1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

যুক্তরাষ্ট্র

রাশিয়া বৈঠক ‘২০ মিনিট অপচয়', বললেন ট্রাম্প জুনিয়র

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বড় ছেলে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র বলেছেন, রাশিয়ার এক আইনজীবীর সঙ্গে তাঁর আলোচনার সময় ঐ আইনজীবী হিলারি ক্লিন্টন সম্পর্কে কোনো আপসমূলক তথ্য প্রকাশ করেননি৷

মার্কিন টিভি চ্যানেল ফক্স নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র ঐ বৈঠক সম্পর্কে বলেন, ‘‘সত্যিকার অর্থে ওটা (বৈঠক) ছিল ২০ মিনিট অপচয়৷'' এমনকি তাঁর বাবাকে এই বৈঠক সম্পর্কে সেই সময় কিছু বলেননি বলেও মন্তব্য করেন ৩৯ বছর বয়সি ট্রাম্প জুনিয়র৷ বাবার নির্বাচনি প্রচারণার সময় তিনি অন্যতম উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেছেন৷

ইমেল প্রকাশ

ফক্স নিউজকে সাক্ষাৎকার দেয়ার আগে তিনি তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি ই-মেল থ্রেড প্রকাশ করেন৷ ঐ ই-মেলে ক্লিন্টন সম্পর্কে রাশিয়া থেকে কিছু স্পর্শকাতর তথ্য দেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল৷ মিউজিক পাবলিসিস্ট রব গোল্ডস্টোনের সঙ্গে ঐ ই-মেল আদানপ্রদান করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র৷ গোল্ডস্টোন ই-মেলে লিখেছিলেন, রাশিয়ায় থাকা তাঁর পরিচিত সূত্রের কাছে ক্লিন্টন সম্পর্কে এমন কিছু সরকারি তথ্য আছে যার ভিত্তিতে ক্লিন্টনকে অভিযুক্ত করা যেতে পারে৷ বিষয়টি তাঁর বাবার জন্য বেশ উপকারি হবে বলে ট্রাম্প জুনিয়রকে ইমেলে লিখেছিলেন গোল্টস্টোন৷

ক্লিন্টনকে হারাতে রাশিয়ার কাছ থেকে সহায়তা পাওয়ার সম্ভাবনা দেখে গোল্টস্টোনকে দেয়া এক ই-মেল উত্তরে ট্রাম্প জুনিয়র লিখেছিলেন, ‘‘আমি পছন্দ করছি৷''

এই ই-মেলগুলোই প্রকাশিত প্রথম কোনো তথ্যপ্রমাণ, যাতে দেখা যাচ্ছে ট্রাম্প পরিবারের এক সদস্য নির্বাচনের ফল নিজেদের পক্ষে আনার আশায় রুশ সরকারের সূত্রের কাছ থেকে তথ্য পেতে আগ্রহী ছিলেন৷ ই-মেল আদানপ্রদানের পর ২০১৬ সালের জুন মাসে রুশ আইনজীবী নাটালিয়া ভেসেলনিটস্কায়ার সঙ্গে নিউইয়র্কের ট্রাম্প টাওয়ারে বৈঠক করেন ট্রাম্প জুনিয়র৷

ট্রাম্প জুনিয়রের ইমেল প্রকাশের পর মার্কিন গণমাধ্যমের একটি অংশ ট্রাম্প জুনিয়রের বিরুদ্ধে শপথভঙ্গের অভিযোগ আনছে৷ ডেমোক্র্যাট সেনেটর টিম কেইনও মনে করছেন যে, ট্রাম্প জুনিয়র ‘বিচারের পথে বাধা দেয়া'-র মতো অপরাধের চেয়েও বড় কিছু করেছেন৷

তবে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স এসব অভিযোগকে ‘উদ্ভট' বলে মন্তব্য করেছেন৷ এর আগে তিনি ছেলের ই-মেল প্রকাশ নিয়েপ্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পেরএকটি বিবৃতি সাংবাদিকদের পড়ে শোনান৷ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ‘‘আমার ছেলে একজন উচ্চ গুণসম্পন্ন মানুষ এবং আমি তাঁর সচ্ছতার প্রশংসা করি৷''

জেডএইচ/ডিজি (এপি, এএফপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন