1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

রওশনের নেতৃত্বে নির্বাচনে যাচ্ছে জাতীয় পার্টি

জাতীয় পার্টি (জাপা) শেষ পর্যন্ত এইচ এম এরশাদের স্ত্রী ও দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য রওশন এরশাদের নেতৃত্বে নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ তবে এরশাদ কি চান তা জানা যায়নি৷ তিনি আপাতত সিএমএইচেই চিকিৎসাধীন আছেন৷

এদিকে কাজী জাফর আহমেদের নেতৃত্বে নতুন এক জাতীয় পার্টি যাত্রা শুরু করেছে – যারা নির্বাচনের বাইরে থেকে বিরোধী দলের আন্দোলনকে সমর্থন দিয়েছে৷

শনিবার দুপুরে রওশন এরশাদের সঙ্গে বৈঠক করেন জাপা'র প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু৷ এরপর তিনি বাইরে এসে কথা বলেন সাংবাদিকদের সঙ্গে৷ তিনি সাংবাদিকদের জানান, ‘‘আমরা মনে করি সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষায় নির্বাচনে যাওয়া দরকার৷ তাই আমাদের ম্যাডাম রওশন এরশাদসহ আমরা ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি৷'' তবে নির্বাচনে যাওয়ার ব্যাপারে এরশাদের অনুমতি আছে কিনা, সে ব্যাপারে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি৷

এদিকে এই ঘটনার পর জাতীয় পার্টির মহাসচিব রহুল আমিন হাওলাদার সংবাদ সম্মেলন ডেকে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হননি৷ তিনি বিকেল ৩টার দিকে তাঁর গুলশানের নিজ বাসায় এই সংবাদ সম্মেলন ডেকেছিলেন৷ বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তিনি সাংবাদিকদের কিছু না জানিয়েই বাসা থেকে বের হয়ে যান৷

Bangladesch Hussain Muhammad Ershad in Dhaka

এরশাদের জাতীয় পার্টি এখন তিন ভাগে বিভক্ত

পরে সাংবাদিকরা তাঁর সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ‘‘আলাপ আলোচনা করি, পরে কথা বলব৷'' ডয়চে ভেলের পক্ষ থেকে আরো পরে তাঁর সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করে তাঁকে পাওয়া যায়নি৷

রওশন এরশাদের নেতৃত্বে নির্বাচনে যাওয়ার ব্যাপারে এরশাদের ভাই ও প্রেসিডিয়াম সদস্য জি এম কাদেরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি৷ তিনি বলেন, ‘‘এবিষয়ে আমি কিছু জানি না, এই মূহূর্তে কোনো মন্তব্য নয়৷'' তবে একদিন আগে শুক্রবার তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, নির্বাচনে না যাওয়ার ব্যাপারে এরশাদ এখনো অনড় আছেন৷ দলটির অবস্থান সম্পর্কে তিনি এবং মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার ছাড়া আর কারোর কথা গ্রহণযোগ্য হবে না বলে জানিয়েছিলেন তিনি৷

তবে বৃহস্পতিবার দলের আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, এরশাদের অনুমতি নিয়েই জাতীয় পার্টি রওশন এরশাদের নেতৃত্বে নির্বাচনে যাচ্ছে৷ তবে তাঁর এই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানান অপর দুই প্রেসিডিয়াম সদস্য দেলোয়ার হোসেন ও আহসান হাবিব লিংকন৷ আর শনিবার সন্ধ্যায় কাজী ফিরোজ রশীদের সঙ্গে ডয়চে ভেলে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ‘‘আমি কথা বলতে পারব না, ব্যস্ত আছি৷''

এদিকে জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর আহমেদকে চেয়ারম্যান করে নতুন এক জাতীয় পার্টি যাত্রা শুরু করেছে৷ কাজী জাফর বলেছেন তাঁর নেতৃত্বে জাতীয় পার্টিই আসল জাতীয় পার্টি৷ তিনি নির্বাচন বর্জন এবং বিএনপি'র নেতৃত্বে বিরোধী ১৮ দলের আন্দোলনকে সমর্থন দিয়েছেন৷ কাজী জাফর শুক্রবার তাঁর নতুন জাতীয় পার্টির সম্মেলনে বলেছেন, এরশাদ আসলে নাটক করছেন৷ তিনি হাসপাতালে থাকলেও তাঁর লোকজনের সঙ্গে নিয়মিত বৈঠক এবং দেখা সাক্ষাৎ করছেন৷ এর আগে এরশাদ এবং কাজী জাফর পরস্পর পরস্পরকে দল থেকে বহিষ্কার করেন৷

এরশাদ প্রথমে নির্বাচনে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে কয়েকদিন পর নির্বাচন বয়কটের ঘোষণা দেন৷ এরপরই ১৩ ডিসেম্বর রাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করে দেন৷ শোনা যাচ্ছিল এরশাদকে বিদেশে পাঠানো হচ্ছে৷ এখনো তিনি সিএমএইচে থাকলেও তাঁর নতুন মুখপাত্র ববি হাজ্জাজকে দেশ ছাড়তে হয়েছে৷ আর এখন দলের শীর্ষ নেতারা নানামুখী কথা বলছেন এবং সবাই দাবি করছেন, এতে এরশাদের অনুমতি আছে৷ ইতিমধ্যেই জাতীয় পার্টির ১৭ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপিও নির্বাচিত হয়েছেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়