1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

রুয়ান্ডার স্বাস্থ্য পরিষেবার সাফল্য

আফ্রিকার ছোট দেশ রুয়ান্ডা সরকারি স্বাস্থ্যবিমার প্রসার ও স্বাস্থ্য পরিষেবার বিকেন্দ্রীকরণের মাধ্যমে বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলের দরিদ্র মানুষের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন এনেছে৷

অঁতোয়ানেৎ নিমুরুতা এসেছেন কিবুইয়ে-র হাসপাতালে৷ বেশ কয়েকদিন ধরে তাঁর মাথাব্যথা, পেটের যন্ত্রণা৷ চল্লিশ কিলোমিটার দূরে তাঁর নিজের গ্রামে শুধু একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্র আছে – তাও ডাক্তার ছাড়া৷ কিবুইয়ে-র হাসপাতালে তাঁর ভালোমতো পরীক্ষা সম্ভব, এখানে রক্ত ইত্যাদি পরীক্ষার জন্য ল্যাবোরেটরিও আছে৷ রুয়ান্ডার সরকারি স্বাস্থ্যবিমার সদস্য না হলে অঁতোয়ানেৎ সম্ভবত এখানে আসতেন না৷ অঁতোয়ানেৎ বলেন, ‘‘স্বাস্থ্যবিমা খুবই দরকারি, কেননা তার ফলে আমরা সহজে চিকিৎসার সুযোগ পাই৷ স্বাস্থ্যবিমা ছাড়া সেটা অনেক শক্ত, তাতে খরচও অনেক৷ ডাক্তারের ফি দেবার সামর্থ্য মানুষজনের নেই৷''

কিবুইয়ে-র মতো সারা দেশেই এখন অ্যাম্বুলেন্স পাওয়া যায়৷ বিকেন্দ্রীকরণের ফলে হাসপাতালে ডাক্তাররাও রোগীদের জন্যে অনেক বেশি সময় পান৷

বিকেন্দ্রীকরণ: অর্থাৎ ছোটখাটো রোগভোগ গ্রামের কাছে স্বাস্থ্যকেন্দ্রেই সামলে দেওয়া যায়৷ সারা দেশে এ ধরনের ২০০টি স্বাস্থ্যকেন্দ্র আছে৷ সেখানকার চিকিৎসক জারম্যাঁ চিমানুকা বলেন, ‘‘প্রত্যেকটি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সপ্তাহে একবার করে একজন ডাক্তার আসেন৷ তিনি কঠিন কেসগুলো দেখে দেন৷''

সরকারি উদ্যোগের সুফল

ট্রিটমেন্টের জন্য অঁতোয়ানেৎ-কে ইউরোর হিসেবে মোট বিশ সেন্ট দিতে হয়৷ বাকিটা দেয় স্বাস্থ্যবিমা৷ শুধু ওষুধের দামের দশ শতাংশ দিতে হয় রোগীকে৷ অঁতোয়ানেৎ বলেন, ‘‘আমরা চাই যে, আরো বেশি হাসপাতাল তৈরি হোক, যাতে সেগুলো রোগীদের থেকে এতো বেশি দূরে না হয়৷ ডাক্তারের কাছে যেতে এতোটা পথ যেতে না হয়৷ খুব কম মানুষেরই বাসের টিকিট কাটার সামর্থ্য আছে, যেমন আমার আছে৷''

কিবুইয়ে-র মতো সারা দেশে চল্লিশটি হাসপাতাল আছে৷ রুয়ান্ডায় আঠেরো হাজার মানুষ প্রতি একজন করে ডাক্তার৷ বহু মানুষকে ডাক্তার দেখানোর জন্য দূর দূর থেকে আসতে হয়৷ কিন্তু চিকিৎসার খরচ নগণ্য বলে তাতেও কারো আপত্তি থাকে না৷ অঁতোয়ানেৎ বলেন, ‘‘কিছু কিছু জিনিস বদলেছে৷ স্বাস্থ্যবিমা পদ্ধতির বিকাশের ফলে মানুষজন আর অসুখ নিয়ে বাড়িতে বসে থাকে না, তারা চিকিৎসা করাতে আসে৷ পাঁচ বছর আগে স্বাস্থ্যবিমা চালু হওয়া যাবৎ সেটা অন্তত বদলেছে৷''

বিনিয়োগের সুফল

রুয়ান্ডার সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক প্রগতিও চোখে পড়ার মতো৷ স্বাস্থ্য ব্যবস্থার খরচ ইতিমধ্যে সরকারি বাজেট এবং স্বাস্থ্যবিমার প্রিমিয়াম থেকেই মেটানো যায় – অন্তত আংশিক৷

রুয়ান্ডার স্বাস্থ্যমন্ত্রী আগনেস বিনাগওয়াহো জানালেন, ইতিমধ্যে যাদের বিমা আছে, তাদের আশি শতাংশ চিকিৎসার সুযোগ নেন৷ বিনাগওয়াহো বলেন, ‘‘আমরা প্রগতি করেছি৷ মানুষজন স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ও তার আধুনিক সাজসরঞ্জাম থেকে অনেক সুবিধা পাচ্ছে৷ যেমন আমরা নানা ধরনের টিকা এবং পরিবার পরিকল্পনার সুযোগ দিই৷ কিন্তু আমার লক্ষ্য হল, আমরা এ যাবৎ যা করতে পারিনি, তার ওপর৷ কেননা আমাদের এখনো অনেকটা পথ বাকি৷''

এবং সাফল্যটাও চোখে পড়ার মতো৷ শিশুমৃত্যুর হার কমে আসছে, শিশুর জন্মের সময় প্রসূতি ও সন্তানের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জটিলতাও কমে আসছে৷ এছাড়া জীবনের প্রথম পাঁচ বছরে শিশুমৃত্যুর হারও অনেক কমেছে৷ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা টোনি হাবিনশুটি বলেন, ‘‘সরকারের এখনও একটা বড় আর্থিক দায়িত্ব আছে, সেই সব মানুষদের জন্য যারা নিজেরা স্বাস্থ্যবিমার প্রিমিয়াম দিতে পারেন না এবং সে জন্য একটা সরকারি ভরতুকি পান৷ কিন্তু এই স্বাস্থ্যবিমা আর কয়েক বছরের মধ্যে একটি জোরালো এবং নিরপেক্ষ সংস্থা হয়ে উঠবে বলে আমার ধারণা৷''

ফেরা যাক কিভু হ্রদের ধারে কিবুইয়ে-তে৷ সম্প্রতি রুয়ান্ডা প্রায় পাঁচ লাখ ইউরো পরিমাণ অর্থব্যয় করে এই অ্যাম্বুলেন্স বোটটি সংগ্রহ করেছে৷ এখন কিভু হ্রদের তীরে সব দুর্গম এলাকা থেকেও রোগীদের এই অ্যাম্বুলেন্স বোটে করে হাসপাতালে নিয়ে আসা যায়৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক