1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

মৃগী রোগীর অস্ত্রোপচার আর ইচ্ছানির্ভর থাকছে না

চিকিৎসক শুধু অস্ত্রোপচার করার সুযোগ খোঁজেন – এ ধারণা বাংলাদেশসহ উপ-মহাদেশের প্রায় প্রতিটি দেশেই প্রতিষ্ঠিত৷ তবে দিন বদলের আভাস পাওয়া যাচ্ছে৷ আগামীতে জার্মানিতে মৃগী রোগীর অস্ত্রোপচার দরকার কিনা তা যন্ত্রই বলে দেবে৷

অস্ত্রোপচার করালে বড় একটা বিল রোগী বা তাঁর পরিজনদের হাতে ধরিয়ে দেয়া যায় আর এ কারণে ডাক্তাররা সবসময় অস্ত্রোপচার করার জন্য মুখিয়ে থাকেন – এ কথা শোনেননি এমন মানুষ বাংলাদেশে নেই বললেই চলে৷ স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় সন্তান জন্ম দেয়ার সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও অস্ত্রোপচার করা এবং তা করতে গিয়ে নানা দুর্ঘটনার খবর প্রায়ই শোনা যায়৷ উন্নত বিশ্বের অনেক দেশে চেষ্টাটা ঠিক উল্টো৷ সেখানে সার্জেনরা মনে করেন অস্ত্রোপচারের ঝুঁকি যত এড়ানো যায় ততই ভালো৷

Venezuela Hugo Chavez im Krankenhaus

অস্ত্রোপচার করানো দরকার কিনা তা আগেই বলে দেবে যন্দ্র

টাকা বেশি পাওয়া বা আদৌ না পাওয়ার বিষয়টি সেখানে খুব কম ক্ষেত্রেই বড় হয়ে ওঠে৷ রোগীর ঝুঁকি আর কষ্টটাই সেখানে প্রধান বিবেচ্য৷ সেই কথা ভেবেই জার্মানির বন বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল এবং কোলনের ম্যাক্স প্লাঙ্ক ইনস্টিটিউট উদ্ভাবন করেছে এমন এক যন্ত্র যা বলতে পারে রোগীর অস্ত্রোপচার সফল হবার সম্ভাবনা বেশি কিনা৷ গবেষকরা সংখ্যা গণনার যন্ত্রের ধারণা থেকে এমন এক কম্পিউটার তৈরি করেছেন যা দিব্যি এ প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিয়ে দেয়৷ ১০ জন রোগীর মধ্যে ৯ জনের বেলায় যন্ত্র একদম ঠিক অনুমান করে৷

তবে এখনো পর্যন্ত পরীক্ষাটা চালানো হয়েছে অস্ত্রোপচার হয়ে যাওয়া রোগীদের মধ্যে৷ তার মানে, যন্ত্র বলতে পেরেছে শুধু যাঁদের অস্ত্রোপচার করানো হয়েছে, অস্ত্রোপচার তাঁদের না করালে চলতো কিনা৷ সে কারণেই উদ্ভাবিত যন্ত্রটিকে এখনি শতভাগ সফল বলা যাচ্ছে না৷ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বন এপিলেপসি ক্লিনিকের পরিচালক ক্রিস্টিয়ান এলগার জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে আরো গবেষণা করা দরকার৷ অস্ত্রোপচার করানোর অপেক্ষায় আছেন এমন মৃগী রোগীদের মধ্যে যন্ত্রের কার্যকারিতা যাচাই করে দেখার আগে আসলে শেষ কথা বলতে চাইছেন না গবেষকরা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন