1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘মুসলমান বলেই আমাদের জঙ্গি সন্দেহ করা হয়'

আল-কায়দার ইন্ধনে ইউরোপে একের পর এক জঙ্গি হামলা কতগুলো গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছে৷ এখানকার তরুণ মুসলমানরা কেন সমাজের বিপক্ষে দাঁড়াচ্ছে? কেন ঠান্ডা মাথায় হত্যা করছে স্বদেশিদের? আর জার্মানির মুসলমানরাই বা কেমন আছেন?

ব্রাসেলস বিমানবন্দর, মোলেনবেক সাবওয়ে স্টেশন এবং প্যারিসের ভয়াবহ হামলার পর, এ রকম সব প্রশ্নের উত্তরই খুঁজে চলেছি আমরা৷ এখন অবশ্য আর আল-কায়েদা নয়, মাঠে নেমেছে তথাকথিত ‘ইসলামিক স্টেট' বা আইএস-এর সদস্যরা৷

কিন্তু এহেন প্রাণহানি থামাতে ইউরোপীয় সমাজকে যে দ্রুত কার্যকর কিছু একটা করতে হবে, সে ব্যাপারে কোনো দ্বিমত নেই কারুর৷ তারপরও সহজে এ সমস্যার কোনো সমাধানও উঠে আসছে না, কারণ, এখনও তরুণ মুসলমানদের ইউরোপীয় সমাজে একাত্ম করতে ব্যর্থ হচ্ছেন ইউরোপের নেতারা৷

ভিডিও দেখুন 03:17

বরং উদ্বাস্তু সংকট আর একের পর এক জঙ্গি হামলার কারণে মুসলমানদের প্রতি একটা আস্থাহীনতা কাজ করছে ইউরোপে৷ বলা বাহুল্য, এভাবে কোনো দেশে ধর্মনিরপেক্ষতার ভিত্তি স্থাপন সম্ভব নয়৷

ডয়চে ভেলের ভিডিও-ব্লগার জাফর আব্দুল করিম জার্মানির কিছু মসজিদে গিয়ে বেশ কয়েকজন মুসলমানের সঙ্গে কথা বলেন৷ তাদের কথাতেও নিরাপত্তাহীনতাই উঠে এসেছে, উঠে এসেছে একঘরে হয়ে যাওয়ার ভয়৷

ওপরের ভিডিওটি দেখলেই বুঝবেন৷

ডিজি/এপিবি

‘মুসলমান মানেই জঙ্গি?’ – আপনার কী মনে হয়? লিখুন নীচে, মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন