1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

রেডি হেরিং সম্মাননার চূড়ান্ত তালিকায় সামহোয়্যার ইন

আপনি কি ব্লগ লেখেন? কিংবা পড়েন নাকি নিয়মিত? নাকি আদৌ ব্লগ নামে কিছু শোনেননি৷ যারা ইন্টারনেটে লেখালেখি করেন, তাদের কিন্তু ব্লগ সম্পর্কে না জানার কোন কারণ নেই৷ যদি ব্লগ চেনেনই, তাহলেতো সামহোয়্যার ইন ব্লগকেও চেনার কথা৷

default

যারা ইন্টারনেটে লেখালেখি করেন, তাদের ব্লগ সম্পর্কে না জানার কোন কারণ নেই৷

সবচেয়ে বড় বাংলা ব্লগ

বর্তমানে প্রায় ৬০ হাজার বাংলা ব্লগারের বাস সামহোয়্যার ইন ব্লগে৷ জনপ্রিয়তার দিক থেকে বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ওয়েবসাইট এটি৷ হবেই না বা কেন? কমিউনিটি বাংলা ব্লগের মূল শুরুটাতো এদের হাতেই হয়েছে৷ সে যাই হোক, বড় জায়গায় সাফল্য যেমন আছে, আছে বিতর্কও৷ সামহোয়্যার ইন ব্লগ নিয়েও বিতর্কের ঝড় ওঠে মাঝে মাঝে৷ আবার তা মিলিয়েও যায়৷ তবে জনপ্রিয়তার দিক থেকেই এটিই বিশ্বের সবচেয়ে বড় বাংলা ব্লগ৷ এই ব্লগের কারিগর আরিল ক্লোকেরহেল্গ এর মন্তব্য, ব্লগের মধ্যে বিভিন্ন মতামত, বিভিন্ন মন্তব্য থাকে৷ নানা বিষয় নিয়ে লেখে মানুষ৷ যখন এরকম মুক্ত আলোচনা হয়, তখন অনেক বিতর্কও সৃষ্টি হয়৷ এই বিতর্কের স্বাধীনতাই আমাদের মিডিয়াকে সমৃদ্ধ করে৷

এশিয়া জয়ের পথে সামহোয়্যার ইন

সামহোয়্যার ইন ব্লগ নিয়ে এত কথা বলার কিন্তু একটা কারণ আছে৷ এই ব্লগসাইটের পেছনের সংস্থাটি সম্প্রতি এক নতুন রেকর্ড গড়েছে৷ ২০১০ রেড হেরিং এশিয়া অ্যাওয়ার্ডের চূড়ান্ত তালিকায় জায়গা পেয়েছে সামহোয়্যার ইন৷ বাংলাদেশ থেকে এই প্রথম কোন সংস্থা চূড়ান্ত তালিকায় জায়গা পেলো৷ এই বিষয়ে সামহোয়্যার ইন এর হেড অব অপরচুনিটিস আরিল ক্লোকেরহেল্গ বলেন, আমরা খুব আনন্দিত৷ গত পাঁচ বছরে আমরা আমাদের ব্লগ এবং মাইক্রব্লগকে প্রতিষ্ঠিত করেছি৷ পৃথিবী যেভাবে করে, আমরা সেভাবে কপি করিনা৷ আমরা নিজেদের মতো করি৷ বাংলাদেশের জন্য করি৷

রেড হেরিং

রেড হেরিং হচ্ছে একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম৷ প্রযুক্তি নির্ভর নিউজ ওয়েবসাইট ছাড়াও একটি ম্যাগাজিন প্রকাশ করে রেড হেরিং৷ তবে প্রতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের সেরা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রকাশ করেই বেশি আলোচিত এটি৷ বিশ্বব্যাপী সমাদৃত এই সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যালেক্স ভিউক্স জানান, সামহোয়্যার ইন এর কর্মস্পৃহাই তাদেরকে চূড়ান্ত তালিকায় পৌঁছে দিয়েছে৷

যাত্রা শুরু ২০০৫ সালে

২০০৫ সালে সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানি হিসেবে যাত্রা শুরু করে সামহোয়্যার ইন নেট লিমিটেড৷ গ্রামীণ ফোনের দুই সাবেক কর্মকর্তা নরওয়ের আরিল ক্লোকেরহেল্গ এবং বাংলাদেশের সৈয়দা গুলশান ফেরদৌস জানা'র গড়া এই প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন এক ঝাঁক তরুণ কম্পিউটারবিদ৷ সামহোয়্যার ইন ব্লগ ছাড়াও সংস্থাটির মাইক্রোব্লগিং সাইট আওয়াজ ডটকম দ্রুত জনপ্রিয়তা পাচ্ছে৷ মোবাইলেও ব্যবহার করা যায় সাইট দুটি৷

বাংলার মানুষের জন্য

বাংলাদেশের মানুষের জন্য বাংলায় প্রযুক্তি নির্ভর তথ্য সেবা দিতে চায় সামহোয়্যার ইন৷ আরিল এর কথায়, শুধু শহর মানে ঢাকা, চিটাংগাং না আমরা চাই আমাদের সামাজিক নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা হবে পুরো বাংলায়৷

তিনি বলেন, আমরা দেখেছি প্রত্যন্ত অঞ্চলে কিংবা জেলা পর্যায়ে ইন্টারনেট কম ব্যবহার হয়৷ কারণ ইন্টারনেটে তারা স্থানীয় তথ্য পায় না৷ সামহোয়্যার এর মধ্যে, আওয়াজ এর মধ্যে স্থানীয় আড্ডা হয়৷ এই ধারা ভবিষ্যতে বাংলাদেশের জন্য খুবই তাৎপর্যপূর্ণ হবে৷

উল্লেখ্য, এবছর রেড হেরিং এর চূড়ান্ত তালিকায় বাংলাদেশ থেকে আরো একটি প্রতিষ্ঠানের নাম আছে৷ ওয়ানকল সলিউশ্যনস নামক এই প্রতিষ্ঠানটি মূলত তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর যোগাযোগ সেবা দিয়ে থাকে৷ নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে চীনের সাংহাইয়ে এক অনুষ্ঠানে রেডি হেরিং চূড়ান্ত বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে৷ সেখানে বাংলাদেশের প্রতিনিধি এই দুই প্রতিষ্ঠান৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক