‘যুদ্ধাপরাধের বিচারও ব্লগার হত্যার কারণ হতে পারে’ | আলাপ | DW | 03.12.2015
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

আলাপ

‘যুদ্ধাপরাধের বিচারও ব্লগার হত্যার কারণ হতে পারে’

চলতি বছর বাংলাদেশে চারজন ব্লগার খুন হয়েছেন৷ একজন প্রকাশকের নামও আছে নিহতের তালিকায়৷ কেন তাঁরা খুন হচ্ছেন? এর পেছনের কারণই বা কী?

অডিও শুনুন 07:39

‘রাজীব নাস্তিক ব্লগার ছিলেন’

বিষয়টি জানতে ডয়চে ভেলে কথা বলেছে মুক্তমনা ব্লগের মডারেটর ফরিদ আহমেদের সঙ্গে৷ এ বছর ফেব্রুয়ারিতে নিহত ব্লগার অভিজিৎ রায় মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন৷ এছাড়া ২০১৩ সালে নিহত ব্লগার রাজীব হায়দারও মুক্তমনা ব্লগে নিয়মিত লিখতেন৷ ফরিদ আহমেদ বলেন, ‘‘...যেসব ব্লগার খুন হয়েছেন তাঁরা মূলত সবাই নাস্তিক ছিলেন৷ আর প্রকাশক দীপন অভিজিতের বিশ্বাসের ভাইরাস ও অবিশ্বাসের দর্শন বই দুটির প্রকাশক ছিলেন৷ তো এই বিষয়টাকে দেখলে আমার কাছে যেটা মনে হয়, মূলত হামলাটা হচ্ছে নাস্তিক ব্লগারদের উপর৷ তবে এর পাশাপাশি বাংলাদেশে এখন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে, ইতিমধ্যে বেশ কয়েকজনের ফাঁসিও হয়েছে এবং শাহবাগ আন্দোলনটা যখন শুরু হলো তখন কিন্তু থাবা বাবা (রাজীব হায়দার) মারা গেলেন৷ তাই যুদ্ধাপরাধের বিষয়টাকেও কিন্তু আমরা উপেক্ষা করতে পারছিনা, এটাও একটা কারণ হতে পারে৷ কারণ এসব ব্লগাররা প্রত্যেকেই যুদ্ধাপরাধের বিচার হোক সে ব্যাপারে সোচ্চার ছিলেন৷''

২০১৩ সালে নিহত ব্লগার রাজীব হায়দায় মুক্তমনায় নিয়মিত লেখালেখি করতেন উল্লেখ করে ফরিদ আহমেদ বলেন, ‘‘রাজীব নাস্তিক ব্লগার ছিলেন৷ একইসঙ্গে তিনি গণজাগরণ মঞ্চের সঙ্গেও বেশ সক্রিয় ছিলেন৷''

নিহত প্রকাশক দীপন সম্পর্কে মুক্তমনা ব্লগের মডারেটর বলেন, ‘‘উনি (দীপন) হয়ত সরাসরি ধর্মে অবিশ্বাসী ছিলেন না৷ কিন্তু তিনি অত্যন্ত প্রগতিশীল মানুষ ছিলেন৷ তার বই প্রকাশনাগুলো দেখলেই, সেটা বোঝা যায়৷ বাংলাদেশে যাঁরা প্রগতিশীল মানুষ তাঁরা অবশ্যই যুদ্ধাপরাধের বিচারের পক্ষে থাকবেন এটাই স্বাভাবিক৷''

ফরিদ আহমেদ বলেন, ‘‘একটা ধর্মীয় মৌলবাদী অংশ যারা ধর্মকে সমালোচনা করলে অথবা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চাইলে সেটাকে ঠিক সহজভাবে নিতে পারে না তারাই এসব হত্যাকাণ্ডের পেছনে রয়েছে৷''

ব্লগারদের রক্ষায় সরকার যেসব পদক্ষেপ নিচ্ছে তাতে খুব একটা সন্তুষ্ট নন ফরিদ আহমেদ৷ ‘‘সরকারি পদক্ষেপ আশাব্যাঞ্জক নয় বলেই অনেক ব্লগার দেশ ছাড়ছেন৷ সরকার সঠিক পদক্ষেপ নিলে এসব ব্লগাররা দেশ ছেড়ে বিদেশের অনিশ্চিত জগতে পাড়ি জমাতেন না৷''

উল্লেখ্য, চলতি বছর ডয়চে ভেলের দ্য বব্স জুরি অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী হয়েছে মুক্তমনা ব্লগ৷

আপনার কি কিছু বলার আছে? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়