1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের রেকর্ড সামরিক চুক্তি

১০ মাসের দীর্ঘ আলোচনার পর সামরিক চুক্তির ব্যাপারে সম্মত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েল৷ ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু অবশেষে কিছুটা ছাড় দিতে সম্মত হয়েছেন৷ তবে তাদের চাহিদা ছিল আরও বেশি৷

ইসরায়েলকে আগামী ১০ বছর বছরে ৩৮০ কোটি মার্কিন ডলারের সামরিক সহায়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র, যা এ যাবতকালের একটি রেকর্ড৷ বর্তমানে যে ১০ বছরের চুক্তিটি বহাল আছে, তা শেষ হবে ২০১৮ সালে, এতে প্রতি বছর ৩১০ কোটি মার্কিন ডলার সামরিক সহায়তা দেয়ার কথা বলা হয়েছে৷

আজ বুধবারই দু'দেশের মধ্যে আনুষ্ঠানিক চুক্তি সই হওয়ার কথা৷ ওবামার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুজান রাইস পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ঐ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন৷ অন্যদিকে, চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ইসরায়েলের পক্ষে উপস্থিত থাকবেন তাদের ভারপ্রাপ্ত জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাকব নাজেল৷ ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর অফিস চুক্তির ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছে৷ তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি৷

‘দ্য মেমোরেন্ডাম অফ আন্ডারস্ট্যান্ডিং' বা এমওইউ চুক্তিটি ওয়াশিংটনে মার্কিন পরররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সই হবে৷ তবে দুই রাষ্ট্রপ্রধান এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে থাকছেন না৷ ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু এখনও যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট কে হচ্ছেন তা দেখার অপেক্ষায় আছেন৷ আর পরবর্তী প্রেসডেন্টের সঙ্গে আরও ভালো চুক্তির আশা করছেন তিনি৷

কেননা স্বাক্ষরে সম্মত হলেও এই রেকর্ড চুক্তিতে নাখোশ ইসরায়েল৷ তাদের চাহিদা ছিল আরও বেশি৷ আরও সাড়ে চার কোটি মার্কিন ডলারের সহায়তা চেয়েছিল তারা৷ এছাড়া ইসরায়েল এ ব্যাপারে সম্মত হয়েছে যে, নতুন কোনো যুদ্ধে না জড়ালে মার্কিন কংগ্রেসের কাছে অতিরিক্ত সামরিক সহায়তার আবেদন করবে না তারা৷ চুক্তি অনুযায়ী, ইসরায়েল তাদের সামরিক পণ্যের ধীরে ধীরে বিকাশ ঘটাবে৷ এছাড়া তাদের সামরিক জ্বালানি খাতেও ব্যয় করবে৷

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টন এবং রিপাবলিকান ডোনাল্ড ট্রাম্প তাদের প্রচারণায় ইসরায়েলের নিরাপত্তার বিষয়টিকে প্রাধান্য দিচ্ছেন৷

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়