1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবি উঠল স্বাধীনতা দিবসে

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবির মধ্যদিয়ে জাতি পালন করছে স্বাধীনতার ৪০তম বার্ষিকী৷ সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন লাখো জনতা৷ সবার কন্ঠে ছিল মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়৷

default

স্বাধীনতার ৪০তম বার্ষিকীতে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন লাখো জনতা৷ সবার কন্ঠে ছিলো যুদ্ধপরাধীদের বিচারের দাবিতে দৃপ্ত শপথ৷ ছিলো মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় প্রত্যয়৷ জাতি স্মরণ করছে মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের৷

৪০ বছর আগের এই দিনে পাকিস্তানি দখলদার বাহিনীর দমন অভিযানের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের বাঙালিরা৷

শনিবার ভোরে রাজধানীতে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির সূচনা হয়েছে৷ সকাল ৬টা টা ১ মিনিটে রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় দিনের আনুষ্ঠানিকতা৷ এ সময় বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর৷

তিন বাহিনীর সু-সজ্জিত একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করে৷ এ সময় উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, তিন বাহিনীর প্রধান, কূটনৈতিক মিশনের প্রতিনিধি, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ পরিবার ও বীরশ্রেষ্ঠ পরিবারসহ উর্দ্ধতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা৷

সকাল ৯টায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শিশু-কিশোর সমাবেশ ও কুচকাওয়াজে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ রাষ্ট্রপতির বিশেষ আমন্ত্রণে স্বাধীনতার উৎসবে অংশ নিতে ঢাকায় আসা ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিল ওয়াংচুকও এ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন৷

স্মৃতি সৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণের পর সবার কন্ঠে ছিল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবি৷ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামও বললেন শিগগিরই শুরু হচ্ছে বিচার৷

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী স্মৃতিসৌধ ছেড়ে যাওয়ার পর সেখানে নামে লাখো মানুষের ঢল৷ এসময় ফুলে ফুলে ভরে যায় স্মৃতিসৌধের বেদি। বিএনপি চেয়ারপার্সন ও বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দেশের বাইরে থাকায় বিএনপির পক্ষে সকাল সোয়া ৯ টায় দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল আলমগীরের নেতৃত্বে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়৷

প্রতিবেদন :সমীর কুমার দে, ঢাকা

সম্পাদনা : সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়