1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

মেয়েদের মন ভোলেতে কথা বলতে হবে সরাসরি : সাইফ

নারী পুরুষের দীর্ঘ সফল সম্পর্কের চাবিকাঠি কি ? বলিউড অভিনেতা সাইফ আলী খান মনে করেন, আগে যোগ্য এক সঙ্গিনী খুঁজে পেতে হবে৷ এবং তাকে নিজের অনুভূতির কথা সরাসরি জানিয়ে দিতে হবে অকপটে৷

default

অভিনেতা সাইফ আলী খান

বলিউডের ছোট নবাব মনে করেন, কোন সম্পর্ক দীর্ঘ সময়ের জন্য ধরে রাখার প্রথম এবং একমাত্র শর্ত - সঙ্গী হিসেবে যে মানুষটিকে বাছাই করবেন, সে যেন নিজের মনের মতো হয়৷ সাইফ-এর মতে, সম্পর্কের অনেকগুলো ধাপ আছে৷ আর তা পরিবর্তনশীল৷ তাছাড়া, একের পর এক ধাপ পেরোতে পারলেই সম্পর্ক তার গভীরতা পায়৷ জি কিউ ম্যাগাজিনকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে এ কথাই বলেন সাইফ আলী খান৷

সাইফ বলেন, অনেক সময় স্বাভাবিকভাবে আমরা যা করে অভ্যস্ত না, মনের মতো সঙ্গীটিকে ভোলানোর জন্য তাও করতে হয় আমাদের৷ তাকে দেখাতে হয় যে, তার সম্পর্কে কতোটা মনোযোগী আমরা৷ ৩৯ বছর বয়সি এই অভিনেতা বলেন, একজন নারীর দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য শুধুমাত্র যে চেহারা থাকতে হবে - সে কথা ঠিক নয়৷ তিনি বলেন, ‘‘আমার উচ্চতা বেশি নয়, আর বুকের ছাতিও চওড়া নয় তেমন৷ কিন্তু, আমার কথাবার্তার মধ্যে যে কৌতুক লুকিয়ে থাকে, তার জন্যই মেয়েরা আমার সঙ্গে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে৷''

Filmplakat zum Film Kurbaan

‘কুরবান’ ছবিতে অভিনেত্রী কারিনা কাপুরের সঙ্গে সাইফ

তাই সাইফ-এর কথায়, ‘‘আপনার প্রিয় মানুষটির সাথে সরাসরি কথা বলুন৷ তাকে জানান তার প্রতি আপনার অনুভিতিগুলো৷ অবশ্য সেই কথাগুলো হতে হবে শালীন৷ আর সবকিছুই নির্ভর করবে আপনার অবস্থান, তথা আপনি কার সঙ্গে কথা বলছেন তার ওপর''৷

সাইফ অবশ্য মনে করেন, কিছু কিছু সময় একাকিত্বও কাজে আসে৷ তিনি বলেন, ‘‘একা থাকাটা কারও সাথে থাকার থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন৷ আর সেই সময়টাকে কাজে লাগানো যায় নানা ভাবে৷ নিজের সম্পর্কে জানা, চিন্তাভাবনা করার সময় ওটা৷ তাছাড়া, অনেক ক্ষেত্রেই নিজের ইচ্ছে সম্পর্কে মানুষ নিশ্চিত থাকে না৷ তাই একা লাগলেও, ঐ সময়টাকে জীবনের একটি অংশ হিসেবে দেখতে হবে, উপভোগ করতে হবে৷''

প্রসঙ্গত, প্রথমে অভিনেত্রী অমৃতা সিং-এর সঙ্গে বিয়ে এবং পরে ইটালির মেয়ে রোসা কাটালানোর সঙ্গে প্রেম ঘটিত সম্পর্কের পর, বলিউডের এই খ্যাতনামা তারকা বর্তমানে অভিনেত্রী কারিনা কাপুরের সঙ্গে প্রণয়ে জড়িয়েছেন৷

প্রতিবেদন : আসফারা হক
সম্পাদনা : আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়