1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ফ্রান্সের পরাজয়

মেক্সিকো বনাম ফ্রান্স৷ এবং ফ্রান্স হারল ২-০ গোলে৷ তবে এটাকে সুইজারল্যান্ডের কাছে স্পেনের হারের মতো অঘটন বলার কিংবা ভাবার কোনে কারণ নেই৷

default

মেক্সিকানরা যা খেলে, তা দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবলের স্বজাতি এবং স্বজ্ঞাতি৷ তায় এবার তারা একটা ঢালাও করা টীম, ফরাসিদের মতো একদল ভালো খেলোয়াড়ের সমষ্টি নয়৷ খেলায় মেক্সিকানদের ব্যাকপাস কি শর্ট পাস, বল কন্ট্রোল, যা কিছু দেখা গেল, তার কোনোটাই ব্রাজিলিয়ান কিংবা আর্জেন্টাইনদের চেয়ে খারাপ নয়৷ তাদের সমস্যা হল সেই চিরন্তনী: কোন ল্যাজে মারি তায় হায় রে৷ অর্থাৎ ফিনিশিং, মানে গোল করা৷

বৃহস্পতিবার পোলোকওয়ানে'র পিটার মোকাবা স্টেডিয়ামে ৬৪ মিনিটের মাথায় ক্যাপ্টেন রাফায়েল মার্কেজ'এর দেওয়া একটি তোল্লাই বল পায়ে নিয়ে ফরাসিদের অফসাইড ফাঁদ কেটে দৌড় দেন হাভিয়ের হের্নান্দেজ এবং ফরাসি গোলরক্ষক হুগো লরিস'এর পাশ কাটিয়ে বলটি গোলে ঢুকিয়ে দেন৷

WM Südafrika 2010 Frankreich vs Mexiko Flash-Galerie

অসহায় ফ্রান্স

৭৯ মিনিটের মাথায় ফরাসি ডিফেন্ডার এরিক আবিদাল'এর পেনাল্টি এরিয়ায় ফাউল থেকে ব্লাঙ্কো'র পেনাল্টি শটে মেক্সিকোর ২-০ গোলে জয়৷

ফরাসি তরফে একমাত্র চোখে পড়ার মতো খেলেছে ফ্লোরঁ মালুদা৷ ফ্রঙ্ক রিবেরি আপ্রাণ চেষ্টা করেছে, কিন্তু তা'তে শুধুমাত্র এই প্রমাণ হয়েছে যে, সে জিনেদিন জিদান নয়৷ এছাড়া ফরাসি কোচ রেমঁ দমেনেক একা নিকোলাস আনেলকা'কে স্ট্রাইকার করে এবং থিয়েরি অঁরি'কে শুরু থেকে শেষ অবধি বেঞ্চে বসিয়ে রেখে যে ঠিক কার উপর প্রতিশোধ নিলেন, সেটা বোধগম্য হল না৷

অপরদিকে মেক্সিকোর তরফে চোখে পড়ার মতো ছিল এক খুদে রোনাল্ডিনিও - অন্তত চেহারা দেখলে রোনাল্ডিনিও'র কথাই মনে পড়ে৷ নাম জোভানি ডস সান্টোস৷ ২১ বছর বয়স৷ খেলে তুরস্কের গালাটাসারাই'এর হয়ে৷ তবে বোধহয় বেশীদিন নয়৷ বিশ্বকাপের একটা মজাই হল, এটা যেন রাতে তারা ওঠা দেখার মতো৷ জি. ডস সান্টোস'কে আগামীতেও জ্বল জ্বল করতে দেখবেন৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়