1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘মেসির গোলের সঙ্গে সঙ্গে দিতে হবে তালি’

পুরো বিশ্ব এখন বিশ্বকাপ জ্বরে কাঁপছে৷ আর এই উত্তাপের ছোঁয়া বাঙালিদের মধ্যে যেন একটু বেশি করেই লেগেছে৷ বাংলাদেশের অংশগ্রহণ না থাকলেও, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বন্দ্ব উঠেছে তুঙ্গে৷ ব্লগওয়াচ তাই এ সব নিয়েই৷

মঙ্গলবার রাত ১০টায় আর্জেন্টিনা মুখোমুখি হবে সুইজারল্যান্ডের৷ এই ম্যাচকে ঘিরে আবারো দ্বন্দ্বে লিপ্ত দুই দলের সমর্থকরা৷ বাংলাদেশে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা দলের সমর্থকদের আনুষ্ঠানিক ফেসবুক পাতা রয়েছে৷ সেই পাতায় লেখা হয়েছে, ‘‘আমাদের চার গোল করতে ফ্যান্টাস্টিক ফোর লাগে না৷ ফ্যান্টাস্টিক ফোর নিয়ে ৯২ মিনিটে গোল দিয়ে জিতিনা আমরা৷ আমরা ব্রাজিল, টিম নিয়ে খেলি৷ আমাদের লাগেনা ভল্কান গ্রহের প্লেয়ার৷ নেইমার যথেষ্ট, ভল্কান গ্রহের প্লেয়ার মেসি ৩ বিশ্বকাপ খেলে গোল মাত্র ৪টা, বস নেইমার অভিষেক বিশ্বকাপে মাত্র ৩ ম্যাচ খেলে গোল ৪টা৷ আর লাগে? এগিয়ে যাও ব্রাজিল, এগিয়ে যাও নেইমার, আমরা কোটি ভক্ত আছি তোমাদের সাথে, হেক্সা ইজ কামিং৷’’

এদিকে সামহয়্যার ইন ব্লগে সুমাইয়া বরকতউল্লাহ একটি কবিতা লিখেছেন:

‘‘আর্জেন্টিনার খেলা দেখেন আজ

গুছিয়ে রাখেন হাতের যত কাজ৷

একটুখানি কষ্ট করে

হাতটা রাখেন খালি

কারণ, মেসির গোলের সঙ্গে সঙ্গে

দিতে হবে তালি৷

ভক্তরা কই ব্রাজিল দলের

শক্ত হয়ে বসেন

মেসির খেলা দেখেই আজ

কাপ-এর হিসাব কষেন৷’’

আর্জেন্টিনার ভক্ত সাংবাদিক ওবায়দুল গনি চন্দন৷ তিনি তাঁর ফেসবুক পাতায় লিখেছেন, ‘‘আমি আর্জেন্টিনার সমর্থক হলেও চিলির সাথে ব্রাজিল হারলে ওয়ার্ল্ডকাপের মজা, গ্ল্যামার বা অন্যান্য আকর্ষণ নষ্ট হয়ে যেত সেটা হাড়ে হাড়েই টের পাই৷ কথা হচ্ছে টাইব্রেকারে নেইমারের পেনাল্টি কিক নিয়ে৷ ব্রাজিলের কোনো দশ নাম্বার প্লেয়ারের পেনাল্টি কিকে ‘খিরকিজ’ মেরে, মানে কিকের আগেই পা ঘুরানি দিয়ে যে কিক করলো এমন নজির পাইনি৷ এই রকম পেনাল্টি কিক করে কোন সভ্য প্লেয়ার?''

তিনি প্রশ্ন তুলেছেন নেইমারের অ্যাটিচ্যুড নিয়ে৷ লিখেছেন, ‘‘তার চুল দেখছেন, হাঁটা চলাফেরা, চালচলন? পুরাই মনে হয় বাসাবোর ওহাব কলোনীর বস্তিতে বড় হয়েছে৷ বস্তির পোলাপানের শিশুকালে ছয়টা টিকার সবগুলো বোধ হয় পড়ে না৷ নেইমারেরও কিছু একটা আছে, আর সেটা ছয়টি টিকার একটি দুটি না দেয়ার কারণেই৷

আর্জেন্টিনার ভক্ত হয়েছি ম্যারাডোনার কারণেই৷ তবে ম্যারাডোনাও কিন্তু বস্তিরই আচরণ করেছেন৷ আপনি চিন্তা করেন আর্জেন্টিনার বিপক্ষে হাতে গোল দিয়ে নেইমার যদি ওয়ার্ল্ডকাপ জেতে তাকে জীবনে মাফ করতে পারবেন? ম্যারাডোনা গোল দিয়েছেন হাতে৷ ইংল্যান্ডের মানুষ সারাজীবন ওই দুঃখ বইবে আর ওকে গাল আর অভিশাপ দেবে৷ হাতের গোল? সেটা চেপে যাওয়া উচিৎ ছিলো৷ সে স্টান্টবাজি ভালোই বোঝে৷ বললো ঈশ্বরের গোল৷ ভক্তরা কিছু না বললেও ইতিহাসের ক্ষমা না করাই উচিৎ৷’’

তিনি আরো লিখেছেন, ‘‘ম্যারাডোনার আরো বদনাম আছে, চেপে গেলাম৷ দুনিয়াতে বদমায়েশদের ভক্ত বেশি, ভালোদের কম৷ একমাত্র ব্যতিক্রম শুধু লিওনেল মেসি৷’’

ফেসবুক পাতায় আর্জেন্টিনার সমর্থক শওকত মঞ্জুর শান্ত লিখেছেন, ‘‘বিশ্বকাপের নকআউট পর্বের খেলায় যা দেখছি, তাতে বড় বড় সব দলের ছাল-বাকলা সব উঠে যাচ্ছে৷ ব্রাজিল, ফ্রান্স, জার্মানি সবারই একই অবস্থা৷ আর্জেন্টনিারও যে আজকে খবর আছে এটা বলাই যায়৷

আর্জেন্টিনার যে দুর্বল ডিফেন্স, তাতে হাফ হালি খাইয়া ফেলা খুবই স্বাভাবিক হবে৷ তবে মেসির কাছেই প্রত্যাশা, আর্জেন্টিনাকে যেন এগিয়ে রাখতে পারে৷’’

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়