1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

আলাপ

‘যারা সংখ্যালঘুদের নির্যাতন করে, তারা মুসলিম নয়'

‘‘নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ইসলাম মুসলিম এবং অমুসলিমের মধ্যে কোনো পার্থক্য করে না৷ সংখ্যালঘুদের জীবন, সম্পদ ও ধর্মীয় স্বাধীনতার ব্যাপারে সজাগ এবং সমনীতির কথা বলে ইসলাম৷'' এ কথাগুলো শোলাকিয়ার ইমাম মাওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসউদের৷

অডিও শুনুন 05:50

‘যদি মুসলমান হন, তবে সংখ্যালঘুদের জীবন ও সম্পত্তি রক্ষা করা আপনার ইমানী দায়িত্ব’

ডয়চে ভেলের সঙ্গে এক একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘যারা ইসলামের নামে সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন করে, সংখ্যালঘুদের উপাসনালয়ে হামলা করে, তারা আসলে ইসলামের কেউ নয়৷ তারা ব্যক্তিস্বার্থে এ সব করে থাকে৷''

বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন প্রসঙ্গে ডয়চে ভেলেকে দেয়া সেই সাক্ষাৎকারের উল্লেখযোগ্য কিছু অংশ এখানে তুলে দেয়া হলো৷

ডয়চে ভেলে: সংখ্যালঘুদের নিরপত্তার ব্যাপারে ইসলামের বিধান কী?

ফরিদ উদ্দিন মাসউদ: ইসলাম নিরাপত্তার ব্যাপারে মুসলিম-অমুসলিমের মধ্যে কোনো পার্থক্য করে না৷ তাই মুসলমানদের জন্য যে নিরাপত্তা, সংখ্যালঘুদের জন্যও একই নিরাপত্তার কথা বলা হয়েছে৷ বিদায় হজের ভাষণেও আমাদের প্রিয় নবী অমুসলিমদের জান-মাল হেফাজতের কথা বলেছেন৷ তাদের ধর্মীয় স্বাধীনতার কথা বলেছেন৷

এই নিরাপত্তা বা হেফাজতের বিষয়টি কীভাবে করা হবে?

একটা উদাহরণ দিলেই বোঝা যাবে৷ ইসলামের বিধান অনুয়ায়ী একজন মুসলিম যদি একজন অমুসলিম সংখ্যালঘুকে হত্যা করে, তাহলে এর শাস্তি ইসলামে মৃত্যুদণ্ড৷ মুসলমান হওয়ার কারণে সে কোনো ছাড় পাবে না৷ ইসলামে অপরাধী অপরাধীই৷

বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতনের কারণ কী?

বাংলাদেশে ইসলামের নামে সংখ্যালঘু নির্যাতন, তাদের উপাসনালয়ে হামলা হয়৷ কিন্তু এর আসল উদ্দেশ্য তাদের সম্পদ ও সম্পত্তি দখল৷ একটা কুচক্রি মহল নিজেদের স্বার্থে ইসলামের নামে এ সব অপরাধ করে৷ ইসলাম এ সব কাজকে সমর্থন তো করেই না বরং বিচার দাবি করে৷

এই নির্যাতন বন্ধে আপনারা কী ভূমিকা রাখছেন?

এরশাদের শাসনামলে ঢাকায় সংখ্যালঘুদের ওপর উসকানিমূলক হামলা এবং সাম্প্রতিক সময়ে রামুতে বৌদ্ধ মন্দিরে হামলার প্রতিবাদ জানিয়েছি আমরা৷ আমরা বিবৃতি দিয়ে বলেছি যে, এটা অন্যায়৷ আমরা বিচার দাবি করেছি দুর্বৃত্তদের৷ কিন্তু আমাদের মাওলানাদের কথা তো সংবাদমাধ্যম প্রচার করে না৷ ইমামরা খুতবায়ও সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার বিরুদ্ধে বয়ান করেন৷

আপনি তো মুক্তিযোদ্ধা৷ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময়ও তো সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা নির্যাতন হয়েছে৷

হ্যাঁ হয়েছে৷ আর যারা করেছে, তারা ইসলামের নামে স্বাধীনতার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে৷ কিন্তু এ দেশের প্রকৃত আলেম-ওলামারা মুক্তিযুদ্ধ করেছেন, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে কাজ করেছেন৷ জামায়াত, মুসলিম লীগ ইসলামের নামে ইসলামবিরোধী কাজ করেছে৷ তারাই সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা করেছে৷ বাড়ি-ঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে৷

সংখ্যালঘুদের ওপর এই যে নির্যাতন, এ ব্যাপারে সাধারণ মানুষের কাছে আপনি কী আহ্বান জনাবেন?

আমার আহ্বান একটাই৷ যদি মুসলমান হন, যদি ইসলামের অনুসারী হন, তাহলে সংখ্যালঘুদের জীবন ও সম্পত্তি রক্ষা করা আপনার ইমানী দায়িত্ব৷ তাদের নিরপত্তা দেয়া ইসলামেরই বিধান৷ তাদের ওপর হামলা বা নির্যাতন ইসলামের দৃষ্টিতে জঘন্য অপরাধ৷

আপনি কি ইমাম মাওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসউদের সঙ্গে একমত? জানান নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়