1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

যে দিনটিতে সারা বিশ্বেই মেয়েরা শীর্ষস্থানে

বিশ্বের সব দেশের কিশোরীরা একটি দিনের জন্য সরকার প্রধান থেকে শুরু করে সব প্রতিষ্ঠানের শীর্ষে৷ মন্ত্রী, মেয়র এবং প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব নিয়েছিল কিশোরীরা৷

গত ১১ই অক্টোবর ছিল আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস৷ বাংলাদেশ, থাইল্যান্ড, কানাডাসহ বিশ্বের ৫০টিরও বেশি দেশে সেদিন দেখা গেল কিশোরীদের কর্তৃত্ব৷  রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলোতে সেদিন কিশোরীরা শীর্ষ পদের দায়িত্ব নিয়েছিল৷ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে বাল্যবিবাহ ও শিশুশ্রমের বিরুদ্ধেও এমন উদ্যোগ সহাংক ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হয়৷ চিলড্রেনস চ্যারিটি প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের প্রধান অ্যানি ব্রিগিটে অ্যালব্রেখটসেন এক বিবৃতিতে বলেন, ‘‘নারী শক্তি এবং পৃথিবীকে বদলে ফেলার তাদের যে সামর্থ্য তা তুলে ধরার পক্ষে এ এক অনন্য দৃষ্টান্ত৷''

অ্যানি আরো বলেছেন,‘‘এই উদ্যোগের ফলে সব দেশের সরকারের এটা মনে হতে বাধ্য যে তাদের দেশের মেয়েরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে পুরুষদের থেকে কতটা পিছিয়ে আছে, বা তাদের কতটা পেছনে রাখা হয়েছে৷ কেবল নারী হওয়ার কারণে বিভিন্ন ক্ষেত্রে তারা অনেক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে৷''

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের জরিপ অনুযায়ী, বিশ্বে ১৯৪টি দেশের মধ্যে মাত্র ১৪ টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান নারী৷ বিশ্বের শীর্ষ ৫০০টি প্রতিষ্ঠানে শীর্ষ অবস্থানে আছেন মাত্র ৪ শতাংশ নারী৷ ইন্দোনেশিয়ায় ১৭ বছর বয়সি নূর আনিসা মঙ্গলবার একদিনের জন্য দেশের মানবসম্পদ মন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়েছিলেন৷

অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিল কিশোর কিশোরীরা৷ দায়িত্ব নিয়ে প্রথম বৈঠক প্রসঙ্গে নূর জানালো, ‘‘আমি প্রকৃত মন্ত্রী হলে শিশুশ্রম কিভাবে অবসান করা যায় সেটা নিয়ে পরিকল্পনা ও তার বাস্তবায়নের চেষ্টা করতাম৷ একদিনের জন্য এই দায়িত্ব দেয়া হলেও এটা আমাকে ভবিষ্যতে রাজনীতিবিদ হতে উৎসাহী করছে৷''

এপিবি/এসিবি (থমসন রয়টার্স ফাউন্ডেশন)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়