1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মুসলিম ব্রাদারহুডের শীর্ষ নেতা গ্রেপ্তার

মিশরে মুসলিম ব্রাদারহুডের শীর্ষনেতা মোহাম্মদ বাদিয়েকে রাজধানী কায়রো থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ এ খবর নিশ্চিত করেছে মিশর সরকার৷ এদিকে, সিনাইতে পুলিশকর্মীর নিহত হওয়ার ঘটনায় দেশজুড়ে রাষ্ট্রিয় শোক ঘোষণা করেছে সরকার৷

মঙ্গলবার সকালে মিশরের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে লুকিয়ে থাকার স্থানটি জানার পর মুসলিম ব্রাদারহুড নেতা বাদিয়েকে গ্রেপ্তার করেছে নিরাপত্তাবাহিনী৷ নাসার সিটির একটি অ্যাপার্টমেন্টে পাওয়া যায় তাঁকে৷ গত সপ্তাহে এই এলাকাটিতেই এক রক্তক্ষয়ী অভিযানে মুরসি সমর্থকদের উচ্ছেদ করে নিরাপত্তাবাহিনী৷ বাদিয়ের বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক সহিংসতায় উসকানি দেয়া এবং গত জুনে মুসলিম ব্রাদারহুডের সদর দপ্তরের সামনে আটজন ব্রাদারহুডবিরোধী প্রতিবাদকারীকে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে৷ এ মাসের শেষেই তাঁকে আদালতে হাজির করার কথা৷

শুক্রবার বিক্ষোভকারী ও নিরাপত্তাকর্মীদের সংঘর্ষে নিহত হন বাদিয়ের ৩৮ বছর বয়সি ছেলে৷ ব্রাদারহুডের শীর্ষ অনেক নেতাকেই এখন পর্যন্ত আটক করা হয়েছে, চলছে তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ৷ এদিকে, সোমবার ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে আরো ১৫ দিন আটক রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত৷

মুক্ত হচ্ছেন মুবারক

ওদিকে সাবেক প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারক তাঁর বিরুদ্ধে আনা একটি অভিযোগ থেকে মুক্ত হওয়ায়, খুব শিগগিরই তিনি মুক্তি পাচ্ছেন বলে জানিয়েছে আদালত৷ সোমবার মুবারকের আইনজীবী সংবাদমাধ্যমকে এ কথা জানান৷

রাষ্ট্রীয় শোক দিবস

গাজা সীমান্তবর্তী সিনাই প্রদেশে ২৫ পুলিশ সদস্যের নিহত হওয়ার ঘটনায় সোমবার একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছেন মিশরের অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট আদলে মনসুর৷ ইসলামি জঙ্গিরা ঐ হামলা চালিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ তবে এখনও পর্যন্ত কেউ এ ঘটনার দায় স্বীকার করেনি৷ অন্যদিকে, রোববার কায়রোতে একটি প্রিজন ভ্যানে মুসলিম ব্রাদারহুডের সদস্যদের নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের গুলিতে তাঁরা নিহত হন বলে জানা গেছে৷ তবে কর্তৃপক্ষের দাবি, বন্দিরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ গুলি চালাতে বাধ্য হয়৷ এ ঘটনায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাঁরা৷

Ägypten Kairo Gewalt Ausschreitung Zerstörung Muslimbrüder

মুসলিম ব্রাদারহুডের সকল দাবি অগ্রাহ্য করে ক্রমশ কঠিনতর অবস্থান নিচ্ছে অন্তর্বর্তিকালীন সরকার

বর্তমান পরিস্থিতি উদ্বেগজনক: ম্যার্কেল

মঙ্গলবার একটি পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা ম্যার্কেল বলেছেন, মিশরের বর্তমান পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক৷ তবে সেখানে খুব শিগগিরই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হবে এবং সব রাজনৈতিক শক্তি তাদের এ কাজে সহায়তা করবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি৷ অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধের এবং ঐ অঞ্চলে স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে মিশরের সব দলের প্রতি আহ্বান জানান ম্যার্কেল৷ প্রসঙ্গত, এরই মধ্যে মিশরে অস্ত্র সরবরাহ বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ম্যার্কেল৷

জরুরি বৈঠকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

মিশর পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে আগামীকাল বুধবার একটি জরুরি বৈঠকে বসবে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা৷ মিশরে অস্ত্র সরবরাহ, অর্থ সহায়তাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এতে আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে৷

গত সপ্তাহে ব্যাপক সহিংসতার পর মিশরে জরুরি অবস্থা এবং রাতের বেলা কারফিউ বহাল আছে৷ গত বুধবার থেকে এ পর্যন্ত মিশরে প্রায় নয়শ মানুষ নিহত হয়৷ এর বেশিরভাগই মুরসি সমর্থক৷

এপিবি/ডিজি (এএফপি, এপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন