1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

রাবি’তে ছাত্রদের খাবারে ইঁদুরের মাংস!

ইঁদুরের মাংস৷ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ও আফ্রিকার কিছু দেশে অত্যন্ত গরিব লোকেদের খাবার এটি৷ কারণ একটাই, দামে সস্তা৷ তবে বিশ্বের আর সবার কাছে এটি নিষিদ্ধ৷ এবার সেই নিষিদ্ধ মাংসই খাওয়ানো হলো রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের৷

default

গত রবিবার দুপুরে খাবার খেতে শের-ই বাংলা ফজলুল হক হলের ডাইনিংয়ে যান পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র আব্দুল মতিন৷ অর্ডার দেন মুরগির মাংসের৷ এরপর যখন মাংস এলো তখন সেখানে তিনি দেখতে পান ইঁদুরের চোখ ও পশম৷ সঙ্গে সঙ্গে সেটা দেখান পাশে থাকা বন্ধু আশরাফুল আর মেহেদীকে৷ এরপর তাঁরা সবাই যখন নিশ্চিত হন যে, এটা ইঁদুরেরই মাংস তখন সেটা নিয়ে যান বাবুর্চি সুলতানের কাছে৷ প্রথমে সুলতান সেটা অস্বীকার করে৷ ফলে ডাইনিংয়ে থাকা ছাত্ররা মারধর করে বাবুর্চিকে৷

এরপর সুলতানের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও বহিষ্কারের দাবি জানিয়ে হল গেটে বিক্ষোভ প্রদর্শন শুরু করেন ছাত্ররা৷ খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সুভাস চন্দ্র শীল ও প্রক্টর চৌধুরী মোহাম্মদ জাকারিয়া এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন এবং ইঁদুরের ব্যাপারে সুলতানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন৷ এ সময় অসতর্কভাবে খাবারে ইঁদুর আসতে পারে বলে দোষ স্বীকার করে সুলতান৷ পরে ‘অসতর্কতাবশত' খাবার তৈরির দায়ে তাকে মতিহার থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়৷

উল্লেখ্য, গত বেশ কিছুদিন ধরে খাবারের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ করে আসছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের শিক্ষার্থীরা৷ অর্থাৎ একেতো মূল্যবৃদ্ধি তার ওপর ইঁদুরের মাংস!

সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি বিভাগের করা এক জরিপে দেখা গেছে, দেশের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে যে খাবার পরিবেশন করা হয় সেটার মান বেশ খারাপ এবং সেগুলো তৈরি হয় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক