1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

রকেটের আঘাতে ভূপাতিত হয় এমএইচ১৭?

মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের বিমানটি গত বছরের ১৭ই জুলাই পূর্ব ইউক্রেনে ভেঙে পড়ে৷ ডাচ সেফটি বোর্ড তাদের রিপোর্টে সম্ভবত একটি রুশ ‘বুক' ক্ষেপণাস্ত্রকে এর জন্য দায়ী করবে, তবে কোনো পক্ষের উপর দোষারোপ না করে৷

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও পত্রপত্রিকা যতটুকু জানতে পেরেছে, তাতে বোঝা যাচ্ছে, এমএইচ১৭ উড়ালটি ‘বুক' মাটি-থেকে-আকাশ রকেটের আঘাতে ভূপাতিত হওয়ার খবরটা সাচ্চা৷ নেদারল্যান্ডস-এর নাম-করা ‘ফল্কসক্রান্ট' দৈনিক তদন্তের কাছাকাছি তিনটি সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে একই খবর দিয়েছে৷

বহু বিশেষজ্ঞ এবং পশ্চিমি সরকারবর্গের বিশ্বাস যে, পূর্ব ইউক্রেনের বিদ্রোহীরা ‘বুক' রকেটটি নিক্ষেপ করে৷ বিমান দুর্ঘটনার আন্তর্জাতিক তদন্তের নিয়মাবলী অনুযায়ী ডাচ সেফটি বোর্ড-এর কারোর ওপর দোষারোপ করার অধিকার নেই৷ কাজেই বোর্ড তাদের রিপোর্টে তা করবে না বলেই ধরে নেওয়া যেতে পারে৷ কিন্তু নানা প্রশ্ন – এবং সেই সঙ্গে একটি বুনিয়াদি বিতর্ক থেকে যাচ্ছে৷ ‘‘এমএইচ১৭ সম্পর্কে আজ আমরা দু'টো রিপোর্ট শুনবো: একটি হল্যান্ড থেকে, আরেকটি রাশিয়া থেকে,'' টুইট করেছেন স্টিভ রোজেনবার্গ৷ কিন্তু কে বিমানটিকে ভূপাতিত করেছে, তা নিয়ে রাশিয়া এবং পশ্চিমি দুনিয়ার মধ্যে মতানৈক্য চলবে৷''

ওদিকে ‘বুক' রকেটের রাষ্ট্র-নিয়ন্ত্রিত রুশি নির্মাতা আলমাজ-আন্তাই সংস্থা এই মঙ্গলবার সকালেই একটি সংবাদ সম্মেলনে আয়োজন করে তাদের নিজস্ব তদন্তের ফলাফল পেশ করেছে, যে বিষয়ে হাওয়ার্ড আমোস টুইট করেছেন: ‘‘নানা ধরনের লাল লাইন আর অ্যারো দিয়ে আলমাজ-আন্তাই প্রমাণ করার চেষ্টা করছে যে, বুক রকেটটি সামনে থেকে এমএইচ১৭ উড়ালটিতে ধাক্কা মারে৷''

ডাচ সেফটি বোর্ডের রিপোর্ট দু'পক্ষের এই পারস্পরিক সন্দেহ ও দোষারোপকে থামাতে পারবে বলে মনে হয় না৷ জেরাল্ড হেনজেল টুইট করেছেন: ‘‘রাশিয়ান ট্রল ফ্যাকট্রিরা জেগে ওঠো৷ আজ এমএইচ১৭ সংক্রান্ত চূড়ান্ত রিপোর্ট পেশ হবে৷ কাজেই এখন আরো কিছু উদ্ভটে ষড়যন্ত্রের থিওরি ভেবে বার করার সময় এসেছে...৷''

এসি/এসিবি (রয়টার্স, এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়