1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

যুক্তরাষ্ট্র, দ. কোরিয়াকে আবারও হুমকি উত্তর কোরিয়ার

সোমবার থেকে শুরু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার যৌথ সামরিক মহড়া৷ চলবে এপ্রিলের শেষ পর্যন্ত৷ উত্তর কোরিয়া এই অনুশীলনের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে৷

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রায় তিন লক্ষ ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ১৭ হাজার সেনা বার্ষিক এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে৷ উত্তর কোরিয়া এর সমালোচনা করে একে ‘দখলের উদ্দেশ্যে আক্রমণাত্বক অনুশীলন' বলে আখ্যায়িত করেছে৷ শুধু তাই নয়, মহড়া শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পরমাণু হামলা চালানোর হুমকিও দিয়েছে৷ দেশটির বার্তা সংস্থায় প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘‘যদি আমরা এই মুহূর্তে বোতাম চাপি, তাহলে যেসব স্থান থেকে উসকানি দেয়া হচ্ছে সেগুলো নিমিষেই ধ্বংস হয়ে ভস্মে পরিণত হবে৷''

উত্তর কোরিয়া গত জানুয়ারিতে চতুর্থবারের মতো পরমাণু পরীক্ষা চালায়৷ এরপর ফেব্রুয়ারিতে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে৷ এই দুই ঘটনায় আন্তর্জাতিক তীব্র চাপের মুখে পড়ে দেশটি৷ এর প্রতিক্রিয়ায় উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ৷ ফলে এখন থেকে কোনো দেশ উত্তর কোরিয়ায় অস্ত্র রপ্তানি করতে পারবে না৷ এছাড়া দেশটির নির্দিষ্ট কয়েকজন ব্যক্তির উপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে৷ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে তাদের সম্পত্তিও৷

তবে এই নিষেধাজ্ঞার প্রতিবাদে পিয়ংইয়ং ছয়টি স্বল্প দূরত্বের ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে৷ দেশটির নেতা কিম জং উন ক্ষেপণাস্ত্র প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন৷ এর আগেও নিষেধাজ্ঞার প্রতিবাদে উত্তর কোরিয়াকে নানা পদক্ষেপ নিতে দেখা গেছে৷

এদিকে, উত্তর কোরিয়ার এই আগ্রাসী তৎপরতার কারণে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া এবারের যৌথ মহড়ার আকার ও পরিধি বাড়িয়েছে৷ উত্তর কোরিয়া এই অনুশীলনকে ‘আক্রমণাত্বক' বললেও দেশ দুটি বলছে এটি ‘আত্মরক্ষামূলক'৷

জেডএইচ/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়