1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

রাণী ক্লিওপ্যাট্রা’ও মশারীর নীচে শুতেন!

কিংবদন্তী তা’ই বলে, কেননা ম্যালেরিয়া নামক রোগটি সে-আমলেও ছিল৷ তবে আজকাল যে ধরণের কীটনাশকযুক্ত মশারী বেরিয়েছে, তা’ পেলে ক্লিওপ্যাট্রা কি করতেন, তা জানা নেই৷

default

আনোফিলিস কোয়াদ্রিমাকুলাটুস

আজও প্রতিবছর সারা বিশ্বে দশ লক্ষের বেশী মানুষ ম্যালেরিয়ার প্রকোপে প্রাণ হারান, এবং তাদের অধিকাংশই রাণী ক্লিওপ্যাট্রার মহাদেশ অর্থাৎ আফ্রিকায়, যদিও সাহারা মরুভূমির দক্ষিণে৷ এছাড়া আজ অবধি ম্যালেরিয়ার কোনো টিকা বেরোয়নি, এবং বহু ওষুধও আর কাজ করে না কেননা মশারা প্রজন্মান্তরে তা'তে অভ্যস্ত হয়ে যায়৷ মাত্র ছয় মিলিমিটার দৈর্ঘ্যের একটি প্রাণী, সেই সুপরিচিত এ্যানোফিলিস মশা, কিন্তু তাকে বাগে আনার অথবা বাগে রাখার আদি এবং অকৃত্রিম পন্থা আজও - মশারী৷

হেরোডোটাস এবং মশারী

Ausstellung Kleopatra und die Caesaren, Bucerius Kunst Forum

এবং ক্লিওপ্যাট্রা

খ্রীষ্টজন্মের সাড়ে চারশো' বছর আগে গ্রিক ঐতিহাসিক হেরোডোটাস তাঁর মিশর যাত্রা থেকে লিখছেন: ‘‘দেশ জুড়ে মশা, যার প্রতিকারের জন্য মানুষজন নানা উপায় বার করেছে৷ প্রত্যেকেরই মশারী আছে, তা সে দিনের বেলা মাছ ধরার জন্যই হোক, আর রাতে বিছানার ওপরে বাঁধার জন্যই হোক৷'' হোরোডোটাসের আমল থেকে মশারীর অনেক উন্নতি ঘটেছে, এই যা তফাৎ৷

লড়াকু মশারী

কিন্তু আজ থেকে মাত্র ২০-২৫ বছর আগে বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেন যে, মশারীতে এক বিশেষ ধরণের কীটনাশক দেওয়া থাকলে, তা আরো বেশী কার্যকর হয়৷ মশারীতে কীটনাশক দেওয়ার পদ্ধতিটা নাকি সোভিয়েত সৈন্যরা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় উদ্ভাবন করে৷ আশির দশকে নতুন ধরণের কীটনাশক বাজারে আসে৷ দেখা যায় সেগুলো দিয়ে মশারী স্প্রে করলে মশারা যে শুধু ভেতরে ঢুকতে ব্যর্থ হয়, তা'ই নয়, কীটনাশকের ক্রিয়ায় তাদের অনেকে সেখানেই মারা যায়৷

এবং এই কীটনাশক দেওয়া মশারীগুলি ব্যবহার করার খরচ জলে-জঙ্গলে কীটনাশক ছড়ানো কিংবা ম্যালেরিয়ার ওষুধের দামের চেয়ে অনেক কম৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠন ডাবলিউএইচও মাত্র গোটা দশেক কীটনাশক যুক্ত মশারী অনুমোদন করেছে, যেমন জার্মানির বিএএসএফ রাসায়নিক সংস্থার একটি মশারী৷ পলিমারবাইন্ডার দিয়ে কীটনাশক রাসায়নিকটিকে মশারীর সুতোয় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়৷ এর পরে এই সব মশারী জাহাজে করে আফ্রিকা, এমনকি ব্রাজিল যায় গ্রামে গ্রামে বিতরণের জন্য৷

আহা, তার একখানা যদি রাণী ক্লিওপ্যাট্রাকে দেওয়া যেতো!

প্রতিবেদক: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: ফাহমিদা সুলতানা

সংশ্লিষ্ট বিষয়