1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ম্যালেরিয়ার ওষুধের কার্যকারিতা বিনষ্ট হওয়ায় উদ্বেগ

ম্যালেরিয়া রোগের ওষুধ আর্টেমিসিনিনকে রুখে দাঁড়াচ্ছে রোগটির জীবাণু৷ শুধু রুখে দাঁড়ানোই নয় এমনকি এই ওষুধের কার্যকারিতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার হার দ্রুত বেড়ে চলেছে বলে এবার সতর্ক করে দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা৷

default

যে কোন রোগ প্রতিরোধ এবং নিরাময়ে ওষুধ আবিষ্কারে অনবরত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা৷ আবিষ্কারও করে চলেছেন নানা জটিল রোগের ওষুধ-পত্র৷ কিন্তু বিজ্ঞানীদের সাথে যেন পাল্লা দিয়ে প্রতিযোগিতা চালিয়ে যাচ্ছে রোগ-বালাইয়ের জীবাণুরাও৷ একটি রোগের প্রতিষেধক কিংবা ওষুধ আবিষ্কার করার পর কিছুদিন সেটি কার্যকর থাকলেও সেসব ওষুধের বিরুদ্ধে আবারও পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তুলছে জীবাণুর দল৷

কম্বোডিয়া-থাইল্যান্ড সীমান্তে ম্যালেরিয়া রোগের ওষুধের বিরুদ্ধে জীবাণুর প্রতিরোধের বিষয়টি ডাব্লিউএইচও প্রথম নিশ্চিত করে ২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে৷ তবে এবার ডাব্লিউএইচও'র বিজ্ঞানীরা নিশ্চিতভাবে জানালেন যে, জীবাণুদের এই প্রতিরোধের হার ক্রমান্বয়ে বেড়ে চলেছে৷ এছাড়া এই প্রবণতা এখন সংক্রমিত হয়ে মিয়ানমার-থাইল্যান্ড সীমান্তেও ছড়িয়ে পড়েছে৷

এমনকি মিয়ানমার-থাইল্যান্ড সীমান্ত এলাকায় ১০ থেকে ২০ শতাংশ রোগীর দেহেই কার্যকর হচ্ছে না আর্টেমিসিনিন সমন্বিত চিকিৎসা৷ ওষুধের অকার্যকারিতার লক্ষণ ভিয়েতনামের একটি প্রদেশেও ধরা পড়েছে৷ এছাড়া এই প্রবণতা আফ্রিকা পর্যন্ত ছড়িয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন বিজ্ঞানীরা৷ তাই ম্যালেরিয়ার ওষুধের অকার্যকর হয়ে পড়ার এমন বিষয়ের দিকে তীব্র দৃষ্টি রাখতে হবে বলে সুপারিশ করেছে ডাব্লিউএইচও৷

সংস্থাটির আরো উদ্বেগের কারণ হলো ম্যালেরিয়ার ঝুঁকি প্রবণ দেশগুলোর ৩৪ শতাংশই নাকি ওষুধের ফলপ্রসূতার দিকে তেমন গভীরভাবে নজর রাখছে না৷ অথচ সংস্থাটির মতে, বিশ্বের অর্ধেক জনগোষ্ঠীই ম্যালেরিয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে৷ আর এই রোগে প্রতি বছর প্রাণ হারায় প্রায় আট লাখ ষাট হাজার মানুষ৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়