1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

মূল্যহ্রাস রুখতে আসরে নামছে ইসিবি

মূল্যবৃদ্ধি নয়, ডিফ্লেশন বা মূল্যহ্রাসের কারণে দুশ্চিন্তা দেখা দিয়েছে ইউরোজোন দেশগুলিতে৷ ব্যয় ও বিনিয়োগ কমে চলেছে৷ সুদের হারকে অস্ত্র করে তার মোকাবিলা করার ইঙ্গিত দিচ্ছে ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক৷

ডিফ্লেশন-এর মোকাবিলা করতে গত সপ্তাহ থেকেই ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আগামী পদক্ষেপ নিয়ে জল্পনা-কল্পনা চলছে৷ ইসিবি আগামী জুন মাসেই আরও হস্তক্ষেপ করবে বলে অনুমান করা হচ্ছে৷ অর্থাৎ দীর্ঘ সময় ধরে বর্তমান সুদের হার ০.২৫ শতাংশ থাকতে পারে – এমনকি আরও কমানো হতে পারে৷ ইসিবি প্রধান মারিও দ্রাগি নিজে এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন৷ আসলে অস্বাভাবিক মাত্রায় ধারাবাহিক মূল্যহ্রাসের ফলে বাজারে আশঙ্কা বাড়ছে৷ কারণ এমন অবস্থায় সাধারণ ক্রেতা ও বাণিজ্যিক সংস্থাগুলি আরও মূল্যহ্রাসের আশায় ব্যয় ও বিনিয়োগ কমাতে পারে৷ যার ফলে অর্থনীতি বড় ধাক্কা খাবে৷

এদিকে ইউরোপের ২১টি কেন্দ্রীয় ব্যাংক একযোগে জানিয়েছে যে, আগামী পাঁচ বছরে বড় আকারে সোনা বিক্রি করার কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই৷ শুধু তাই নয়, বাজারে অস্থিরতা এড়াতে তারা সোনার লেনদেনের ক্ষেত্রে পারস্পরিক সমন্বয় করে চলবে৷ উল্লেখ্য, এ ক্ষেত্রে বর্তমান চুক্তির মেয়াদ আগামী সেপ্টেম্বর মাসে শেষ হবে৷ নতুন চুক্তির মেয়াদ হবে ৫ বছর৷ উল্লেখ্য, সাধারণত কোনো কেন্দ্রীয় ব্যাংক তাদের সোনার ভাণ্ডার সম্পর্কে কোনো আগাম ইঙ্গিত বা নীতি প্রকাশ করে না৷

Porträt - Mario Draghi

ইসিবি প্রেসিডেন্ট মারিও দ্রাগি

ইউরো এলাকার সংকটগ্রস্ত দেশগুলির ধারাবাহিক উন্নতি অব্যাহত রয়েছে৷ তবে নানা রকম উদ্যোগ সত্ত্বেও ইটালি এ বছর বাজেট ঘাটতির ক্ষেত্রে ইউরো এলাকার নিয়ম লঙ্ঘন করতে চলেছে৷ এই অবস্থায় সে দেশ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার স্বার্থে এই নিয়ম শিথিল করার আহ্বান জানিয়েছে৷ প্রধানমন্ত্রী মাটেও রেনসি বলেছেন, যে সব দেশ সংস্কার চালিয়ে যাচ্ছে, তাদের ক্ষেত্রে কিছুটা ছাড় দেওয়া হোক৷ ইউরোপীয় কমিশন অবশ্য এমন কোনো ব্যতিক্রম মানতে নারাজ৷ এদিকে পর্তুগাল গত রবিবারই বেলআউট কাঠামো ছেড়ে বেরিয়ে এসেছে৷ গ্রিসে স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচনে বামপন্থি দলকে সমর্থনের মাধ্যমে সরকারি নীতির বিরোধিতা করেছে জনগণ৷ রেটিং এজেন্সি মুডিস আয়ারল্যান্ডের রেটিং বাড়িয়ে দিয়েছে৷

চলতি সপ্তাহের শুরুতে ইউরোপের পুঁজিবাজার কিছুটা ধাক্কা খেয়েছে৷ এর একটি কারণ ফার্মাসিউটিক্যালস ক্ষেত্রে একটি অধিগ্রহণ বানচাল হয়ে যাওয়া৷ ডয়চে ব্যাংক তার মূলধন বাড়ানোর ঘোষণার পর তাদের শেয়ারের মূল্য পড়ে গেছে৷ ইউরোর বিনিময় মূল্য অবশ্য কিছুটা বেড়ে গেছে৷ ইউক্রেনকে ঘিরে পরিস্থিতি আপাতত শান্ত থাকায় রাজনৈতিক কোনো ঘটনা পুঁজিবাজারের উপর প্রভাব ফেলছে না৷

এসবি/ডিজি (ডিপিএ, রয়টার্স, এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন