1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

মেসির গোল খরা কাটানোর সুযোগ আজ

এবারের বিশ্বকাপে যে কয়জন খেলোয়াড় তারকা হিসেবে এসেছেন তার মধ্যে এক নম্বরে রয়েছেন আর্জেন্টিনার লিওনেল মেসি৷ কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত মেসি তাঁর দলকে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিয়ে এসেছেন, তবে এখন পর্যন্ত কোন গোল পাননি৷

default

দ্বিতীয় রাউন্ডে মেক্সিকোর বিরুদ্ধে মেসি

চলতি মৌসুমে স্প্যানিশ প্রিমেরা লীগের দল বার্সেলোনার হয়ে ৪৭ টি গোল করেছেন এই প্লে মেকার৷ বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার গত চারটি ম্যাচে গোলপোস্ট লক্ষ্য করে মেসি মোট ১৩টি শট নিয়েছেন৷ তবে দুর্ভাগ্যের বিষয় হল সেগুলো হয় বার ঘেঁষে চলে গিয়েছে নয়তো গোলরক্ষক দুর্দান্তভাবে সেগুলো সেভ করেছেন৷ তাই এখন পর্যন্ত গোল তালিকায় নাম উঠাতে পারেননি এই স্ট্রাইকার৷ তবে আজকের জার্মানির বিরুদ্ধে ম্যাচে গোল খরা কাটাতে পারবেন মেসি, এই আশা করছেন ভক্তরা৷ তবে গোল না পেলেও আর্জেন্টিনার জয়ের পেছনে যে তাঁর মূল ভূমিকা রয়েছে সেটা সকলেই স্বীকার করবেন৷ আজ জার্মানির রক্ষণভাগের সতর্ক দৃষ্টি থাকবে এই খেলোয়াড়ের ওপর৷ তবে আর্জেন্টিনাকে জার্মানির বিরুদ্ধে জিততে হলে মেসি নির্ভরতা থেকে সরে আসতে হবে, এমনটি মনে করছেন বাংলাদেশের জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক জুয়েল রানা৷ আজকের ম্যাচ সম্পর্কে এক বিশ্লেষণে জুয়েল রানা বলেন, আর্জেন্টিনার প্রায় সবগুলো আক্রমণের উৎসভাগ হলো মেসি৷ কিন্তু তাঁর ওপর এখন বিপক্ষের নজর থাকবে সবচেয়ে বেশি৷ তাই তেভেজ সহ বাকি যারা রয়েছে তাঁদের দায়িত্ব তুলে নিতে হবে৷

Deutschland Ghana WM Fußball Weltmeisterschaft Mesut Özil

জার্মান মধ্যমাঠের মধ্যমণি এখন মেসুট ওজিল

জার্মানির পারফরমেন্স সম্পর্কে জুয়েল রানা বলেন, এখন পর্যন্ত জার্মানি যা খেলেছে তাতে আমার ভালো মনে হয়েছে৷ বিশেষ করে বালাক বিহীন জার্মানি কতটুকু ভালো করবে বলে যে সন্দেহ ছিল তা তারা দূর করে দিয়েছে৷ এছাড়া দলের প্রায় সকলেই গোল পাচ্ছে৷ এটা একটা দারুণ ব্যাপার৷ তাছাড়া তাঁদের ডিফেন্সও অনেক ভালো মনে হয়েছে৷ কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ব্রাজিলের বিদায়ের কারণে সবগুলো দলই এখন বাড়তি সতর্ক বলে মনে করছেন জুয়েল রানা৷ যে কোন সময় অঘটন ঘটে যেতে পারে৷

এদিকে কোয়ার্টার ফাইনালের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে ল্যাটিন আমেরিকার প্যারাগুয়ে ও ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন স্পেন৷ এবারের বিশ্বকাপের শুরুটা হয়েছিল হারের মধ্য দিয়ে, কিন্তু এরপর থেকে ক্রমেই যেন ছন্দ ফিরে পাচ্ছে স্প্যানিশরা৷ আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল কিংবা অন্য দলগুলোর সঙ্গে তাঁদের পার্থক্য হলো আক্রমণভাগ, মধ্যমাঠ এবং রক্ষণভাগ সবদিকেই স্পেন অত্যন্ত ব্যালান্সড৷ তার ওপর গোলপোস্টে ক্যাসিয়াস থাকায় একটি বাড়তি মানসিক ভরসা রয়েছে গোটা দলের৷ কোন নির্দিষ্ট খেলোয়াড়ের জন্য নয় বরং পুরো দল হিসেবে স্পেনকে অত্যন্ত শক্তিশালী ধরা হয়৷ দলটির মূল শক্তি আসলে এখানেই৷ অন্যদিকে প্যারাগুয়ের সবচেয়ে বড় ভরসা তাদের গোছানো রক্ষণভাগ৷ আজকের ম্যাচে মূলত লড়াইটা হবে স্পেনের ফরোয়ার্ডদের সঙ্গে প্যারাগুয়ের ডিফেন্সের৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম, সম্পাদনা: জাহিদুল হক

সংশ্লিষ্ট বিষয়