1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

‘রাশিয়া আন্তর্জাতিক স্থিতিশীলতা বিপন্ন করছে’

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের সরকার এবার এক সরকারি বিবৃতির মাধ্যমে ক্রাইমিয়া সংকটের প্রেক্ষাপটে রাশিয়ার কড়া সমালোচনা করেছে৷ ম্যার্কেল বলেন, এ ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করা হয়েছে৷

বৃহস্পতিবার জার্মান সংসদের নিম্ন কক্ষ বুন্ডেসটাগ-এ অত্যন্ত স্পষ্ট ভাষায় নিজের অবস্থান জানিয়েছেন ম্যার্কেল৷ তাঁর মতে, ক্রাইমিয়া উপদ্বীপে রাশিয়ার আচরণ ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব ও ঐক্য লঙ্ঘন করছে৷ ইউক্রেনের সঙ্গে ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক স্তরে নিবিড় সম্পর্কের খাতিরে রাশিয়ার উচিত সে দেশের স্থিতিশীলতার সহযোগী হওয়া৷ তার বদলে রাশিয়া প্রতিবেশী দেশের বর্তমান দুর্বলতার ফায়দা তুলছে৷

ম্যার্কেল আরও বলেন, রাশিয়া একতরফাভাবে তার ভু-কৌশলগত স্বার্থ জাহির করার চেষ্টা চালাচ্ছে৷ এর ফলে শুধু ইউরোপীয় ঐক্যই বিপন্ন হচ্ছে না, আন্তর্জাতিক স্থিতিশীলতাও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে৷ ক্রাইমিয়াকে রাশিয়ার অন্তর্গত করার প্রক্রিয়া যদি চালু থাকে এবং ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের স্থিতিশীলতা বিপন্ন করা হতে থাকে, তাহলে রাশিয়ার নিজস্ব রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক স্বার্থেরও মারাত্মক ক্ষতি হবে – স্পষ্ট ভাষায় এমন হুমকি দিয়েছেন ম্যার্কেল৷

এই প্রেক্ষাপটে চ্যান্সেলর ম্যার্কেল আরও বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন হাত গুটিয়ে বসে থাকবে না৷ প্রয়োজনে রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার তৃতীয় পর্যায় কার্যকর করা হবে৷ তবে সামরিক পদক্ষেপের কোনো সম্ভাবনা তিনি দেখছেন না৷ স্থিতিশীলতা রক্ষা ও সংস্কারের ক্ষেত্রে ইউক্রেন-কে আরও সহায়তা করার অঙ্গীকার করেন৷

ম্যার্কেল এর আগেই বলেছিলেন, ইউক্রেনে রাশিয়া তার বর্তমান কার্যকলাপের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করছে৷ তিনি মস্কোর উদ্দেশ্যে ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব রক্ষার ডাক দিয়েছেন৷ এক সংবাদপত্রের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, একতরফাভাবে আন্তর্জাতিক সীমান্ত বদলানো যায় না৷ ইউক্রেনের মানুষ তাদের ভবিষ্যৎ নিজেরাই নির্ধারণ করবে, বলেন ম্যার্কেল৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়