1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘মেয়েরা মন্দিরে গেলে ধর্ষণ বাড়বে’, দাবি হিন্দু মৌলবাদীর

মেয়েদের মন্দিরের ভেতরে প্রবেশ করতে দিলে ধর্ষণ বাড়বে৷ কারণ, মন্দিরে গেলে তাদের ওপর নাকি শনি দেবের কুনজর পড়বে৷ হ্যাঁ, এমনটা দাবি করেই তুমুল বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন হিন্দুদের ধর্মীয়গুরু শঙ্করাচার্য স্বরূপানন্দ সরস্বতী৷

মহারাষ্ট্রের শনি শিঙ্গনাপুর মন্দিরে মেয়েদের প্রবেশের খবরে যারা উচ্ছ্বসিত, তাদের আনন্দে এবার জল ঢাললেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের এক ধর্মীয় নেতা স্বরূপানন্দ শঙ্করাচার্য৷ তাঁর দাবি, শনির মন্দিরে প্রবেশের কারণে মহিলাদের প্রতি অপরাধ, ধর্ষণের সংখ্যা বাড়বে৷ হরিদ্বার সফররত এই নেতা সোমবার গণমাধ্যমকে বলেন এ কথা৷



হিন্দু ধর্মে বিশ্বাস করা হয়, মেয়েরা শনি দেবতার মন্দিরে ঢুকলে শনি বিগ্রহের বেদী থেকে এক অশুভ কম্পন ওঠে, যা সংসার ও সমাজের ক্ষতি ডেকে আনে৷ কারণ শাস্ত্র মতে শনি দেবতা অশুভ শক্তির প্রতীক, এমনটাই নাকি সংস্কার৷

তবে ধর্মীয় এই সংস্কার আদালতে বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে না৷ বরং মুম্বইয়ের হাইকোর্ট নারী-পুরুষের সমান অধিকারের পক্ষে মত দিয়েছেন৷ এরপর মহারাষ্ট্রের শনি শিঙ্গনাপুর মন্দিরের ভেতরে শনিবার মেয়েরা প্রবেশের সুযোগও পায়৷ অবসান ঘটে চার’শ বছরের নিষেধাজ্ঞার৷ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে এই নিয়ে মন্তব্য করেছেন অনেকে৷





তাই শঙ্করাচার্য যাই বলুক না কেন, মেয়েদের মন্দিরে প্রবেশের অধিকারকে আমলে নিয়েছে আরো একটি মন্দির৷ সোমবার কোলাপুর মহালক্ষ্মী মন্দিরেও কয়েক নারীকে প্রবেশের সুযোগ দেয়া হয়৷ যদিও তার পর পরই মন্দির কর্তৃপক্ষ জানায় যে, নারীদের প্রবেশ সেখানে নিষিদ্ধই থাকবে৷

ভারতের নারীবাদীরা অবশ্য থেমে নেই৷ বুধবার নাকি সেই মন্দিরে ঢোকার জন্য কোমর বেঁধেছেন প্রায় দু’শ নারী অ্যাক্টিভিস্ট, এমনটাই আভাস পাওয়া যাচ্ছে ভারতীয় গণমাধ্যমে৷

মন্দিরে ঢুকলে মেয়েরা ধর্ষিত হবেন – এ কথা কি মানেন? জানান আপনার মন্তব্য, নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন