1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

রাফায়েল নাদাল পঞ্চমবার ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতলেন

গত বারো মাসের নানা বিপত্তি এবং আশাভঙ্গ থেকে দীর্ঘপথ অতিক্রম করে ‘রাফা’ আবার ফিরলেন তাঁর স্বমহিমায়৷ রোলাঁ গারো’র লাল সুড়কি তাঁর বড় প্রিয় সার্ফেস, সেখানেই৷

default

রবিবার এ'বছরের ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে সুইডেনের রবিন সডারলিং'কে হারালেন ৬-৪, ৬-২ এবং ৬-৪ গেমে৷ জেতবার পর নাদালের আবেগের বাঁধ ভাঙল, চোখে নামল অশ্রু৷ ‘‘স্বস্তি এবং আনন্দ,'' রিপোর্টারদের বললেন রাফা৷ প্যারিসে গতবছর হারার পর এই জিত, প্রস্তুতি ভালো ছিল না, ছিল না মানসিক বল৷ ‘‘আমি ফিরেছি এবং আমি জিতেছি৷ হয়তো আমি এই টুর্নামেন্টটাই বিশেষভাবে জিততে চেয়েছিলাম,'' বললেন নাদাল৷

গতবছর প্যারিসে সডারলিং-এর কাছেই চূড়ান্তভাবে হারেন নাদাল৷ তারপর শুরু হয় বারো মাসের খরা, অবশেষে মন্টে কার্লো'য় যে খরার অবসান ঘটে৷ অথচ আজ সোমবার বিশ্ব বাছাই তালিকার শীর্ষে রজার ফেডারারের জায়গা নেবেন রাফায়েল নাদাল৷ কিন্তু রবিবার সে-বিষয়ে তাঁর কোনো চিন্তাই ছিল না৷ দু'সপ্তাহ ধরে চমৎকার টেনিস খেলেছেন, রোলাঁ গারোর খেতাব জিতেছেন একটিও সেট না হারিয়ে৷ তার ওপর আবার ফাইনাল খেলেছেন স্বদেশের, অর্থাৎ স্পেনের রাণী সোফিয়ার উপস্থিতিতে৷ ‘‘জীবন আমার প্রতি বড়ই সদয়,'' বলেছেন ২৪ বছর বয়সের দার্শনিক নাদাল৷

জন্ম স্পেনের মাইয়োর্কা দ্বীপে৷ কাকা মিগুয়েল আঞ্জেল নাদাল ছিলেন বার্সেলোনা এবং স্পেনের নামকরা ফুটবল খেলোয়াড়৷ নাদাল বস্তুত ডানহাতী, পরে তাঁর কোচের পরামর্শে বাঁহাতী টেনিস খেলোয়াড় হন৷ ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতেছেন এই নিয়ে পাঁচবার, উইম্বলডন একবার এবং অস্ট্রেলিয়ান ওপেন একবার৷ পিট স্যাম্প্রাসের পর রজার ফেডারার, এবং তার পর কে, এ'প্রশ্নের জবাব ২০০৬ সাল থেকেই মোটামুটি পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে৷ ২০০৮ সালের উইম্বলডন ফাইনালে ফেডারারকে হারান নাদাল যে ম্যাচটি জিতে, সেটিকে পণ্ডিতরা চিরকালের সেরা টেনিস ম্যাচ আখ্যা দিয়ে থাকেন৷

তবে গ্রিক হিরো এ্যাকিলিসের যেমন গোড়ালি, তেমনই নাদালের মূল সমস্যা হল তাঁর হাঁটুগুলোকে নিয়ে, এক কথায় টেন্ডনাইটিস৷ এযাবৎ গোটা দু'য়েক টুর্নামেন্ট থেকে ঐ হাঁটুর কারণেই বিদায় নিতে হয়েছে৷ নয়তো আমরা আরো কয়েক বছর রাফার রাজত্বেই বাস করব বলে পণ্ডিতদের ধারণা৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়