1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র: পুনরায় ইআইএ করার আহ্বান ইউনেস্কোর

সুন্দরবনের পাশে রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের লক্ষ্যে করা পরিবেশগত প্রভাব সমীক্ষা (ইআইএ) সঠিকভাবে করা হয়নি বলে মনে করছে ইউনেস্কো৷ তাই সমীক্ষাটি আবারো করতে বাংলাদেশ সরকারকে আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের সংস্থাটি৷

ঢাকার একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, ইউনেস্কো গতমাসে বাংলাদেশ সরকারকে একটি প্রতিবেদন পাঠিয়েছে৷ ইউনেস্কোর তিন প্রতিনিধির সুন্দরবন পরিদর্শন নিয়ে তৈরি ঐ প্রতিবেদনে বাংলাদেশ সরকারকে নতুন করে ইআইএ করে আইইউসিএন এর কাছ থেকে ‘অ্যাডভাইস নোট' নিয়ে জমা দিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে৷ এছাড়া এই প্রতিবেদনের আগে রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কাজ শুরু না করারও আহ্বান জানানো হয়েছে৷

আগামী মাসের ১১ তারিখের মধ্যে সরকারকে প্রতিবেদনের উত্তর দিতে বলা হয়েছে৷

ইউনেস্কোর এই প্রতিবেদন এমন এক সময়ে এসেছে যখন ‘বাংলাদেশ ইন্ডিয়া ফ্রেন্ডশিপ পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড' শিগগিরই ভারতের এক্সিম ব্যাংকের সঙ্গে ঋণচুক্তিতে সই করতে যাচ্ছে বলে আশা করা হচ্ছে৷

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদমন্ত্রী নসরুল হামিদ ঢাকার ঐ জাতীয় দৈনিককে জানিয়েছেন, আগামী সপ্তাহের মধ্যে ইউনেস্কোর প্রতিবেদনের উত্তর তৈরি হয়ে যাবে৷ তবে নতুন করে ইআইএ করা হবে কিনা সে ব্যাপারে এখনও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি বলে জানান তিনি৷

এদিকে, গ্রিনপিস সহ ৪০টি আন্তর্জাতিক পরিবেশবাদী সংগঠনের নেটওয়ার্ক ‘ব্যাংকট্র্যাক' রামপাল প্রকল্পে অর্থ সহায়তা না দিতে ভারতের এক্সিম ব্যাংকের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে৷ সংস্থাটি বলছে, কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প সুন্দরবনের মানুষ ও প্রাণীর প্রতি হুমকিস্বরূপ৷

আন্তর্জাতিক পরিবেশবাদী সংগঠনের আরেকটি নেটওয়ার্ক ‘ফ্রেন্ডস অফ দ্য আর্থ ইন্টারন্যাশনাল' বা এফওইআই বাংলাদেশের ক্ষতিকারক কয়লা প্রকল্পে অর্থায়ন না করতে মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে৷

রামপাল ছাড়াও সুন্দরবনের পাশে বাংলাদেশের ওরিয়ন গ্রুপের আরেকটি বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে এবং সেই প্রকল্পে যুক্তরাষ্ট্রের এক্সিম ব্যাংক সহায়তা করতে পারে এমন সম্ভাবনার খবর তাদের কাছে বলে দাবি করছে এফওইআই৷ এই দাবির পক্ষে তথ্যপ্রমাণ হিসেবে কিছু কাগজপত্র এফওইআই-এর কাছে আছে বলে জানিয়েছে পরিবেশ বিষয়ক সংবাদভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘ইকোওয়াচ'৷ এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে তারা, যার শিরোনাম ‘যুক্তরাষ্ট্রের করের টাকা কি বিশ্বের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ অরণ্য ধ্বংসে অর্থায়ন করা হচ্ছে?'

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়