1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

যত খুশি খান, তারপরও স্লিম থাকুন

বেশি খেলে মোটা হবেন৷ ভাত, রুটি কম খাবেন৷ মেদ কমাতে এমন পরামর্শ শুনে শুনে মেনেও আসছেন অনেকে? এবার ভুলে যান৷ সব কিছু পেট পুরে খেয়েও কিন্তু মেদ কমানো, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ বা ডায়াবেটিস কমানো সম্ভব!

প্রমাণ চান? ব্রিটেন আর যুক্তরাষ্ট্রের অনেকে হাতে হাতে প্রমাণ পেয়ে গেছেন৷ এমন চমকে দেয়া নিয়মে মেদ কমানোর কথা যে বইয়ে লেখা, সেটা তাই বিক্রি হচ্ছে মুড়ি-মুড়কির মতো৷ কীভাবে বেশি খেয়েও সুস্থ এবং সুন্দর থাকবেন – শুধু এই কথা বুঝিয়ে লেখা বই, ‘দ্য ফাস্ট ডায়েট' তাই বেস্টসেলার৷ চাহিদা এত বেশি যে এ বছর বারো বারেরও বেশি পু্নর্মুদ্রণ হয়েছে বইটির!

অথচ যাঁদের এমন বই রচনার মূল কৃতিত্ব তাঁদের কেউ লেখকই নন৷ মাইকেল মোসলে ব্রিটেনের সাংবাদিক৷ টেলিভিশনে চিকিৎসা বিষয়ক অনুষ্ঠান নিয়ে কাজ করেন৷ বিবিসির জন্য ‘ইট, ফাস্ট, লিভ লঙ্গার' নামের একটা অনুষ্ঠান করে সাড়া জাগিয়েছেন৷ তবে অনুষ্ঠান শুরুর আগের ঘটনাটাই আসল৷ হঠাৎ তাঁর কোলেস্টেরল খুব বেশি এবং ডায়াবেটিস আছে জেনে বড় ভাবনায় পড়েছিলেন৷ ভাবনা দূর করতেই বেছে নেন অদ্ভুত এক খাদ্যতালিকা৷

Model mit Gitarre und Verstärker

ব্যায়াম না করেও মেদ কমানো যায়!

সহজ নিয়ম৷ পাঁচ দিন ভরপেট খেয়ে যান, বাকি দু'দিন শুধু কম খাওয়া৷ কম বলতে প্রায় না খাওয়ার মতোই৷ মাত্র ৬০০ ক্যালরি খেলেই হবে দিনের কোনো এক সময়ে৷ বাকি পাঁচদিন কার্বোহাইড্রেট, গরুর মাংশ, খাশির মাংশ কিছুতেই মানা নেই৷ অবাক কাণ্ড, এ নিয়মে চলেই মোসলে দেখলেন তিন মাসে তাঁর ৮ কেজি ওজন কমেছে, ব্লাড সুগারও একেবারে নিয়ন্ত্রণে!

সেই নিয়মের কথাই মোসলে জানিয়েছিলেন ‘ইট, ফাস্ট, লিভ লঙ্গার' অনুষ্ঠানে৷ তারপর অনুষ্ঠান এত জনপ্রিয় হলো যে একটা পর্যায়ে ‘দ্য ফাস্ট ডায়েট' নামে একটা বই লিখে ফেললেন৷ লেখায় তাঁকে সহায়তা করেছেন সাংবাদিক মিমি স্পেন্সার৷ কাটতি কেমন তা তো বলাই হয়েছে৷ মেদ নিয়ে, হৃদরোগ, উচ্চ রক্তচাপ এবং ডায়াবেটিস নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলে বইটি পড়ে নেমে পড়ুন চিন্তা দূর করার কাজে৷

এসিবি/ডিজি (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন