1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

যুক্তরাষ্ট্র-ইসরায়েল সম্পর্ক কোন পথে?

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে ভাষণ দিতে চলেছেন বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু৷ ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর এ ভাষণের উদ্যোগকে ওবামা প্রশাসন ভালোভাবে নেয়নি৷ নেতানিয়াহুর এ উদ্যোগ কি তাহলে দু'দেশের মধ্যকার সম্পর্কে বিরূপ প্রভাব ফেলবে?

দু'দিনের সফরে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু এখন যুক্তরাষ্ট্রে৷ গত রোববার তিনি ওয়াশিংটন পৌঁছান৷ মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদ কংগ্রেসে তাঁর ভাষণ দেয়ার কথা৷ এ ভাষণের বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে৷ ইসরায়েলের বন্ধুপ্রতিম দেশ যুক্তরাষ্ট্রে নেতানিয়াহুর এ সফর তাঁর আগের সফরগুলোর তুলনায় অন্যরকম, কেননা, এবার তিনি গেছেন প্রেসিডেন্ট ওবামার ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রতিপক্ষ রিপাবলিকানদের আমন্ত্রণে৷ সম্প্রতি ইরানের ওপর নতুন করে অবরোধ আরোপের বিষয়ে নিজের আপত্তির কথা জানিয়েছেন বারাক ওবামা৷ ধারণা করা হচ্ছে, কংগ্রেসের রিপাবলিকান দলীয় স্পিকার জন বেহনারের আমন্ত্রণে নেতানিয়াহুর এই যুক্তরাষ্ট্র সফর এবং ভাষণ তারই পাল্টা ব্যবস্থা৷

নেতানিয়াহুর এ সফর সম্পর্কে হোয়াইট হাউসের অবস্থান স্পষ্ট৷ স্পষ্টতই তারা এ সফরকে সমর্থন করছে না৷ তাই হোয়াইট হাউস ইতিমধ্যে জানিয়েছে, নেতানিয়াহুর সঙ্গে এবার প্রেসিডেন্ট ওবামা দেখা করবেন না৷ কারণ হিসেবে অবশ্য কংগ্রেসের আসন্ন ভাষণের কথা বলা হয়নি৷ বলা হয়েছে, ইসরায়েলের আসন্ন নির্বাচনে এ সাক্ষাতের প্রভাব পড়তে পারে৷ আর হোয়াইট হাউস তা চায় না৷

Barak Obama besucht Südafrikas Präsident Jacob Zuma

বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বারাক ওবামা বলেছেন, ‘‘এ মুহূর্তে ইরানকে কীভাবে পারমানবিক অস্ত্র তৈরি থেকে বিরত রাখা যায়, সেদিকেই আমাদের মনোনিবেশ করা উচিত৷ ''

ইসরায়েলে নির্বাচন হবে আগামী ১৭ মার্চ৷ সেখানে নেতানিয়াহুর তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি হওয়ার কথা৷ এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি নির্বাচনের আগে তিনি কেন ওবামা প্রশাসনকে বিব্রত করার মতো পদক্ষেপ নিলেন? ওবামার ইরান-নীতির বিরোধিতার জন্যই এমন করা হয়ে থাকলে এর মাধ্যমে তো ওবামাকে এক অর্থে অপমান করা হলো! তবে নেতানিয়াহু বলছেন, ওবামাকে অপমান করা বা ইসরায়েল-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ককে দলীয় রাজনীতির মোড়কবন্দি করা তাঁর উদ্দেশ্য নয়৷ এ সম্পর্কে মার্কিন-ইসরায়েল লবি সংগঠন এআইপিএসি-র নীতিবিষয়ক সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘‘কংগ্রেসে আমি ইরান সরকারের বিষয়ে কথা বলতে চাই, যারা ইসরায়েলকে ধ্বংস করার পাঁয়তারা করছে৷''

এদিকে বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বারাক ওবামা বলেছেন, ‘‘এটা (নেতানিয়াহুর কংগ্রেসে ভাষণ) স্থায়ীভাবে (দু'দেশের সম্পর্ককে) ধ্বংস করবে না৷ তবে এ মুহূ্র্তে আমাদের যেদিকে দৃকপাত করা উচিত সেদিক থেকে নজর সরিয়ে দেবে৷ এ মুহূর্তে ইরানকে কীভাবে পারমানবিক অস্ত্র তৈরি থেকে বিরত রাখা যায়,সেদিকেই আমাদের মনোনিবেশ করা উচিত৷ ''

এসিবি/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়