1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘যারা এমন কাজ করে তারা মুসলমান হতে পারে না’

বাংলাদেশ থেকে এক তরুণীর আইএস-এ যোগ দিতে যাওয়ার খবরের পর সংবাদ মাধ্যমে আরেকটি খবরও এসেছে৷ খবরে জানা গেছে, আইএস ইরাক এবং সিরিয়ায় যৌন ক্রিতদাসীর বাজার বসিয়ে নারীদের বিক্রি করছে৷ এ খবরে ফেসবুকে পাঠকদের প্রতিক্রিয়া৷

আইএস নারীদের বয়স অনুপাতে দাম নির্ধারণ করে যৌনদাসী হিসেবে বিক্রি করছে- এ খবরটি হাতেগোনা কয়েকটি পত্রিকা পরিবেশন করেছে৷ খবরের সূত্র হিসেবে আইএস-এর পত্রিকা ‘দাবিক’-এর নাম উল্লেখ করা হয়েছে৷ ডয়চে ভেলের ফেসবুকে খবরটির লিংক দেখে কেউ কেউ এর সত্যতা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন৷ তবে কুড়িগ্রামের মাহবুব আলম মনে করেন, ‘‘ইসলামকে বিতর্কিত করার জন্য আইএসকে আমেরিকা এবং ইসরায়েল তৈরি করেছে অথবা আইএস-এর বিরুদ্ধে ভুয়া নিউজ প্রচার করছে৷ কোনটা সঠিক তা আমরা জানিনা৷’’ আবার এ কে শরিফ সরকার লিখেছেন, ‘‘আইএস-কে যখন পশ্চিমারা সাহায্য করেছিল সবাই তাদের প্রশংসা করছিলেন৷ এইগুলো বিশ্ব মোড়লদের নাটক৷ একটু চিন্তা করেন উত্তর নিজেই পাবেন৷’’

মশিউর রহমান মিশু মনে করেন নারীদের ওভাবে আইএস-এর হাতে পণ্যের মতো বিক্রি হওয়ার চেয়ে মরে যাওয়াও ভালো৷ তাই তিনি লিখেছেন, ‘‘ গুলি খেয়ে মরে যাওয়াও ভালো৷’’ আল-আমিন জুয়েল খবরটি পড়ে ক্ষুব্ধ হয়ে লিখেছেন, ‘‘নাউজুবিল্লাহ, খোদার গজব পড়ুক!’’

আরনাজ আদনাদ যারা নারীর প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে পারেনা, তাদের মুসলমান মানতেই নারাজ৷ তাঁর মতে, ‘‘যারা এ কাজগুলো করছে তারা কখনোই মুসলমান হতে পারে না৷ পৃথিবীর যে প্রান্তেই হোক দয়া করে এগুলো বন্ধ কর৷’’

মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম লিখেছেন, ‘‘ইরাকের চেয়ে বেশি খারাপ বার্মা৷ তাদের নিয়ে লিখুন৷ যেভাবে মুসলমানদের হত্যা করছে তাদের নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করুন৷’’ মিয়ানমারের কোনো দাঙ্গার খবর যখন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে আসে ডয়চে ভেলেতেও অবশ্যই তা স্থান পায়৷ বিশ্বের কোনো প্রান্তের মানবাধিকার লঙ্ঘনই সমর্থনযোগ্য নয়৷

সংকলন: আশীষ চক্রবর্ত্তী
সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়