1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

রাশিয়ায় যোগ দেয়ার আবেদন বিচ্ছিন্নতাবাদীদের

স্বশাসন প্রশ্নে গণভোটে জয় দাবির পর পূর্ব ইউক্রেনের দোনেৎস্ক অঞ্চলকে রাশিয়ায় অন্তর্ভুক্ত করার আবেদন করেছে মস্কোপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতারা৷ একই পদক্ষেপ নেয়ার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে লুগানস্ক অঞ্চলের রুশপন্থিরাও৷

কিয়েভ প্রশাসন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই গণভোটকে অবৈধ আখ্যায়িত করলেও রাশিয়া বলেছে, গণভোটের ফল অবশ্যই বাস্তবায়ন করতে হবে৷

এদিকে ইউক্রেন সংকট থেকে উত্তরণের একটি কূটনৈতিক পথ খুঁজতে কিয়েভ সফর করছেন জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাংক ভাল্টার স্টাইনমায়ার৷ মঙ্গলবার কিয়েভের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের শীর্ষ ব্যক্তিদের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি বলেছেন, এ অঞ্চলের স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে আগামী ২৫শে মে অনুষ্ঠেয় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে৷

এর আগে গত মার্চ মাসে একইভাবে একটি ‘বিতর্কিত' গণভোটের পর ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলের স্বায়ত্ত্বশাসিত এলাকা ক্রাইমিয়াকে রাশিয়ার অন্তর্ভুক্ত করার ডিক্রি জারি করেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন৷

যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিরোধিতার মধ্যেই রোববার দোনেৎস্ক ও লুগানস্ক-এ গণভোট হয়৷ এর ফল ঘোষণা করে দোনেৎস্কের অন্যতম শীর্ষ নেতা ডেনিস পুশিলিন সোমবার বলেন, দোনেৎস্ক এখন স্বাধীন এবং তাঁরা রুশ ফেডারেশনে যোগ দেয়ার আবেদন জানিয়েছেন৷

‘‘দোনেৎস্কের মানুষ সব সময়ই রুশ বিশ্বের অংশ ছিল৷ রাশিয়ার ইতিহাসই আমাদের ইতিহাস৷''

পার্শ্ববর্তী লুগানস্ক শহরের কর্মকর্তারাও বলেছেন, রাশিয়ার অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য তাঁরা আলাদা একটি গণভোট করেত চান৷

দোনেৎস্ক ও লুগানস্ককে ৬৫ লাখ লোকের বসবাস এবং ইউক্রেনের মোট শিল্প উৎপাদনের এক তৃতীয়াংশ এ দুটি এলাকা থেকেই আসে৷ দোনেৎস্কের বিচ্ছন্নতাবাদী নেতাদের দাবি, রোববার ৮০ শতাংশ ভোট পড়েছে ইউক্রেন থেকে স্বাধীন হওয়ার পক্ষে৷ আর লুগানস্কের ক্ষেত্রে এই হার ৯৬ শতাংশ৷

কিয়েভের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অভিযোগ, রাশিয়া ইউক্রেইনের বৈধ শাসনের অবসান ঘটাতে চাইছে এবং ২৫ মে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন বানচাল করার ষড়যন্ত্র করছে৷

অবশ্য সংকট নিরসনে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে কিয়েভে আলোচনায় বসতে আপত্তি নেই বলেও ইউক্রেন সরকার জানিয়েছ৷ এ ব্যাপারে রুশপন্থিদের কোনো প্রতিক্রিয়া এখনো পাওয়া যায়নি৷

Steinmeier in Kiew mit Jazenjuk 13.05.2014

ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রী আরসেনি ইয়াৎসেনইউকের সঙ্গে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাংক ভাল্টার স্টাইনমায়ার (বাঁয়ে)

কিয়েভ সফররত জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টাইনমায়ার মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেন, কিয়েভ প্রশাসনের সঙ্গে বিচ্ছিন্নতাবাদী অংশগুলোর নেতাদের আলোচনায় বসাতে জার্মানি সহযোগিতা করবে৷

তিনি বলেন, ‘‘এখানকার পরিস্থিত, বিশেষ করে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের, খুবই আশঙ্কাজনক৷ আমি আশা করি, সব পক্ষের আলোচনার মাধ্যমে অধিকৃত এলাকা মুক্ত করা, বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ধাপে ধাপে নিরস্ত্রীকরণ এবং এসব এলাকায় শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে৷''

স্থিতিশীলতা ফেরানোর এই চেষ্টায় প্রয়োজনের ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলেও যাবেন বলে সাংবাদিকদের জানান স্টাইনমায়ার৷

জেকে/ডিজি (এএফপি, এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন