1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ম্যাঙ্গালোরে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান দুর্ঘটনায় মৃত ১৫৮

শনিবার ভারতীয় সময় সকাল ছটা নাগাদ দক্ষিণী কর্নাটক রাজ্যের ম্যাঙ্গালোর বিমান বন্দরে নামার সময় এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমান রানওয়ের বাইরে কাছের জঙ্গলে ধাক্কা খেলে, তাতে সঙ্গে সঙ্গে আগুণ ধরে যায়৷ জীবন্ত পুড়ে মারা যান ১৫৯ জন৷

default

এখনো পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ১৫৯ জন

এয়ার ইন্ডিয়ার বোয়িং ৭৩৭-৮০০ বিমানটি দুবাই থেকে আসছিল ১৬৬ জন যাত্রি ও বিমান কর্মী নিয়ে৷ নব নির্মিত ম্যাঙ্গালোর বিমানবন্দরে নামার সময় বিমানটি রানওয়ের বাইরে চলে গিয়ে অদূরের জঙ্গলে ধাক্কা খায় এবং সঙ্গে সঙ্গেই তাতে আগুণ ধরে যায়৷ বাকি সকলে জীবন্ত পুড়ে মারা গেলেও, প্রাণে বেচেঁ যান অন্তত সাতজন৷

মৃতদের মধ্যে এ পর্যন্ত ১৪৬ জনের দগ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান এয়ার ইন্ডিয়ার অধিকর্তা অনুপ শ্রীবাস্তভা৷ এঁদের মধ্যে আছেন উড়াল কম্যান্ডারের মৃতদেহটিও৷ অবশ্য এই ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনার সম্ভাব্য কারণ সম্পর্কে কিছু বলতে অস্বীকার করেন তিনি৷ বলেন, ‘পুরো বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষ৷ তবে মৃতদেহগুলি এমনভাবে পুড়ে গেছে যে তাঁদের চেনার উপায় নেই৷' বিমানবন্দর কতৃ্পক্ষের চেয়ারম্যান ভি.পি আগরওয়াল জানান যে, শনিবার সকালে বৃষ্টি পড়লেও, রানওয়ের দৃশ্যমানতা কম ছিলনা৷ কোনরকম ত্রুটি ছিলনা রাণওয়ের সেফটি চেকেও৷ এছাড়া, পাইলটের কাছ থেকে কোনরকম বিপদ সঙ্কেতও পাওয়া যায়নি৷

Flugzeugabsturz in Indien Flash-Galerie

গত এক দশকে এটাই ভারতের দ্বিতীয় বড় বিমান দুর্ঘটনা

অভিশপ্ত ঐ বিমানের পাইলট ছিলেন সার্বিয়ার নাগরিক৷ সম্প্রতি ভারত সরকার বিদেশি পাইলটদের ভারতের বিভিন্ন এয়ারলাইনসে কাজ করার ছাড়পত্র দিয়েছিল৷ বর্তমানে ৫৬০ জন বিদেশি পাইলট ভারতে কাজ করছেন৷ কিন্ত প্রশ্ন উঠেছে, বিদেশি পাইলটদের ভারতের ভূ-প্রকৃতি জ্ঞান সম্পর্কে৷ উচ্চারণের অসুবিধার কারণে তাঁরা নির্দ্দেশও ঠিকমত বুঝতে পারেন না অনেক সময়৷

সে যাই হোক, বর্তমানে উদ্ধার ও ত্রাণের কাজ চলেছে যুদ্ধকালীন তত্পরতায়৷ ২৫টি দমকল ও অ্যাম্বুলেন্স ছুটে গেছে ইতিমধ্যেই৷ দুর্ঘটনাস্থল ঘিরে রাখা হয়েছে৷ বন্ধ রাখা হয়েছে ম্যাঙ্গালোর বিমানবন্দর৷ উদ্ধার কাজে হাত লাগিয়েছে ৬০০ আধাসামরিক বাহিনী ও ডাক্তাররা৷ জীবিতদের স্থানান্তরিত করা হয়েছে হাসপাতালে৷ এছাড়া, খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে গেছেন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বি.এস ইয়ারাদুপ্পা এবং অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী প্রফুল্ল প্যাটেল৷ দুর্ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং, ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধী এবং বিজেপি নেতারাও৷

উল্লেখ্য, গত এক দশকে এটাই ভারতের দ্বিতীয় বড় বিমান দুর্ঘটনা৷ ২০০০ সালে পাটনায় এয়ার ইন্ডিয়ার শাখা অ্যালায়েন্স বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায় ৬১ জন৷ তার আগে ১৯৯৬-এ দিল্লির আকাশে দুটি যাত্রি বিমানের সংঘর্ষে নিহত হয় ৩৪৯ জন৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়