1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

মুষড়ে পড়েছে জার্মান দল, উৎসব বন্ধ

পর পর দু’বার বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেওয়ার পর জার্মান টিম স্বাভাবিক কারণেই বেশ মুষড়ে পড়েছে৷ স্পেনের কাছে ১-০ গোলে হারার শোক খেলোয়াড়রা এখনো কাটাতে পারছেন না৷

German national soccer team

জার্মান দলে এখন হতাশা

ম্যাচের একদিন পরও অধিনায়ক ফিলিপ লাম'এর মুখে হাসি ফোটে নি৷ তিনি বলেন, ‘‘সবার আগে বলতে হয়, আমরা চরম হতাশায় ভুগছি৷ কারণ প্রতি ৪ বছরে একবার করে সেমিফাইনাল পর্যন্ত পৌঁছানোর এবং ফাইনালে যাওয়ার সুযোগ পাওয়া যাবে, এমনটা ধরে নেওয়া যায় না৷ তবে অন্যদিকে এটাও ঠিক, যে এবারের বিশ্বকাপে টিম অসাধারণ খেলেছে৷ এই টিমের মান অত্যন্ত ভালো৷ আবার শিরোপা জেতার লক্ষ্যে আগামী বছরগুলিতে আবার কঠিন পরিশ্রম করতে হবে৷''

Germany's team captain Philipp Lahm

হাসি নেই ফিলিপ লামের মুখে

স্পেনের বিরুদ্ধে ম্যাচ নিয়ে আর নতুন করে কিছুই বলতে চান না লাম৷ গোটা ম্যাচ জুড়ে স্পেনের আধিপত্য এতো স্পষ্ট ছিলো, যে নতুন করে বিশ্লেষণের কোনো অর্থ হয় না৷ তা সত্ত্বেও লাম'এর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য ছিলো, ‘‘গতকাল আমরা বিশ্ব মানের এক টিমের বিরুদ্ধে খেলেছি এবং হেরে গেছি৷ একটা-দুটো সুযোগ আমাদের হাতেও এসেছিলো বটে – তবে কিছুটা ভাগ্যেরও দরকার ছিলো৷''

স্পেনের বিরুদ্ধে ম্যাচের পরের দিন জার্মান টিমের সদস্যরা সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিদের এড়িয়ে চলছিলেন৷ একমাত্র ফিলিপ লাম ও সহকারী কোচ হান্স টিডার ফ্লিক সাহস করে নিজেদের বক্তব্য জানালেন৷ ফ্লিক বললেন, ‘‘আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যেতে আজকের দিনটা আমরা কাজে লাগাবো৷ আগামীকাল, অর্থাৎ শুক্রবার ‘ছোট ফাইনাল' ম্যাচের প্রস্তুতি শুরু হবে৷ আমার মনে হয়, তৃতীয় স্থান পাওয়াও বড় এক লক্ষ্য৷ এভাবে আমরা অসাধারণ এই বিশ্বকাপের ভালোভাবে ইতি টানতে পারবো৷''

Germany head coach Joachim Loew

জার্মান কোচ ইওয়াখিম ল্যোভ সংবাদ মাধ্যমের সামনে আসছেন না

তৃতীয় স্থানের জন্য লড়াই অনেকটা সান্ত্বনা পুরস্কার পাওয়ার মতো৷ জার্মান টিম মোটেই সন্তুষ্ট হতে পারছে না৷ ৪ বছর আগে জার্মানির মাটিতেই জাতীয় টিম যখন তৃতীয় স্থান দখল করেছিলো, তখন গোটা দেশ বিশাল উৎসবে মেতে উঠেছিলো৷ কিন্তু এবার ইংল্যান্ড ও আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে ম্যাচে জার্মানি যে বিশাল সাফল্য পেয়েছে, তার পর তৃতীয় স্থান পেলেও সেই সাফল্য অনেকটা যেন মলিন হয়ে উঠছে৷ তাই বার্লিনে ফিরে ফ্যানদের সঙ্গে উৎসবে মেতে উঠতে নারাজ জাতীয় টিম৷ অধিনায়ক লাম বললেন. ‘‘২০০৬ সাল আমরা দেখেছি৷ ২০০৮ সালে ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপের অভিজ্ঞতাও আমাদের মনে আছে৷ এবার টিম আরও বড় লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছিলো৷ জার্মানিতে ফ্যানদের উৎসাহের ছবি ও ভিডিও আমরা দেখেছি৷ আমরা তাদের কাছে কৃতজ্ঞ৷ কিন্তু তৃতীয় স্থান পাওয়ার জন্য ম্যাচের দুই দিন পর উৎসবে আমরা নিজেদের ভাসিয়ে দিতে পারবো না৷ সেটা ঠিক হবে না৷'

অতএব বিজয় উৎসব হচ্ছে না৷ তার বদলে বুন্ডেসলিগা শুরুর আগে ছোট্ট করে ছুটি কাটাবেন খেলোয়াড়রা৷ তবে তার আগে রয়েছে শনিবার উরুগুয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচ৷ জার্মান দলকে উৎসাহ দিতে স্টেডিয়ামে উপস্থিত থাকবেন নতুন জার্মান প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম