1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মোদীর সঙ্গে ‘সেলফি' তুলতে চলে যান লন্ডনে

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী হিন্দুত্ববাদের ঝান্ডা নিয়ে ঘুরলেও, এ মুহূর্তে বিশ্ব রাজনীতিতে তাঁর গুরুত্বকে অস্বীকার করার উপায় নেই৷ আর তাই তো মাদাম তুসোর জাদুঘরেও এবার দেখা যাবে মোদীকে, থুড়ি মোদীর মোমের পুতুলটাকে৷

আর তেমনটা হলে, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সেলফি তোলার জন্য আপনার আর ‘অ্যাপয়েন্টমেন্ট'-এর দরকার পড়বে না৷ কেন? আরে লন্ডনের একটা টিকিট কাটলেই যে আপনি পৌঁছে যাবেন তাঁর কাছে৷ হোক, না মোমের মূর্তি, তবু মোদী তো!

মহাভারতে আছে, শ্রীকৃষ্ণ বিশ্বরূপ দর্শন করিয়েছিলেন অর্জুনকে৷ কিন্তু এই ঘোর কলিতে মোদী কিন্তু আমাদের কম রূপ দেখাননি! ‘স্বচ্ছ ভারত', ‘নেশামুক্ত ভারত' গড়ার ডাক দেয়ার পর, রামরাজ্যের এই রামকে আমরা দেখেছি ‘বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও' আন্দোলনে৷ দেখেছি এভাবে অগুন্তি ভারতবাসীর মন জয় করতে৷ রাশিয়া, ইরান, চীন, ইটালি, এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গেও আজ তাঁর সম্পর্ক বেশ খাতিরের৷

তাছাড়া সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মোদী বেজায় সরব৷ সেখানে তাঁকে নিয়ে আলাপ-আলোচনা, প্রশংসা যেন শেষই হতে চায় না৷

তার ওপর মোদী যে সেলফি তুলতে ভালবাসেন, সেটাও আজ আর কারুর জানতে বাকি নেই৷ তাই ফেসবুক-টুইটারে মোদীর নামের সঙ্গে নিজের নাম জুড়লে যে মিউজিয়াম কর্তৃপক্ষেরই লাভ!

জানা গেছে, আগামী এপ্রিল মাসেই সেই মিউজিয়ামে মোদীর মূর্তি উন্মোচন করা হবে৷ ইতিমধ্যে মাদাম তুসোর জাদুঘরের একটি প্রতিনিধি দল নতুন দিল্লিতে পৌঁছেও গেছে৷ শুরু হয়ে গেছে মূর্তি বানাতে মোদীর দাঁত, হাত, চুল, চোখ, উচ্চতার মাপজোক করা৷

খোদ মোদীর কথায়, ‘‘আমি চুপচাপ বসে খেয়াল করছিলাম দলের সদস্যরা কীভাবে কাজ করছেন৷ আমি সত্যিই তাঁদের কাজের প্রতি নিষ্ঠা, দক্ষতা ও পেশাদারিত্ব দেখে অভিভূত৷''

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই মূর্তি এমনভাবে তৈরি করা হচ্ছে যাতে দর্শকরা মোদীর সঙ্গে ‘কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়াতে পারেন'৷ আর ইচ্ছে থাকলে তুলতে পারেন সেলফিও৷ কি, এবার যাবেন নাকি একবার লন্ডনে?

ডিজি/এসি

নির্বাচিত প্রতিবেদন