1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

মোটা মানুষের দেশ টোঙ্গায় স্বাস্থ্য নিয়ে দুশ্চিন্তা

প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের মানুষের মুটিয়ে যাওয়ার ব্যাপারটি যেন ছড়িয়ে পড়ছে মহামারীর মতো৷ প্রচুর পরিমাণে মাংস খেয়ে সবাই নাদুসনুদুস৷

default

বিশেষ করে দ্বীপরাষ্ট্র টোঙ্গাতে অতিরিক্ত মাংস খাওয়ার জন্যে মানুষের মধ্যে বাড়ছে অতিরিক্ত ওজনের জন্যে ডায়াবেটিস এবং স্ট্রোক৷

টোঙ্গার সুপার মার্কেটগুলোতে ঢুকলে দেখা যাবে তাকের ওপরে থরে থরে সাজানো রয়েছে অসংখ্য গরুর মাংসের ক্যান৷ সাথে হয়তো রয়েছে ভুট্টা, যব বা অন্য যে কোন উদ্ভিদের সংমিশ্রণ৷ বহু আগে ঐসব তাকেই সাজানো থাকতো ঐতিহ্যবাহী মাছ অথবা নারকেল৷ তারই জায়গা দখল করে নিয়েছে গরুর মাংস, টার্কি ব্রেস্ট, মিট লোফ, লাঞ্চন মিট অথবা স্প্যাম৷

বিভিন্নরকমভাবে এই সমস্ত মাংস মানুষকে প্রলুব্ধ করে৷ কোনটা স্মোকড, কোনটা মরিচ দেওয়া আবার কোনটা পনীর অথবা অতিরিক্ত ক্যালরি সমৃদ্ধ৷ তাহলে ঐ সব অঞ্চলের মানুষের স্বাস্থ্য ভালো হবে না কেন৷ শুধুই কি আর ভালো, একটু বেশিই ভালো আর কি!

ক্যানের ঐসব লবণ দেওয়া মাংসে চর্বি পুরোটা থেকেই যায়, যার ফলে লোকজনেরও ফুলে যাওয়া রোধ করা যাচ্ছে না৷ বেড়ে চলেছে ওজন৷ টোঙ্গার প্রধান চিকিৎসক মালাকায় আকে বললেন, প্রতিদিনই চলছে কারো না কারো শেষকৃত্য – হয় পাশের বাসার, না হয় আত্মীয়ের অথবা বন্ধুর৷ ডায়াবেটিস অথবা হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে প্রাণ হারাচ্ছেন সবাই৷ এ এক আশ্চর্য ব্যাপার৷

টোঙ্গার স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, দেশে মোট জনসংখ্যার শতকরা ৯০ ভাগ অতিরিক্ত ওজনের মানুষ আর শতকরা ৬০ ভাগ স্থূলকায় অথবা যাকে বলা হয়ে থাকে ভীষণ মোটা৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ডব্লিউ এইচ ও-র গত বছরে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বের যে দশটি দেশে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক অতিরিক্ত ওজনের পুরুষ রয়েছে, তারমধ্যে ৮টি দেশই প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে অবস্থিত৷

ফিজি ভিত্তিক ডব্লিউ এইচ ও-র পুষ্টি বিশেষজ্ঞ টেমো ওয়াকানিভালু বলেছেন, ঐ অঞ্চলে ওজন সম্পর্কিত বিভিন্ন রোগই চারভাগের তিনভাগ মৃত্যুর জন্যে দায়ী৷ তিনি বলেন, এটি এমন একটি সমস্যা, যা নিয়ে কাজ করতে স্বাস্থ্য বিভাগ হিমশিম খেয়ে যাচ্ছে৷ তিনি বলেন, প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের যেকোন দেশের একটি হাসপাতালে ঢুকলেই দেখা যাবে, শতকরা ৭৫ থেকে ৮০ ভাগ অস্ত্রোপচারই করা হচ্ছে স্থূলকায় অবস্থার সঙ্গে জড়িত চলাচল করতে না পারার সমস্যাজনিত কারণে৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়