তোলা তো অত্যন্ত প্রচলিত আচরণ৷ ক্রিস্টিয়ানে ফ্রোমান বলেন, ‘‘এ যেন এক আদান-প্রদান৷ শিল্পের উপর ‘সেল্ফি' নান্দনিকতার প্রভাব পড়ছে৷ সেটি আবার অতীতের শিল্পসৃষ্টি সম্পর্কে আমাদের আজকের বোধ বদলে দিচ্ছে৷ যেমন ফান গখ বা ড্যুরার-এর আত্ম-প্রতিকৃতি দেখলে মনে হচ্ছে, তাঁরাও যেন সেল্ফি তুলেছিলেন৷''

এসবের ফলে শিল্পজগতে ‘সেল্ফি' একটি নিজস্ব ধারা হয়ে উঠেছে৷ মানুষ বিখ্যাত ছবির সামনে নিজের ছবি তুলছে৷ অনেকে আবার ছবির হাতেই মোবাইল ফোন তুলে দিচ্ছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক