1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

যুদ্ধাপরাধের বিচারে ট্রাইব্যুনাল গঠন করল বাংলাদেশ

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে সংঘটিত যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধসহ অন্যান্য অপরাধের বিচারে একটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছে বাংলাদেশ৷ একইসঙ্গে একটি তদন্তকারী সংস্থা এবং আইনজীবী প্যানেলেরও নাম ঘোষণা করেছ সরকার৷

default

বাংলাদেশের আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ

২৬ শে মার্চ ৩৯তম স্বাধীনতা দিবসের একদিন আগে বৃহস্পতিবার রাজধানী ঢাকায় এ ঘোষণা দেওয়া হল৷ আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনালের বিচারকদের নাম, সাত সদস্যের তদন্তকারী প্যানেলের নাম এবং বারো সদস্যের আইনজীবী প্যানেলের নাম প্রকাশ করেন৷

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে এই বিচার প্রক্রিয়াকে গ্রহণযোগ্য করে তুলতে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল কোর্ট (আইসিসি) বা ‘আন্তর্জাতিক অপরাধ দমন আদালত' এর ‘রোম সংবিধি' মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের দুইদিন পরই এই ট্রাইব্যুনাল গঠনের ঘোষণা দিল সরকার৷

যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান করা হয়েছে বিচারপতি নিজামুল হককে৷ সদস্য থাকছেন বিচারপতি এটিএম ফজলে কবীর ও অবসরপ্রাপ্ত জেলা জজ একেএম জহির আহমেদ৷

সাবেক অতিরিক্ত সচিব আব্দুল মতিনের নেতৃত্বে তদন্তকারী কর্মকর্তারা হলেন- সাবেক অতিরিক্ত আইজিপি আবদুর রহিম, সাবেক ডিআইজি কুতুবুর রহমান, অবসরপ্রাপ্ত মেজর এএসএম শামসুল আরেফিন, সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি মীর শহীদুল ইসলাম, সিআইডি ইন্সপেক্টর নূরুল ইসলাম ও আব্দুর রাজ্জাক৷

আইনজীবী প্যানেলের প্রধান থাকবেন গোলাম আরিফ টিপু৷ সদস্যরা হলেন- সৈয়দ রেজাউর রহমান, গোলাম হাসনাইন, জহির আহমেদ, রানা দাশগুপ্ত, জেয়াদ আল মালুম, সৈয়দ হায়দার আলী, খোন্দকার আবদুল মান্নান, মোশাররফ হোসেন কাজল, নুরুল ইসলাম সুজন, সানজিদা খানম ও সুলতান মাহমুদ শিমন৷

একাত্তরের যুদ্ধাপরাধের বিচার আওয়ামী লীগের অন্যতম নির্বাচনী অঙ্গীকার৷ সরকার গঠনের পর সংসদের প্রথম অধিবেশনেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে সর্বসম্মতিক্রমে প্রস্তাব পাস হয়৷ এরপর বাজেটে ১০ কোটি টাকাও বরাদ্দ দেয় সরকার৷

গত বছরের সেপ্টেম্বরে ১৯৭৩ সালের আর্ন্তজাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল (অ্যাক্ট) আইনও সংশোধন করা হয়৷ এরপর গত মঙ্গলবার ‘আইসিসি' প্রতিষ্ঠার ‘রোম সংবিধি' অনুমোদন করে মন্ত্রিসভা৷ এর ফলে বাংলাদেশ বিশ্বের ১১১তম এবং দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে আইসিসি'র সদস্যপদ পায়৷ ওদিকে, পুরনো হাইকোর্ট ভবনে যুদ্ধাপরাধ আদালতের পরিকাঠামো স্থাপনের কাজ ইতিমধ্যে শেষ করেছে আইন মন্ত্রণালয়৷

শফিক আহমেদ গত ১৮ মার্চ সাংবাদিকদের বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ‘যুদ্ধাপরাধ আইন'-এ নয়, বিচার হবে ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইম ট্রাইব্যুনাল অ্যাক্ট-এর আওতায়৷ ‘‘যুদ্ধকালে যে সব অপরাধ মানবতাবিরোধী বলে চিহ্নিত, তার সবই এ আইনের আওতায় পড়ে'' বলেনও জানান তিনি৷

আজ ২৫ শে মার্চ

১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চ রাতে পাকিস্তানী বাহিনী ঝাপিয়ে পড়েছিল নিরস্ত্র বাঙালিদের ওপর৷ মধ্যরাতে তারা হামলা চালায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজারবাগ পুলিশ লাইন ও পিলখানায়৷ একরাতেই পাকিস্তানি সেনাদের হাতে ৫০ হাজার বাঙালি নিহত হয়৷ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে সেই কালরাতের হামলায় অনেকের সঙ্গে শহীদ হন হল কর্মচারী মনভরণ রায়৷ তার স্ত্রী রাজকুমারী রায় আজও বেঁচে আছেন সেদিনের দুঃসহ স্মৃতি নিয়ে৷ তিনি জানান সেই রাতে নির্বচারে হত্যা করা হয় নিরীহ মানুষকে৷ তার স্বামীকে তার সামনেই হত্যা করা হয়৷

৯ মাস মুক্তিযুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন হয়৷ কিন্তু যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রক্রিয়া আটকে ছিল৷ স্বাধীনতার ৩৮ বছর পর বৃহস্পতিবার ২৫শে মার্চেই শুরু হল যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য ট্রাইবুন্যাল৷

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন বলেছেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের কাজে নিয়োজিতদের নিরাপত্তা দেবে সরকার৷

প্রতিবেদন : হারুন উর রশীদ স্বপন (ঢাকা)/ মুনীর উদ্দিন আহমেদ

সম্পাদনা : আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়